শান্ত কেন মাস্তান

মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ১৯৯৮-এর চলচ্চিত্র

শান্ত কেন মাস্তান হচ্ছে ১৯৯৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী মারপিট-অপরাধধর্মী চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন মনতাজুর রহমান আকবর ও আরমান প্রোডাকশনের ব্যানারে প্রযোজনা করেছেন আরমান। এতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মান্না ও শাহনাজ, এছাড়াও রাজ্জাক, ডলি জহুরহুমায়ুন ফরিদী, দিলদারমিশা সওদাগর সহ আরও অনেকে। এটি ১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ভারতীয় হিন্দি চলচ্চিত্র জিদ্দি (১৯৯৭)-এর পুনঃনির্মাণ, যা ১৯৯৮ সালে ধার্মা নামে তামিল ভাষায় পুনঃনির্মিত হয়। চলচ্চিত্রটি ৯০ লাখ টাকা বাজেটে নির্মিত হয়ে প্রায় ৮ কোটি টাকা আয় করে।[১][২][৩]

শান্ত কেন মাস্তান
শান্ত কেন মাস্তান.jpg
শান্ত কেন মাস্তান চলচ্চিত্রের পোস্টার
পরিচালকমনতাজুর রহমান আকবর
প্রযোজকআরমান
কাহিনীকারআব্দুল্লাহ জহির বাবু
উৎসজিদ্দি (১৯৯৭)
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারপ্রণব ঘোষ
চিত্রগ্রাহকআসাদুজ্জামান মজনু
সম্পাদকআমজাদ হোসেন
প্রযোজনা
কোম্পানি
আরমান প্রোডাকশন
পরিবেশকআরমান প্রোডাকশন
মুক্তি
  • ৩১ জুলাই ১৯৯৮ (1998-07-31)
দেশ বাংলাদেশ
ভাষাবাংলা
নির্মাণব্যয়৯০ লাখ
আয়১০.৫০ কোটি

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

শান্তর ছোট বোন জুঁইকে ধর্ষণের চেষ্টা করে সাদেক। প্রতিশোধ নিতে গিয়ে সাদেককে খুন করে শান্ত। মামলায় সাক্ষী করা হয় শান্তর বাবা উকিল মির্জা সাহেবকে। ছেলেকে আইনের হাতে তুলে দেন মির্জা। চার বছরের সাজা হয় শান্তর। জেলফেরত শান্তকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন মির্জা। মাস্তানির পথ বেছে নেয় শান্ত।[৪]

অভিনয়েসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "শান্ত কেন মাস্তান (Shanto Keno Mastan) - বাংলা মুভি ডেটাবেজ"বাংলা মুভি ডেটাবেজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-০৩ 
  2. "Shanto Keno Mastan"। Suruj Bangali, Ilias Cobra, Dildar। ১৯৯৮। 
  3. "সিনে ঘর"www.cineghar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-১১ 
  4. Kantho, Kaler। "চলচ্চিত্র | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-০৪ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা