প্রধান মেনু খুলুন

লরেন্স অব অ্যারাবিয়া (চলচ্চিত্র)

লরেন্স অব অ্যারাবিয়া (ইংরেজি: Lawrence of Arabia, অনুবাদ 'আরবের লরেন্স') হল ডেভিড লিন পরিচালিত ১৯৬২ সালের ব্রিটিশ-মার্কিন মহাকাব্যিক ঐতিহাসিক নাট্য চলচ্চিত্র। এটি টি. ই. লরেন্সের জীবনের ঘটনা অবলম্বনে রচিত সেভেন পিলার্স অব উইজডম বই অবলম্বনে নির্মিত। হরাইজন পিকচার্স কোম্পানির ব্যানারে ছবিটি প্রযোজনা করেন স্যাম স্পাইজেল এবং চিত্রনাট্য রচনা করেন রবার্ট বোল্টমাইকেল উইলসন। ছবিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেন পিটার ওটুল। এটি বিশ্বব্যাপী চলচ্চিত্রের ইতিহাসের সর্বাকালের অন্যতম সেরা ও প্রভাবশালী চলচ্চিত্র হিসেবে স্বীকৃত। মরিস জেরের করা ছবিটির নাট্যধর্মী সুর ও ফ্রেডি ইয়ংয়ের সুপার প্যানাভিসন ৭০ চিত্রায়ন ব্যাপক সমাদৃত হয়।[৪]

লরেন্স অব অ্যারাবিয়া
Lawrence of arabia ver3 xxlg.jpg
হাওয়ার্ড টার্পনিং অঙ্কিত প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পোস্টার
পরিচালকডেভিড লিন
প্রযোজকস্যাম স্পাইজেল
চিত্রনাট্যকার
উৎসটি. ই. লরেন্স কর্তৃক 
সেভেন পিলার্স অব উইজডম
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারমরিস জের
চিত্রগ্রাহকফ্রেডি ইয়ং
সম্পাদকঅ্যান ভি. কোট্‌স
প্রযোজনা
কোম্পানি
হরাইজন পিকচার্স
পরিবেশককলম্বিয়া পিকচার্স
মুক্তি
  • ১০ ডিসেম্বর ১৯৬২ (1962-12-10)
দৈর্ঘ্য২২২ মিনিট
দেশ
  • যুক্তরাজ্য
  • যুক্তরাষ্ট্র[১][২]
ভাষাইংরেজি
নির্মাণব্যয়$১৫ মিলিয়ন[৩]
আয়$৭০ মিলিয়ন[৩]

৩৫তম একাডেমি পুরস্কারে ছবিটি ৭টি বিভাগে পুরস্কার লাভ করে: শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রপরিচালনা, মৌলিক সুর, চিত্রগ্রহণ, চিত্রসম্পাদনা, শিল্প নির্দেশনা ও শব্দগ্রহণ; এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেতা, পার্শ্ব অভিনেতা ও শ্রেষ্ঠ গৃহীত চিত্রনাট্য বিভাগে মনোনয়ন লাভ করে। ২০তম গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারে ছবিটি শ্রেষ্ঠ নাট্য চলচ্চিত্রশ্রেষ্ঠ পরিচালকসহ ৬টি বিভাগে পুরস্কার লাভ করে। এছাড়া ১৬তম বাফটা পুরস্কারে ছবিটি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র - যে কোন উৎসশ্রেষ্ঠ ব্রিটিশ চলচ্চিত্রসহ ৪টি বিভাগে পুরস্কার লাভ করে।

"সাংস্কৃতিক, ঐতিহাসিক ও নান্দনিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ" বিবেচনায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লাইব্রেরি অব কংগ্রেস ১৯৯১ সালে ছবিটিকে জাতীয় চলচ্চিত্র রেজিস্ট্রিতে সংরক্ষণের জন্য নির্বাচন করে।[৫] ছবিটি ১৯৯৮ সালে আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউটের ১০০ বছর... ১০০ চলচ্চিত্র তালিকায় ৫ম স্থান[৬] ও ২০০৭ সালের হালনাগাদকৃত তালিকায় ৭ম স্থান অধিকার করে। ১৯৯৯ সালে ব্রিটিশ ফিল্ম ইনস্টিটিউটের শীর্ষ ১০০ ব্রিটিশ চলচ্চিত্র তালিকায় ৩য় স্থান অধিকার করে।[৭]

পরিচ্ছেদসমূহ

কুশীলবসম্পাদনা

  • পিটার ওটুল - টি. ই. লরেন্স
  • আলেক গিনেজ - প্রথম ফয়সাল
  • অ্যান্থনি কুইন - অউদা আবু তাই
  • জ্যাক হকিন্স - সেনাপ্রধান এডমুন্ড অ্যালেনবি
  • ওমর শরিফ - শরিফ আলি
  • হোসে ফেরার - টার্কিশ বে
  • অ্যান্থনি কোয়ায়েল - কর্নেল হ্যারি ব্রাইটন
  • ক্লদ রেইন্স - জনাব ড্রাইডেন
  • আর্থার কেনেডি - জ্যাকসন বেন্টলি
  • ডোনাল্ড উলফিট - সেনাপ্রধান মুরে
  • মাইকেল রে - ফারাজ
  • আই. এস. জোহার - গাসিম
  • জিয়া মহিউদ্দিন - তাফাস
  • গামিল রাতিব - মাজিদ
  • ইয়ান ম্যাকনাফটন - মাইকেল জর্জ হার্টলি
  • জন ডিমেক - দাউদ
  • হিউ মিলার - কর্নেল
  • ফার্নান্দো সাঞ্চো - তুর্কি সার্জেন্ট
  • স্টুয়ার্ট সন্ডার্স - রেজিমেন্টার সার্জেন্ট মেজর
  • জ্যাক গিলিম - ক্লাব সেক্রেটারি
  • কেনেথ ফর্টেস্ক - অ্যালেনবির সহকারী
  • হ্যারি ফাউলার - কর্পোরাল পটার
  • হাওয়ার্ড মারিয়োঁ-ক্রফোর্ড - মেডিকেল অফিসার
  • জন রুডক - এল্ডার হ্যারিথ
  • নরম্যান রসিংটন - কর্পোরাল জেনকিন্স
  • জ্যাক হেডলি - প্রতিবেদক
  • হেনরি অস্কার - সিলিয়াম
  • পিটার বার্টন - দামেস্কের শেখ

পুরস্কার ও সম্মাননাসম্পাদনা

পুরস্কার বিভাগ মনোনীত/বিজয়ী ফলাফল সূত্র
৩৫তম একাডেমি পুরস্কার শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র স্যাম স্পাইজেল বিজয়ী [৮]
শ্রেষ্ঠ পরিচালক ডেভিড লিন বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পিটার ওটুল মনোনীত
শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা ওমর শরিফ মনোনীত
শ্রেষ্ঠ গৃহীত চিত্রনাট্য রবার্ট বোল্টমাইকেল উইলসন মনোনীত
শ্রেষ্ঠ মৌলিক সুর মরিস জের বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রহণ ফ্রেডি ইয়ং বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশনা জন বক্স, জন স্টোল ও দারিও সিমিওনি বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ চিত্রসম্পাদনা অ্যান ভি. কোট্‌স বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রহণ জন কক্স বিজয়ী
১৬তম বাফটা পুরস্কার শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ডেভিড লিন ও স্যাম স্পাইজেল বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ ব্রিটিশ চলচ্চিত্র ডেভিড লিন ও স্যাম স্পাইজেল বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ ব্রিটিশ অভিনেতা পিটার ওটুল বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ বিদেশি অভিনেতা অ্যান্থনি কুইন মনোনীত
শ্রেষ্ঠ ব্রিটিশ চিত্রনাট্য রবার্ট বোল্ট ও মাইকেল উইলসন বিজয়ী
২০তম গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার শ্রেষ্ঠ নাট্য চলচ্চিত্র ডেভিড লিন ও স্যাম স্পাইজেল বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক ডেভিড লিন বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ অভিনেতা - নাট্য চলচ্চিত্র পিটার ওটুল মনোনীত
শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা ওমর শরিফ বিজয়ী
বর্ষসেরা নতুন তারকা - অভিনেতা পিটার ওটুল বিজয়ী
বর্ষসেরা নতুন তারকা - অভিনেতা ওমর শরিফ বিজয়ী
শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রহণ ফ্রেডি ইয়ং বিজয়ী

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "LUMIERE: Lawrence of Arabia"। লুমিয়ের। 
  2. "AFI: Lawrence of Arabia"আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট 
  3. "Lawrence of Arabia - Box Office Data, DVD and Blu-ray Sales, Movie News, Cast and Crew Information"দ্য নাম্বারস। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৮ 
  4. "eMoviePoster.com Image For: 2g105 LAWRENCE OF ARABIA pre-Awards British quad '62 David Lean classic, Peter O'Toole, best art!"emovieposter.com। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৮ 
  5. Andrews, Robert M. (সেপ্টেম্বর ২৬, ১৯৯১)। "Cinema: 'Lawrence of Arabia' is among those selected for preservation by Library of Congress"লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৮ 
  6. "AFI's 100 Years... 100 Movies"আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট। ১৯৯৮। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৮ 
  7. "British Film Institute - Top 100 British Films"সিনেমা রিম। ১৯৯৯। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৮ 
  8. "The 35th Academy Awards (1963) Nominees and Winners"অস্কার। সংগ্রহের তারিখ ৫ জানুয়ারি ২০১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা