শাহজাদা আবদুল মালেক খান

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ
(শাহজাদা আব্দুল মালেক খান থেকে পুনর্নির্দেশিত)

শাহজাদা আবদুল মালেক খান (১৯২৫ - ১ এপ্রিল ২০০৭) একজন বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ ছিলেন। ১৯৭০ সালের নির্বাচনে তিনি এমএলএ নির্বাচিত হন। ১৯৭৩ সালের বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রীপরিষদে শিল্প প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়ীত্ব পালন করেন।[১]

শাহজাদা আবদুল মালেক খান
শাহজাদা আবদুল মালেক খান.jpg
পূর্ব পাকিস্তান
কাজের মেয়াদ
৭ ডিসেম্বর, ১৯৭০ – ১৯৭১
প্রধানমন্ত্রীশেখ মুজিবুর রহমান
প্রতিমন্ত্রী, শিল্প মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
৭ মার্চ ১৯৭৩
প্রধানমন্ত্রীশেখ মুজিবুর রহমান
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯২৫
কাউনিয়া, বেতাগী থানা, বরগুনা জেলা, পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমানে- বাংলাদেশ)
মৃত্যু১ এপ্রিল ২০০৭
রাজনৈতিক দলআওয়ামী লীগ
জীবিকারাজনীতিবিদ

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

বরগুনা জেলার বেতাগী থানার কাউনিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মরহুম আবি আবদুলাহ খান অবিভক্ত বাংলার পটুয়াখালী মহকুমা থেকে এম. এল. এ নির্বাচিত হন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

১৯৫৪ সনে বরিশাল বি. এম কলেজে অধ্যাপনার মাধ্যমে তার কর্মময় জীবন শুরু হয়। ১৯৬১ সালে বরিশালে আইন ব্যবসা শুরু করেন।

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে পাথরঘাটা–বরগুনা আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের আগে অসহযোগ আন্দোলনে বিভিন্ন স্থানে বিশেষ করে বেতাগী, বামনা, পাথরঘাটা ও কাঠালিয়া থানার নেতৃত্ব দেন। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার পর মুজিব নগরের অস্থায়ী সরকারের অধীনে স্বাধীনতা যুদ্ধে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। ১৯৭৩ সালের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে তৎকালীন পটুয়াখালী-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৩ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজবুর রহমানের মন্ত্রীপরিষদের শিল্প প্রতিমন্ত্রী হিসেবে যোগ দেন তিনি।

শিক্ষা জীবনসম্পাদনা

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম. এ ডিগ্রি অর্জন করেন।

মৃত্যুসম্পাদনা

১ এপ্রিল ২০০৭ তিনি পরলোক গমন করেন।

 
মিরপুরের শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তার কবর।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব"বরগুনা জেলা - বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, এটুআই, বিসিসি, ডিওআইসিটি ও বেসিস। ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৮