সেল্টিক ফুটবল ক্লাব

সেল্টিক ফুটবল ক্লাব (ইংরেজি উচ্চারণ: /ˈsɛltɪk ˈfʊtbɔːl klʌb/)[২] একটি স্কটিশ ফুটবল ক্লাব, যারা স্কটল্যান্ডের ফুটবলের শীর্ষ বিভাগ স্কটিশ প্রিমিয়ার লীগে খেলে থাকে। ক্লাবের পূর্ণনাম দ্য সেল্টিক ফুটবল ক্লাব, তবে এটিকে ভুল করে গ্লাসগো সেল্টিক বা সেল্টিক গ্লাসগো নামেও ডাকা হয়। ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ক্লাবের নাম ছিল দ্য সেল্টিক ফুটবল এন্ড অ্যাথলেটিক কোম্পানি লিমিটেড

সেল্টিক
সেল্টিক ফুটবল ক্লাব লোগো.png
পূর্ণ নামদ্য সেল্টিক ফুটবল ক্লাব[১]
ডাকনামদ্য ভয়স, দ্য সেল্টস, দ্য হুপ্স
প্রতিষ্ঠিত৬ নভেম্বর ১৮৮৭; ১৩২ বছর আগে (1887-11-06)
মাঠসেল্টিক পার্ক
ধারণক্ষমতা৬০,৪১১
মালিকসেল্টিক পিএলসির বিনিয়োগকারী
সভাপতিস্কটল্যান্ড ইয়ান বাঙ্কিয়ার
ম্যানেজারউত্তর আয়ারল্যান্ড নিল লেনন
লীগস্কটিশ প্রিমিয়ারশিপ
২০১৯–২০১ম (চ্যাম্পিয়ন)
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট

সেল্টিক তাদের নিজস্ব মাঠ সেল্টিক পার্কে খেলে থাকে যার ধারণক্ষমতা ৬০,৮৩২ এবং এটি বর্তমানে যুক্তরাজ্যের স্বিতীয় বৃহত্তম ক্লাব স্টেডিয়াম।[৩] ২০০৫-০৬ মৌসুমে সেল্টিক পার্কের গড় দর্শক ছিল ৫৮,১৪৯,[৪] যা যুক্তরাজ্যে গড় দর্শকের দিক দিয়ে কেবল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পেছনে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে।[৫]

দীর্ঘদিনের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রেঞ্জার্সের সাথে সেল্টিক ওল্ড ফার্ম নামে বিশ্বের সবচেয়ে বিখ্যাত প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলেছে। সেল্টিক সাধারণত গ্লাসগোর রোমান ক্যাথলিক সম্প্রদায়ভুক্ত দল হিসেবে পরিচিত এবং আয়ারল্যান্ডের ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের কাছ থেকেও সমর্থন পেয়ে আসছে। সেল্টিকের হোম জার্সি সবুজ ও সাদা আড়াআড়ি ডোরাকাটা শার্ট, সাদা প্যান্ট এবং সাদা মোজা।

১৯৬৭ সালে সেল্টিক প্রথম ব্রিটিশ ও উত্তর ইউরোপীয় দল হিসেবে ইউরোপীয়ান কাপ জিতেছিল, যা পূর্বে কেবল ইতালীয়, পর্তুগীজ এবং স্পেনীয় ক্লাবগুলোই জিতত। সে মৌসুমে সেল্টিক অংশ নেয়া সবগুলো প্রতিযোগিতাতেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে স্কটিশ লীগ, স্কটিশ কাপ, ইউরোপীয়ান কাপ এবং গ্লাসগো কাপ

সেল্টিক একমাত্র স্কটিশ দল যার কেবল স্থানীয় খেলোয়াড়দের নিয়ে গঠিত দল নিয়ে ফাইনালে খেলেছে;[৬][৭] এসব খেলোয়াড়গণ ছিলেন স্কটল্যান্ডীয় এবং সকলে সেল্টিক পার্ক স্টেডিয়ামের ৩০ মাইল ব্যাসার্ধের মধ্যে বাস করতেন। ১৯৭০ সালে সেল্টিক ইউরপীয়ান কাপের ফাইনালে উঠে, কিন্তু ফেয়েনর্ড রটারডাম দলের কাছে পরাজিত হয়। ২০০৩ সালে মার্টিন ও'নিল দলটিকে উয়েফা কাপ ফাইনালে উঠিয়েছিলেন। সেভিলায় অনুষ্ঠিত সে খেলায় তারা এফ.সি. পোর্টোর কাছে ৩-২ গোলে পরাজিত হয়। প্রায় ৮০,০০০ [৮][৯][১০] সেল্টিক সমর্থক ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলেন।

২০০৬-০৭ মৌসুমে সেল্টিক স্কটিশ প্রিমিয়ার লীগ এবং স্কটিশ কাপ জিতেছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Grove, Daryl (২২ ডিসেম্বর ২০১৪e)। "10 Soccer Things You Might Be Saying Incorrectly"PasteSoccerPaste। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  2. Bandini, Paolo (২০০৭-০৫-৩০)। "Did German MPs really encourage footballers to go topless?"Guardian Unlimited। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৬-১১ 
  3. WorldWeb। "Glasgow, GLG Arenas & Stadiums"। WorldWeb.com। ২০০৭-০৮-১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৬-১১ 
  4. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১০ এপ্রিল ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০০৭ 
  5. http://www.footballeconomy.com/stats/stats_att_04.htm
  6. http://www.bbc.co.uk/scotland/sportscotland/asportingnation/article/0045/print.shtml
  7. http://sportsillustrated.cnn.com/soccer/news/2003/05/20/celtic_history/
  8. http://observer.guardian.co.uk/gallery/0,8561,972767,00.html
  9. http://soccernet.espn.go.com/report?id=98023&cc=5739
  10. http://www.fifa.com/en/mens/awards/gala/0,2418,73590,00.html?articleid=73590

বহিঃসংযোগসম্পাদনা