প্রধান মেনু খুলুন

সম্রাট ওজিন পরিচিত হমুতাওয়াক বা হনডাওয়াক নামে। উত্তরাধিকারের প্রথাগত ভাবে জাপানের পঞ্চদশত সম্রাট

ওজিন
জাপানের সম্রাট
সম্রাট ওজিন
রাজত্বকাল২৭০ – ৩১০ [১]
জন্ম২০০
জন্মস্থানউমি
মৃত্যু৩১০ (বয়স ১১০ বছর)
মৃত্যুস্থানকারুশিমা তয়াকিরা (নারা)
পূর্বসূরিসম্রাট চুয়াই
উত্তরসূরিসম্রাট নিনতোকু
দাম্পত্যসঙ্গীনাকাতশুশিমা
রাজবংশসাজুর রাজবংশ
পিতাসম্রাট চুয়াই
মাতাসম্রাজ্ঞী জিঙ্গু

এই সম্রাটের জীবন বা রাজত্বকালের কোন দৃঢ় সময় জানা যায়নি, তবে ধারনা করে হয়ে থাকে তিনি ২৭০ থেকে ৩১০ পূর্যন্ত দেশ রাজত্ব করেছেন।

কিংবদন্তী আখ্যানসম্পাদনা

ঐতিহাসিকদের মতে সম্রাট ওজিন ৫ম শতকের 'কিংবদন্তী সম্রাট'। ইতিহাসে যাচাইযোগ্য তারিখ পাওয়া যায় সম্রাট কিম্মেই (৫১০-৫৭০ খ্রিষ্টাব্দ) ২৯তম সম্রাট থেকে। সম্রাট কাম্মুর (৭৩৭-৮০৬) পূর্ববর্তীতে সময় গতানুগতিক ভাবে তারিখ নিশ্চিত করা যায় না,পার্শে ঐতিহ্যগত(traditional)লেখা হয়ে থাকে। সম্রাট কিম্মেই ছিলেন সাজুর রাজবংশের ৫০তম স্বৈরাচারী শাসক।

পরবর্তীতে মৃত্যুর পর সম্রাট ওজিনের নাম দেয়া হইয়েছিলো ওজিন তিন্নো। সমসাময়িক অনেক সম্রাটের ইতিহাসে সম্রাট ওজিনের কথা পাওয়া গেছে। কোজিকি এবং নিহনশকি মতে সম্রাট চুয়াই এবং সম্রাজ্ঞী জিঙ্গুর পুত্র। ওজিনের জন্মের পূর্বে তার পিতা মারা যান এবং কার্যত শাসক হন তার মা। ৮ষ্টম শতাব্দীর ইতিহাস বইয়ের মতে তার মা গর্ভবতী অবস্থায় থাকা কালে তার পিতা মারা যায়। সেই সময়ে নয় মাসের কিছু কম (কিছু ঋতু) কে তিন বছর ধরা হতো। বাস্তব তুলনায় শুধু অবাস্তব এবং সাঙ্কেতিক

ওজিনের জন্ম ২০০এর দিকে ঐতিহ্যগত ভাবে কিন্তু টিছি তারিখ (TC date) অনুযায়ি অবিশ্বাসযোগ্য। বাস্তবানুগভাবে ৪র্থ শতাব্দীতে ধরা হয় মাঝে মাঝে। ওজিনের জন্ম তাসুকুশিতে যখন তার মা প্রমিস্ড ল্যান্ডে (promised land)আক্রমণ হওয়ার পার ফেরত আসার পর। তখন তার নাম দেওয়া হয় সম্রাট হনডাওয়াক। সম্রাট ওজিন যুবরাজ হন মাত্র চার বছর বয়সে।

তাকে রাজপদে অধিষ্ঠিত করা হয় ২৭০৭০বছর বয়সে এবং ৪০বছর রাজত্ব করেন তার মৃত্যু পূর্যন্ত ৩১০। টিছি তারিখ (TC date) অনুযায়ি ওজিনের রাজত্ব করার কোন সময় পাওয়া যায়নি। অনুমান অনুসারে ওজিন দুই প্রাসাদ থাকতেন, দুটোই বর্তমান সময়ে ওসাকাতে।

ঐতিহ্যগত ভাবে সম্রাট ওজিন ছিলেন সম্রাট নিন্তেকুর পিতা যিনি ওজিন মারা যাওয়ার পর রাজ্যে যোগ করেন।

ওজিন কে ঊপাধি দেয়া হয় হাঞ্ছিমান বাইম্যজিন( Hachiman Daimyōjin) তাকে বলা হয়ে থাকে রণক্ষেত্রের প্রতিপালক। হ্যেট ক্লান (Hata Clan ) তাকে তাদের অভিভাবক কামি মানতেন।

ওজিনের প্রকৃত কবরের স্থান কোথায় যানা যায়নি। তবে ধারনা করা হয়ে থাকে ওসাকার মেমোরিয়াল শিন্ত শ্রিন (memorial Shinto shrine)

ইম্পেরিয়াল গৃহস্থালী এজেন্সি ওজিনের সমাধিস্তম্ভ করেন ওসাকাতে। যার নাম দেয়া হয় এয়াগা নো মোফুশিনো ওকা নো মিসাসাগি ( Eega no Mofushi no oka no misasagi)

 
সম্রাট ওজিনের সমাধিসৌধ এবং শিন্তো মন্দির

স্ত্রী এবং সন্তানসমূহসম্পাদনা

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা