প্রধান মেনু খুলুন

সাদা গোলাপ

নাৎসি জার্মানি সময়কালে গঠিত একট অহিঙ্গিস, বুদ্ধিজীবীর দল।

সাদা গোলাপ, (জার্মান: die Weiße Rose) মিউনিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল অধ্যাপক এবং শিক্ষার্থীদের নেতৃত্বে তৃতীয় রাইখের সময়কালে গঠিত একটি অহিংস, বুদ্ধিজীবী প্রতিরোধী দল। এই দলের সদস্যরা নাৎসি পার্টির বিরুদ্ধে আত্মগোপন রেখে লিফলেট বিতরণ এবং গ্রাফিতি বা দেয়াললিখন প্রচারনা চালাতো। ১৯৪২ সালে ২৭ জুন মিউনিখে দলটির কার্যক্রম শুরু হয়, এবং ১৯৪৩ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি গেস্টাপো কর্তৃক গ্রেফতার হওয়ার কারণে তাদের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।[১] সেইসাথে দলের অন্যান্য সদস্যদের এবং প্যামফলেট বহনকারী সমর্থকদের নাৎসি গণআদালতে (Volksgerichtshof) বিচারের আওতায় আনা হয়েছিল। নাৎসিবিরোধী বক্তব্য প্রচারনার দায়ে তাদের অনেককেই মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।

দলটি তাদের লেখা, মুদ্রণ এবং প্রাথমিকভাবে বুহত্তর মিউনিখ অঞ্চলে তাদের প্যামফলেট বিতরণ করে। পরবর্তীতে, গোপন বাহকরা অন্যান্য শহরগুলিতে, বেশিরভাগই জার্মানির দক্ষিণাঞ্চলে তাদের প্যামফলেটগুলি নিয়ে আসে। সাদা গোলাপ, সর্বমোট ছয়টি লিফলেট রচনা করেছিল, যার মুদ্রণ ছিল ১৫,০০০ কপি। তারা নাৎসি শাসনের অপরাধনিপীড়নের নিন্দা জানিয়েছে এবং প্রতিরোধের আহ্বান জানিয়েছিল। তাদের দ্বিতীয় লিফলেটে, তারা খোলাখুলিভাবে ইহুদিদের প্রতি অত্যাচারগণহত্যার নিন্দা জানিয়েছে।[২] গ্রেফতারকালীন সময়ে, সাদা গোলাপের সদস্যরা ক্রেইসউউ সার্কেল বা রেড অর্কেস্ট্রার শুলজ-বয়েজেন / হারনাক (Schulze-Boysen/Harnack) দলের মতো অন্যান্য জার্মান প্রতিরোধক গোষ্ঠীর সাথে যোগাযোগ স্থাপনের প্রচেষ্টা চালিয়েছিল। বর্তমানে, সাদা গোলাপ জার্মানি এবং বিশ্বব্যাপী সুপরিচিত।

পরিচ্ছেদসমূহ

সদস্য ও সমর্থকসম্পাদনা

মিউনিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাদা গোলাপ দলের মূল সংগঠক ছিল: দুই সহোদর হান্স শোল এবং সোফি শোল, আলেক্সান্ডার শ্মোরেল, ভিলি গ্রাফ, ক্রিস্টফ প্রোবস্ট সহ, সঙ্গীতকলাদর্শনের অধ্যাপক কুর্ট হবার দলের গ্রুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন।

দলটির অন্যান্য সমর্থকদের মধ্যে ছিলেন ট্রাউতে লাফ্রেনৎয, কাথারিনা শুডেকোফ, লিইসেলটে (লিলো) ব্রেন্ডল, ইওরগেন উইটেনস্টাইন, মারি-লুইস ইয়ান, ফাল্ক হারনাক, হুবার্ট ফুর্টোয়াঙ্গঙ্গার, ভিলহেল্ম গায়ার, ম্যানফ্রেড আইখমায়ার, ইয়োসেফ সোনগেন, হাইনরিখ গুটার, হেনরিচ বোলিঙ্গনার, হেলমুট বাউয়ার, হারাল্ড ডোরন, হান্স কনরাড লাইপেল্ট, গিসেলা শেরটলিঙ্গি, রুডি আল্ট[৩] এবং উলফগ্যাং ইগার।[৪] এদের বেশিভাগের বয়স সে সময়ে বিশের কোঠায় ছিলো। ভিলহেল্ম গায়ার, আলেক্সান্ডার শ্মোরেলকে কীভাবে টিনের টেমপ্লেট দিয়ে গ্রাফিতির প্রচারণার কাজ করতে হয় শিখিয়েছিলেন। স্টুটগার্ডের ইউজিন গ্রিমিনগার (১৮৯২-১৯৮৬) তাদের অপারেশনের অর্থ যোগান দিতেন। গ্রিমিনগার ১৯৪৩ সালের ২ মার্চ এই "দোষে" গ্রেফতার হন এবং "গণআদালত" তাকে ১৯৪৩ সালের ১৯শে এপ্রিল দশ বছরের কারাদন্ড দেয়, এবং তাকে লুডভিগবুর্গের পেনাল ইন্সটিটিউশনে ১৯৪৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত বন্দী রাখা হয়। তার স্ত্রী জেনিকে ১৯৪৩ সালের ২ ডিসেম্বর (সম্ভবত) আউশভিৎয-বিরকেনাউ ক্যাম্পে হত্যা করা হয়। গ্রিমিনগারের সহকারি, টিলি হান নিজস্ব অর্থায়নে সাদা গোলাপ দলকে আর্থিক সাহায্য করেছিলেন। তিনিই মুলত দলটির সাথে গ্রিমিনগারের যোগাযোগে মধ্যকুশলী হিসেবে কাজ করতেন। হান প্রায়ই স্টুটগার্ড থেকে মিউনিখে প্রচারনার কাজের জন্য প্রয়োজনীয় দাপ্তরিক অনুসঙ্গ আনা-নেয়া করতেন। এছাড়াও জার্মানির উল্‌ম শহরের কিছু শিক্ষার্থীর দল দলটির প্রচারনা লিফলেট বিতরন করেছিলো। এই দলের মাঝে সোফি শোলের ছেলেবেলার বন্ধু সুসান হিৎযেল, তার কিশোর ভাই হান্স হিৎজেল ও ফ্রানৎজ যে মুলার অন্যতম।[৫]

প্রাথমিক উৎসসম্পাদনা

সমস্ত ৭টি লিফলেটের ইংরেজি অনুবাদ এখানে রয়েছে: লিফলেট

সাদা গোলাপ লিফলেটসমূহসম্পাদনা

প্রাথমিক উৎস উপকরণের ইংরেজি অনুবাদসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "1942/43: The White Rose Resistance Group"। ২০১৭-১০-১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা 
  2. Zubrin, Robert (২০১২)। Merchants of Despair। New York: Encounter Books। পৃষ্ঠা 75। আইএসবিএন 978-1594034763 
  3. The Newsletter of the Center for White Rose Studies: Roses at Noon. ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৩-০৫-২১ তারিখে 17 December 2011
  4. Marcuse, Harold। "George Wittenstein biography and links"। ২০১৩-০৫-২৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা 
  5. Wittenstein, George (Jurgen), M.D., "Memories of the White Rose (Part 4, Trial and Aftermath) ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৩-০৮-০৪ তারিখে

আরো পড়ুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা