প্রধান মেনু খুলুন

রামেস্টেইন (ইংরেজি: Rammstein; জার্মান উচ্চারণ: [ˈʀamʃtaɪ̯n] ) একটি জার্মান মেটাল ব্যান্ড যা ১৯৯৪ সালে বার্লিনে গঠিত হয়। তারা মূলত জার্মান ভাষায় গান গাইলেও ইংরেজি, স্প্যানিশ, ফরাসি, রুশ ভাষায়ও গান গায়। ২০০৯ সালে তাদের ১৫ মিলিয়ন কপি অ্যালবাম বিক্রি হয় সারা বিশ্বে। ১৯৯৪ সাল থেকে রামেস্টেইন একই লাইন আপ নিয়ে গান গাইছে।

রামেস্টেইন
Rammstein-flamethrowers.jpg
রামেস্টেইন-এর আগুন নিক্ষেপণ
প্রাথমিক তথ্য
উদ্ভববার্লিন, জার্মানি
ধরনNeue Deutsche Härte
কার্যকাল১৯৯৪-বর্তমান
লেবেলMotor Music
ওয়েবসাইটwww.rammstein.de
সদস্যবৃন্দটিল লিন্ডম্যান
রিচার্ড জ়ে ক্রপস
পল এইচ, ল্যান্ডার
অলিভার রাইডেল
ক্রিস্টোফার স্রডিঞ্জার
ক্রিস্টিয়ান লরেঞ্জ

গঠনসম্পাদনা

 
রামেস্টেইন

রামেস্টেইন ব্যান্ডটি গঠিত হয় গিটারিস্ট রিচার্ড জ়ে ক্রপস-এর মাধ্যমে। তিনি আমেরিকান ব্যান্ড কিস-এর দ্বারা গভীরভাবে অনুপ্রাণিত ছিলেন তখন। বার্লিন দেয়াল পতনের পর তিনি সচরিন শহরে যান, যেখানে টিল লিন্ডম্যান বাক্স বুনতেন এবনফ ফাস্ট আরসচ নামের একটি ব্যান্ডে ড্রাম বাজাতেন। রিচার্ড তখন বাস করতেন অলিভার রাইডেল এবং ক্রিস্টোফার স্রডিঞ্জার-এর সাথে। তিনি এমন একটা কিছু করতে চাচ্ছিলেন যাতে গিটারের শক্ত কাজের সাথে যন্ত্রের একটা সংমিশ্রণ থাকে। তারা তিনজন নতুন কাজ শুরু করলেন। কিন্তু আবিস্কার করলেন যে এটা খুবই কঠিন গান লেখার পাশাপাশি মিউজিক করা। তাই তিনি লিন্ডম্যানকে অনুরোধ করলেন তাদের ব্যান্ডে যোগ দিতে। পরে এক সংগীত প্রতি্যোগিতায় তারা প্রথম হয়ে পল এইচ, ল্যান্ডার-এর মনোযোগ কাড়লেন। তারপর ক্রিস্টিয়ান লরেঞ্জ তাদের ব্যান্ডে যোগ দেন।

মঞ্চ পরিবেশনাসম্পাদনা

রামেস্টেইন ব্যান্ড বিশেষভাবে বিখ্যাত তাদের আগুনের খেলা দেখানোর জন্য। তাদের ভক্তরা তাই বলে, "অন্যান্য ব্যান্ড বাজায় আর রামেস্টেইন পোড়ায়!" ২৭ শে সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬ সালে বার্লিনে কর্নসাটে একটি দুর্ঘটনা ঘটে যেখানে আগুন দর্শকদের মাঝে পড়ে যায়। তারপর থেকে তারা পেশাদার লোক নিয়োগ করে ঘটনা সামলানোর জন্য। ভোকাল টিল লিন্ডম্যান একজন লাইসেন্সপ্রাপ্ত অগ্নিখেলোয়াড়, যিনি তার কানে, চুলে ও বাহুতে আগুনের আঘাত খেয়েছেন। রামেস্টেইন ব্যান্ডের সদস্যরা আজব ধরনের পোশাক পড়েন। মঞ্চে মিলিটারী পোশাক, হেলমেটো পড়েন তারা। ১৯৯৮ সালে রামেরিকা সফরে তারা মঞ্চে অশ্লীলতার দায়ে এক রাতের জেল খাটেন ও ২৫ ডলার জরিমানা দেন।

বিতর্কসম্পাদনা

১৯৯৯ সালে কলম্বিয়া হাই স্কুল হত্যাযজ্ঞের খুনীদের পরনে ছিল রামেস্টেইন ব্যান্ডের টি-শার্ট। ২০০৪ সালে রাশিয়ার বস্লান স্কুল সংকটের সময় অপরাধীরা তাদের নিজেদের চাঙ্গা রাখতে রামেস্টেইন ব্যান্ডের গান শুনত অবসর সময়ে। তাদের বেশ কিছু মিউজিক ভিডিও অশ্লীল উপাদানে ভরা থাকায় নিষিদ্ধ হয়। সত্য ঘটনা অবলম্বনে মানুষের মাংস খাওয়া নিয়ে ভিডিও মেইন টেইল (আমার অংশ) জার্মানিতে বিতর্ক সৃষ্টি করে। ৫.৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা দিতে হয় ব্যান্ডটিকে গল্পের প্লট চুরির জন্য। ২০০৯ সালে মুক্তি পাওয়া তাদের সর্বশেষ অ্যালবামটি প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য রেটিং প্রাপ্ত এবং প্রকাশ্যে বিক্রি করা নিষিদ্ধ করেছে জার্মান সরকার।

পাদটীকাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা