রামদুলাল দে (১৭৫২-১৮২৫) প্রথম বাঙালি কোটিপতি। শৈশবে পিতৃমাতৃহীন এবং নিঃস্ব রামদুলাল পরবর্তী জীবনে একজন স্বপ্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিত্বে পরিণত হন।[১]

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

কলকাতার জনৈক বানিয়া মদনমোহন দত্তের বাড়ির সরকার বা গৃহস্থালির তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে রামদুলাল দের ব্যবসায়িক জীবনের সূচনা হয়। পারিবারিক সূত্রে জানা যায় যে, একবার তাকে নিলামে কিছু জিনিস কিনতে পাঠানো হয়। কিন্তু নির্ধারিত নিলামি জিনিসটি অলাভজনক মনে করে তার পরিবর্তে তিনি একটি ভাঙা জাহাজ কেনেন, যা থেকে তাৎক্ষণিকভাবে এক লক্ষ রূপী লাভ হয়। এ ঘটনার পর মদনমোহন দত্ত নিলামের পুরো অর্থ সরকার রামদুলালকে দান করেন এবং তাকে স্বাধীনভাবে ব্যবসা করার অনুমতি দেন।[২]

ব্যবসায়ী জীবনসম্পাদনা

আমেরিকান বণিকদের সঙ্গে পারস্পরিক সংযোগের মাধ্যমে রামদুলাল ব্যবসায়ে সাফল্য অর্জন করেন। ১৭৮৫ সাল থেকে আমেরিকানরা ব্যবসা-বাণিজ্যের সূত্রে বাংলায় আগমন শুরু করে। রামদুলাল ১৮০০ সাল পর্যন্ত তাদের মুৎসুদ্দি বা বানিয়া হিসেবে কাজ করেন। ১৮০০ সালে তিনি কলকাতায় নিজস্ব কিয়ারিং ও ফরোয়ার্ডিং এজেন্সি প্রতিষ্ঠা করেন। কলকাতা বন্দরে আসা সকল জাহাজই রামদুলালকে তাদের এজেন্ট নিযুক্ত করে। আমেরিকানদের সঙ্গে নৌবাণিজ্যে রামদুলাল প্রচুর পরিমাণ পঁুজি বিনিয়োগ করেন এবং প্রভূত মুনাফার অধিকারী হন। তার সুযোগ্য নির্দেশনায় আমেরিকানরাও যথেষ্ট লাভবান হয়। রামদুলালের সঙ্গে বাণিজ্যসূত্রে কর্মরত একটি সালেম হাউস (বোস্টনের নিকটবর্তী একটি বন্দর) তার কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ তাদের একটি জাহাজের নামকরণ করে ‘রামদুলাল দে’ নামে। এই জাহাজ সালেম থেকে কলকাতায় বেশ কয়েকটি বাণিজ্য সফর করে। ১৮০৭ থেকে ১৮১৫ সাল পর্যন্ত বাংলার রপ্তানি বাণিজ্যে আমেরিকানদের অংশগ্রহণ ছিল খুবই কম। এর কারণ ছিল তাদের স্ব-আরোপিত নিষেধাজ্ঞা এবং নেপোলিয়ানের সঙ্গে যুদ্ধে আমেরিকানদের প্রতি ব্রিটিশদের বৈরিতা। এ সময়ে আমেরিকানরা রামদুলালের মাধ্যমে বাংলায় তাদের বাণিজ্যিক লেনদেন সম্পন্ন করে। রামদুলাল নিজের জাহাজে করে পণ্যসামগ্রী ল্যাটিন আমেরিকায় পাঠাতেন এবং সেখান থেকে আমেরিকানরা বাংলার পণ্য সংগ্রহ করত।

রামদুলাল ছিলেন প্রথম বাঙালি ব্যবসায় উদ্যোক্তা, যিনি আমেরিকান ও ইউরোপীয়ানদের সঙ্গে সমান তালে এবং সমমর্যাদা সহকারে ব্যবসা-বাণিজ্যে যুক্ত হন। অধিকন্তু, বাঙালিদের মধ্যে তিনিই সর্বপ্রথম নিজের জাহাজ নিয়ে পশ্চিম গোলার্ধ বা আমেরিকায় নৌবাণিজ্য পরিচালনা করেন। অন্যদিকে রামদুলাল ছিলেন কলকাতার প্রথম ভারতীয়, যিনি পাশ্চাত্য পদ্ধতিতে ব্যবসায়িক হিসাব এবং ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা চালু করেন। হিসটোরিক্যাল সোসাইটি অব ম্যাসাচুসেটস এবং সালেম-এর পিবডি মিউজিয়ামসহ নিউ ইংল্যান্ডের অন্যান্য সামুদ্রিক বাণিজ্য সংক্রান্ত সংরক্ষণাগারে রামদুলাল দের সঙ্গে সম্পাদিত বাণিজ্যিক লেনদেনের অসংখ্য নিদর্শন রক্ষিত আছে।

১৮২৫ সালে রামদুলাল দের মৃত্যুর পর সালেম-এর ইস্ট ইন্ডিয়া মেরিন সোসাইটির সদস্যগণ শোকপ্রকাশ করেন। ১৮৪০ সাল পর্যন্ত তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভালভাবেই চলতে থাকে। কিন্তু তারপর থেকে এ প্রতিষ্ঠানকে ঘিরে পারিবারিক কলহের সূত্রপাত হয়। ফলে ব্যবসায় মন্দা দেখা দেয় এবং ১৮৬০ সালের দিকে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ হয়ে যায়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "দে, রামদুলাল - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 
  2. "দ্বিতীয় চরিতাষ্টক/রামদুলাল সরকার - উইকিসংকলন একটি মুক্ত পাঠাগার"bn.m.wikisource.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৭-২৪ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা