প্রধান মেনু খুলুন

ম্যাসিডনের ক্লিওপাত্রা ইউরিদিকে

ক্লিওপাত্রা ইউরিদিকে (গ্রিক: Κλεοπάτρα Εὐρυδίκη; জন্ম - ৩৫৩ খ্রিস্টপূর্বাব্দ [সম্ভবত] - মৃত্যু ৩৩৬ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) ম্যাসিডন শাসনকারী আর্গিয়াদ রাজবংশের রাজা দ্বিতীয় ফিলিপের রাণী ছিলেন।

ক্লিওপাত্রা ইউরিদিকে
ম্যাসিডনের রাণী
দাম্পত্যসঙ্গীদ্বিতীয় ফিলিপ
সন্তানাদিইউরোপা
কারানোস
রাজবংশআর্গিয়াদ

সংক্ষিপ্ত জীবনীসম্পাদনা

ক্লিওপাত্রা দ্বিতীয় ফিলিপের সেনাপতি আত্তালোসের ভ্রাতুষ্পুত্রী ছিলেন। দ্বিতীয় ফিলিপ সম্ভবতঃ ৩৩৮ খ্রিস্টপূর্বাব্দে[১] নিজের ৪৫ বছর বয়সে তখন মাত্র ষোড়শী এই কন্যাকে বিবাহ করেন[২][৩] ক্লিওপাত্রা ইউরিদিকের যে কোন সন্তান পিতা-মাতা উভয় দিক থেকেই ম্যাসিডোনিয় হওয়ায় এই বিবাহের ফলে সিংহাসনের উত্তরাধিকারী হিসেবে আলেকজান্ডারের অবস্থান কিছুটা অসুরক্ষিত হয়ে পড়ে, কারণ তিনি পিতার দিক থেকে ম্যাসিডোনিয় হলেও মাতার দিক থেকে এপাইরাসীয় ছিলেন।[৩] বিবাহের সময় মদ্যপ অবস্থায় আত্তালোস ফিলিপ ও ক্লিওপাত্রার মিলনের ফলে একজন বৈধ উত্তরাধিকারীর কথা উল্লেখ করলে[২] দৃশ্যতঃ ক্ষুব্ধ আলেকজান্ডার তাঁর মাথায় পানপাত্র ছুঁড়ে মারেন, কিন্তু মদ্যপ ফিলিপ আত্তালোসের পক্ষ গ্রহণ করলে ক্ষুব্ধ আলেকজান্ডার তাঁর মায়ের সাথে রাজ্য হতে চলে যান ও তাঁর মামা এপাইরাসরাজ প্রথম আলেকজান্ডারের কাছে আশ্রয় গ্রহণ করেন। পরে ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটলে মাস ছয়েক পর তাঁরা আবার ম্যাসিডনে ফিরে আসেন।[৪] ফিলিপ ও ক্লিওপাত্রার ইউরোপা নামক এক কন্যা ও কারানোস নামক এক পুত্রসন্তানের জন্ম হয়।[৫] তবে এই নিয়ে বিতর্ক আছে। এফ স্টেয়েলিন প্রমুখ ঐতিহাসিকদের দাবি[৬], ক্লিওপাত্রার একটিই মাত্র সন্তান ছিল, সদ্যজাত কন্যা ইউরোপা। কারানোস বলে আলেকজান্ডারের যে সৎভাই'এর উল্লেখ পাওয়া যায় তার সাথে ক্লিওপাত্রার সম্পর্ক ছিল না। প্রাচীন গ্রিক ঐতিহাসিক সাতিরোসের সাক্ষ্য এই মতই সমর্থন করে[৭]; রোমান ঐতিহাসিক জাস্তিনাসও শুধুমাত্র এক কন্যার হত্যারই উল্লেখ করেছেন।[৮] ক্লিওপাত্রা বিবাহের পর ইউরিদিকে নাম গ্রহণ করেন। ৩৩৬ খ্রিস্টপূর্বাব্দে দ্বিতীয় ফিলিপের মৃত্যুর পর তাঁর অপর পত্নী অলিম্পিয়াস ইউরোপাকারানোসকে হত্যা করলে ক্লিওপাত্রা ইউরিদিকে আত্মহত্যা করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Green, Peter; Alexander of Macedon: 356-323 B.C. A Historical Biography; Berkeley & Los Angeles; University of California Press; 1991.
  2. Roisman, Joseph; Worthington, Ian (২০১০)। A Companion to Ancient Macedonia। John Wiley & Sons। আইএসবিএন 1-4051-7936-8 
  3. McCarty, Nick (২০০৪)। Alexander the Great। Camberwell, Victoria: Penguin। আইএসবিএন 0-670-04268-4 
  4. Satyrus, FHG III 161, Fragment 5 bei Athenaios 13, 557e; Plutarch, Alexander 9, 11; Iustinus 9, 7, 5
  5. Junianus Justinus, Epitome of Pompeius Trogus, ix. 7
  6. Felix Stähelin: Kleopatra 12). In: Paulys Realencyclopädie der classischen Altertumswissenschaft (RE). Band XI,1, Stuttgart 1921, Sp. 734 f; Siegfried Lauffer: Alexander der Große. 3. Auflage, München 1993, আইএসবিএন ৩-৪২৩-০৪২৯৮-২, S. 35f.; 39f.
  7. Satyrus, FHG III 161, Fragment 5 bei Athenaios 13, 557e
  8. Iustinus 9, 7, 5.

বহিঃসংযোগসম্পাদনা