মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা

মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা (ইংরেজি: Human resource management) একই সঙ্গে একটি অধ্যয়নের বিষয় ও ব্যবস্থাপনা কৌশল যা একটি প্রতিষ্ঠানের অভীষ্ঠ লক্ষ্যসমূহ অর্জনের জন্য আভ্যন্তরীক মানবসম্পদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা পদ্ধতির ওপর আলোকপাত করে। কর্মীদের প্রতিষ্ঠানের প্রতি আকৃষ্ট করা, আগ্রহীদের মধ্য থেকে যোগ্যদের খুঁজে বের করা ও নিয়োগ প্রদান, কর্মীদের অনুপ্রাণিত করা ও তাদের সাথে প্রতিষ্ঠানের সু-সম্পর্ক বজায় রাখা, তাদের কর্মজীবনে উত্তরোত্তর উন্নয়নের পথ সৃষ্টি করা এবং প্রয়োজনে তাদের ছাঁটাই করাসহ প্রতিষ্ঠানের মানবসম্পদ সম্পর্কিত সব ধরনের কাজই প্রতিষ্ঠানের মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের কাজ। কিন্তু এর মূল উদ্দেশ্য হলো প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্যসমূহ অর্জন করা যার মধ্যে প্রধান চারটি হলো বিক্রয় ও রাজস্বআয় বৃদ্ধি, মুনাফা অর্জন ও বর্ধন, মার্কেট শেয়ার বৃদ্ধি এবং প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি উন্নততর করণ। প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে কাজ করার সময় মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগকে সেই দেশের শ্রম আইন ও কর্মসংস্থান আইন মেনে চলতে হয়। প্রতিষ্ঠানের মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে যিনি থাকেন তাকে সচরাচর মানব সম্পদ ব্যবস্থাপক বলা হয়।

গ্লোবাল হিউম্যান রিসোর্স ফোরাম,২০০৯

বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে সারা বিশ্বে শিল্প বিপ্লব শুরু হলে তুমুল প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মীদের দিয়ে অবৈধভাবে কাজ করিয়ে নেয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়। এবং এর ফলে শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দিতে থাকে। মূলত এই শ্রমিক অসন্তোষের ফলেই মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা ধারণার জন্ম হয়।[১] তৎকালীন সময়ে মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার কাজ ছিল শ্রমিকদের কর্ম-ঘণ্টার হিসাব রাখা এবং তাদের যথোপযুক্ত পারিশ্রমিক নিশ্চিত করা। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে প্রয়োজনের তাগিদে মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার পরিধি অনেক বিস্তৃত হয়েছে। মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রথাগত পারসোনেল ম্যানেজমেণ্ট থেকে পৃথক।

মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা পরিচিতি ।

মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা সাধারণ ব্যবস্থাপনারই একটি অবিচেছদ্য গুরুত্বপূর্ণ অংশ । ব্যবস্থাপনাবিদগণ যে সাতটি ‘ M ’ দ্বারা কার্য সম্পাদন করেন তার মধ্যে Man Power বা Human Resource অন্যতম । দক্ষতা ও ফলপ্রসূতার সাথে প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য অর্জনের লক্ষ্যে দক্ষকর্মী সংগ্রহ ও নিয়ােগ , উন্নয়ন ও সংরক্ষণের প্রক্রিয়াকে মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বলে । প্রতিষ্ঠানে নিয়ােজিত কর্মী । তথা মানব সম্পর্কিত বিষয়াদি নিয়ে ব্যবস্থাপনার যে অংশ কাজ করে , তা মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা হিসেবে পরিচিত । মানব সম্পদ । ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তিবর্গ , তাদের সংগ্রহ , নির্বাচন ও নিয়ােগ , উন্নয়ন , কর্মীদের কাজে উদ্বুদ্ধকরণ ও রক্ষণাবেক্ষণের সাথে সম্পর্কিত । মানব সম্পদ হচ্ছে প্রতিষ্ঠানের চালিকাশক্তি । তাই প্রতিষ্ঠানের এ সম্পদের বাছাই , নিয়ােগ , প্রশিক্ষণ ও উন্নয়ন , বেতন ও মজুরি প্রদান , প্রেষণা ও সুযােগ - সুবিধা দান , কর্মীদের অভাব - অভিযােগ নিরসন , কর্মীর অধিকার প্রতিষ্ঠা ইত্যাদি বিষয়সমূহ যে মাধ্যমে সম্পাদন করা হয় , তাকে মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা হিসেবে অভিহিত করা যায় ।


মানব সম্পদ পরিকল্পনা এবং প্রাতিষ্ঠানিক লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

একজন ছোট-ব্যবসার মালিক হিসাবে, আপনি দেখতে পারেন যে মানব সম্পদ কখনও কখনও আপনার ব্যবসায়িক পরিকল্পনা বা সাংগঠনিক ব্যবস্থাপনা কৌশলের পাশে ঠেলে দেওয়া হয়। কার্যকর মানব সম্পদের সাথে জড়িত পরিকল্পনা, যাইহোক, আপনার ছোট ব্যবসাকে একটি প্রতিভাবান, কার্যকর এবং দক্ষ কর্মচারী ভিত্তি তৈরি করতে সাহায্য করতে পারে, যা সামগ্রিক সাফল্যের দিকে নিয়ে যেতে পারে।


মানব সম্পদ কর্মীদের পরিচালনা এবং তাদের মঙ্গল সম্পর্কে।  তাই HR-এর জন্য পরিকল্পনা করার জন্য প্রয়োজন যে আপনি, ছোট-ব্যবসার মালিক হিসাবে, কর্মচারীদের কাজের ফাংশনগুলির সাথে মেলান যা তাদের দক্ষতা এবং আগ্রহগুলিকে সর্বোত্তমভাবে পূরণ করে।  আপনার ব্যবসার বৃদ্ধি এবং পরিবর্তনের সাথে সাথে, আপনি দেখতে পাবেন যে সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ পদগুলি পূরণ করার জন্য আপনাকে কর্মচারী প্রার্থীদের সরবরাহ করতে হবে।  ব্যবসার সামগ্রিক কৌশল পরিকল্পনার অংশ হিসাবে সফল সংস্থাগুলি এইচআর পরিচালনা করতে সক্ষম।  অন্য কথায়, আপনি এমন কর্মচারী নিয়োগ করতে পারবেন যা আপনাকে ব্যবসার লক্ষ্য পূরণে সহায়তা করে।
পূর্বাভাস চাহিদা
মানব সম্পদের জন্য পরিকল্পনার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল চাহিদার পূর্বাভাস।  এটি বেশ কয়েকটি আকারে আসে: প্রথমে, আপনি ব্যবসার বিক্রয় এবং আয়ের সাথে কোথায় যাচ্ছে সে সম্পর্কে কিছু ধারণা পেতে চাইবেন।  আপনি কি এই আসন্ন ত্রৈমাসিকে গত থেকে 25 শতাংশ বেশি বিক্রি করার আশা করছেন?  যদি তাই হয়, তাহলে এই চাহিদা মেটাতে সাহায্য করার জন্য আপনাকে সম্ভবত নতুন কর্মী নিতে হবে।  মূল বিষয় হল আপনার ব্যবসার আর্থিক সাফল্য তার মানব সম্পদ পরিকল্পনার সাথে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত।  আপনার যদি পর্যাপ্ত কর্মচারী না থাকে, আপনি চাহিদা মেটাতে পারবেন না, এবং চাহিদা পূরণ না করার মানে হল আপনি অন্যথায় খুশি গ্রাহকদের মুখ ফিরিয়ে নিবেন।
সক্রিয় হচ্ছে
প্রতিটি ছোট-ব্যবসার মালিক একটি সহজ মন্ত্র গ্রহণ করা ভাল: "আমি সক্রিয়!"  যদিও এটি আপনার জন্য একটু বেশি গুপ্ত মনে হতে পারে, ধারণাটি সহজ: আপনি যদি আপনার ব্যবসায় কী ঘটছে সে সম্পর্কে সতর্ক থাকেন, তাহলে আপনি আরও কার্যকরভাবে প্রস্তুত কর্মীদের একটি পাইপলাইন তৈরি করতে পারেন, ইচ্ছুক এবং আপনার সংস্থার বৃদ্ধিতে সহায়তা করতে সক্ষম  এবং তার লক্ষ্য পূরণ করুন।  আপনার উদ্যম সংক্রামক হবে.  যেহেতু আপনার কর্মীরা আপনাকে ব্যবসার ভবিষ্যত সম্পর্কে এবং অন-বোর্ডে নতুন প্রতিভা নিয়ে আসার বিষয়ে উত্তেজিত দেখবে, তারাও আপনাকে ব্যবসার লক্ষ্য পূরণে সহায়তা করার বিষয়ে উত্তেজিত হবে, যার ফলে আপনার আর্থিক নীচের লাইন বৃদ্ধি পাবে।
ভারসাম্য খোঁজা
কার্যকর মানবসম্পদ পরিকল্পনার চাবিকাঠি হল কার্যকর কর্মচারী এবং দক্ষ পরিষেবার মধ্যে ভারসাম্য খুঁজে বের করা।  সমস্ত ব্যবসা ভাটা এবং প্রবাহিত হয়, আপনার এমন মুহূর্তগুলি থাকবে যেখানে ব্যবসার উন্নতি হচ্ছে এবং কর্মীরা বিক্রয়, গ্রাহকের অনুসন্ধান বা বিপণনের বিষয়গুলির সাথে মোকাবিলা করতে অত্যন্ত ব্যস্ত থাকবে৷  অন্য সময়ে, আপনি দেখতে পাবেন ব্যবসাটি কিছুটা ধীরগতির এবং সম্ভবত কর্মচারীরা আগের মতো ব্যস্ত নয়।  স্মার্ট ব্যবসার মালিকরা তাদের কর্মচারীদের প্রধান ব্যবসায় ধীরগতিতে নিযুক্ত হওয়ার জন্য পার্শ্ব-প্রকল্পগুলি রেখে এটি পরিচালনা করতে সক্ষম হন।  তাদের ইনপুট জন্য কর্মীদের জিজ্ঞাসা করুন.  তাদের কি নতুন পণ্য বা পরিষেবার জন্য ধারণা আছে?  ব্যবসা চক্রের ডাউনটাইম এই নতুন ধারণাগুলি অন্বেষণ করার জন্য একটি উপযুক্ত সময়।  এটি আপনার কর্মীদের নিযুক্ত রাখে এবং পরিষেবাকে ত্যাগ না করে ব্যবসাটিকে এখনও উত্পাদনশীল হতে দেয়।


আপনার ছোট ব্যবসা চালানোর অংশ হিসাবে, বিক্রয়ের উপর ঘনিষ্ঠ নজর রাখা গুরুত্বপূর্ণ।  শুধুমাত্র আপনার অতীত এবং বর্তমান বিক্রয় কোটা রেকর্ড করা উচিত নয়, ভবিষ্যতের দিকে তাকানো এবং আপনার আসন্ন বিক্রয় অনুমান করাও গুরুত্বপূর্ণ।  আপনার ব্যবসার জন্য সঠিকভাবে পূর্বাভাস দিয়ে, আপনি আপনার ক্রিয়াকলাপগুলিকে আরও কার্যকরভাবে পরিকল্পনা করতে পারেন, আপনার এবং আপনার গ্রাহকদের উপকার করে৷
আপনার যথেষ্ট সরবরাহ আছে তা নিশ্চিত করা
বিক্রয় পূর্বাভাসের একটি মূল সুবিধা হল আপনার পণ্যের পর্যাপ্ত সরবরাহ।  Chargebee-এর মতে, সঠিক বিক্রয় পূর্বাভাস ব্যবসায়িকদের তাদের উৎপাদন ও সরবরাহ শৃঙ্খলে আসন্ন সমস্যাগুলি খুঁজে বের করতে সাহায্য করে এবং কোনও সমস্যা দেখা দেওয়ার আগে অবশ্যই সঠিক করতে পারে।  আপনি যে কোনো মাসে কতগুলি পণ্য বিক্রি করবেন তা সঠিকভাবে অনুমান করতে পারলে, আপনি আগাম ইনভেন্টরি অর্ডার করতে পারেন, লজিস্টিক এবং শিপিংয়ের বিশদ তৈরি করতে পারেন এবং আপনার গ্রাহকদের পণ্য সরবরাহ করতে প্রস্তুত থাকতে পারেন।  আপনার যদি পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকে তবে আপনি এখন এবং ভবিষ্যতে উভয় ক্ষেত্রেই আপনার বিক্রয়কে ক্ষতিগ্রস্থ করবেন।  গ্রাহকরা মনে রাখতে পারেন যে আপনি স্টক শেষ হয়ে গেছেন এবং আবার আপনার কাছে আসার ঝুঁকি না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।
কর্মীদের সঠিক পরিমাণ নির্ধারণ করা
পূর্বাভাসের নির্ভুলতার আরেকটি বড় সুবিধা হল সঠিক সময়ে নির্ধারিত স্টাফ সদস্যদের সঠিক পরিমাণে থাকা।  এটি নিশ্চিত করে যে আপনার একটি অপ্টিমাইজড এবং সাশ্রয়ী সময়সূচী রয়েছে।  এছাড়াও, এটি গ্রাহকদের সর্বোত্তম পরিষেবা প্রদান করে কারণ তাদের পরিবেশন করার জন্য দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করতে হবে না।  শুধু তাই নয়, আপনি সন্তুষ্ট কর্মচারীদের সাথে শেষ করেন কারণ তারা ব্যস্ত মরসুমে অতিরিক্ত কাজ করে না বা চাপ দেয় না, কারণ তাদের সহায়তা করার জন্য তাদের প্রচুর টিম সদস্য রয়েছে।  অনেক এগিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী প্রতিষ্ঠানগুলিকে ব্যস্ত মরসুমের জন্য সময়মতো নতুন কর্মচারী নিয়োগ এবং অনবোর্ড করতে সক্ষম করে।
অর্জনযোগ্য আর্থিক পরিকল্পনা তৈরি করা
একটি সঠিক বিক্রয় পূর্বাভাস সহ একটি ব্যবসা কার্যকরভাবে তার আর্থিক ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করতে পারে।  ফলস্বরূপ, আপনার সংস্থা আরও ভাল ব্যবসায়িক সিদ্ধান্ত নিতে পারে কারণ আপনার আগত রাজস্ব এবং নগদ প্রবাহ সম্পর্কে আপনার স্পষ্ট ধারণা রয়েছে।  লিস্টিং মিরর নোট করে যে সঠিক পূর্বাভাস ব্যবসাগুলিকে ওভারহেড খরচ, শ্রম এবং উত্পাদনের জন্য বাজেট করতে সাহায্য করে।  আপনি যখন আপনার ভবিষ্যত বিক্রয় কেমন হবে তা জানলে আপনার লজিস্টিক, অপারেশন এবং বিপণন ব্যয় সম্পর্কেও ধারণা পাবেন।  আপনার স্বল্প-মেয়াদী এবং দীর্ঘমেয়াদী কর্মক্ষমতার স্পষ্ট ইঙ্গিত দিয়ে, আপনি একটি নতুন অবস্থান খোলা, আরও কর্মী নিয়োগ বা বিভাগ কমানোর মতো সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।
কৌশলগতভাবে আপনার বিপণন কার্যক্রম পরিকল্পনা
সঠিক বিক্রয় পূর্বাভাস সহ, ব্যবসাগুলি সাশ্রয়ী বিপণন পরিকল্পনা তৈরি করতে পারে যা সঠিক সময়ে চাহিদা বাড়ায়।  লিস্টিং মিরর ধীর সময়ের মধ্যে কম খরচে মার্কেটিং কৌশল ব্যবহার করার পরামর্শ দেয়।  তারপর, ব্যস্ত সময়কালে, আপনার আগত আয়ের সাথে মেলে বড় বিপণন প্রচারাভিযান বাস্তবায়ন করুন।  এইভাবে, আপনি ধীর মরসুমে নগদ-কষ্ট অনুভব না করে সারা বছর বিপণন চালিয়ে যেতে পারেন।
বিক্রয় পূর্বাভাসের সুবিধা: সঠিকতার জন্য টিপস এবং কৌশল
আপনার আসন্ন বিক্রয় সঠিকভাবে পূর্বাভাস দিতে, ঐতিহাসিক ডেটা দেখুন এবং আপনার বিক্রয় রূপান্তর হার নির্ধারণ করুন।  এটি আপনার ব্যবসার বর্তমানে যে ট্র্যাফিক দেখছে তার সাথে আপনি কী ধরণের বিক্রয় আশা করতে পারেন তা নির্ধারণ করতে সহায়তা করবে৷  এছাড়াও, বাহ্যিক এবং অভ্যন্তরীণ বিষয়গুলিকে মাথায় রাখুন, যেমন অর্থনৈতিক প্রবণতা, বাজারের চাহিদা, গ্রাহকের অনুভূতি, লজিস্টিক সমস্যা এবং কর্মচারীর ব্যস্ততা।
একটি পরিষ্কারভাবে সংজ্ঞায়িত বিক্রয় প্রক্রিয়া এবং ফানেল থাকাও ভাল।  এইভাবে, আপনার বিক্রয় দল গ্রাহকদের সঠিক সময়ে ক্রয় করার জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য এবং উৎসাহ প্রদান করতে পারে।  গ্রাহক এবং তাদের ক্রিয়াকলাপগুলি ট্র্যাক করতে একটি CRM ব্যবহার করতে ভুলবেন না এবং ফানেল থেকে বাদ পড়া গ্রাহকদের সাথে অনুসরণ করুন৷

ইতিহাসসম্পাদনা

বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার শুরু হয়েছিল মূলত ফ্রেডারিক টেইলরের বৈজ্ঞানিক ব্যবস্থাপনা তত্ব থেকে। বৈজ্ঞানিক ব্যবস্থাপনা মূলত উৎপাদনে প্রক্রিয়ার কার্যকারীতা, দক্ষতা এবং মিতব্যায়িতা আনয়ন করেছিল। এই বৈজ্ঞানিক ব্যবস্থাপনাকে প্রায়োগিক করার জন্য এর আরো একটি উন্নত তত্বের প্রয়োজন ছিল যা মানব সম্পর্ক বিজ্ঞান বা হিউম্যান রিলেশন সায়েন্স নামে পরিচিতি পায়। পরবর্তীতে এই মানব সম্পর্ক বিজ্ঞানই মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার রুপ নেয়।
মানব সম্পর্ক বিজ্ঞান নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে এলটন মেয়ো বিংশ শতাব্দির মাঝামঝি সময়ে এসে দেখান যে কেমন করে মজুরি এবং শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধি উৎপাদন ব্যবস্থা ত্বরান্বিত করে এবং শ্রমিকদের আরোও বেশি উৎপাদনে প্ররণা যোগায়। এছাড়াও ম্যাক্স ভাইবার, অ্যাব্রহাম মাসলো, হার্জবার্গ এবং ডেভিড ম্যাকক্লিল্যান্ড প্রমুখ ব্যবস্থাপনা বিশেষজ্ঞ মানুষের প্রাতিষ্ঠানিক আচরণ এবং প্রাতিষ্ঠানিক তত্বের জন্য একটি সুস্পষ্ট ভিত্তি দাঁড় করান।

মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বনাম জনপ্রশাসনসম্পাদনা

আধুনিক মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার ধারণা প্রচলিত জনপ্রশাসনের ধারণার বিচেনায় কার্যত প্রায় অভিন্ন কিন্তু উদ্দেশ্যগতভাবে পৃথক। জনপ্রশাসন একটি যান্ত্রিক প্রক্রিয়া। আর মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার উদ্দেশ্য হলো ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হাসিল করা।

মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার সূত্রবলীসম্পাদনা

প্রেষণাসম্পাদনা

প্রেষণা হলো শ্রমিক-কর্মচারীকে প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য অর্জনের উদ্দেশ্যে কর্মে উদ্দীপ্ত করা। যে কোনো ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের চারটি উদ্দেশ্য থাকে যথা: বিক্রয় তথা রাজস্ব বৃদ্ধি, মুনাফা বৃদ্ধি, বাজার বৃদ্ধি এবং গুডউইল বৃদ্ধি। শ্রমিক-কর্মচারীরা আন্তরিকভাবে সক্রিয় না হলে এই উদ্দেশ্যাবলী আদায় হবে না। মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা শাস্ত্রের অন্যতম লক্ষ্য হলো কীভাবে শ্রমিক-কর্মচারীদের প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্যানুযায়ী কাজে ব্যাপৃত করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করা। অ্যাব্রাহাম মাসলো বলেছেন মানুষের অনেক চাহিদা থাকে। এই সব চাহিদা পূরণ করা হলে মানুষ কাজে উদ্দীপ্ত হয়। তিনি মানুষের সকল চাহিদাকে ৫টি শ্রেণিতে ভাগ করেছেন। তিনি বলেছেন, এই পাঁচ প্রকার চাহিদা একটি নির্দিষ্ট ক্রমে কার্যকর হয়। সর্ব প্রথমে জৈবিক চাহিদাগুলো সক্রিয় থাকে। সুতরাং প্রেষণার প্রথম ধাপ হবে এই সব জৈবিক চাহিদা পূরণ করা। এগুলো হলো: আহার, বাসস্থান এবং লজ্জানিবারণের পোষাকআশাক। পরবর্তীতে যৌনতৃপ্তিকে এই পর্যায়ে অন্তুর্ভুক্ত করা হয়েছে। চাহিদার দ্বিতীয় স্তরে রয়েছে নিরাপত্তার চাহিদা। জৈবিক চাহিদা পূরণ হওয়ার পর নিরাপত্তার চাহিদা সক্রিয় হয়। জৈবিক চাহিদা ও নিরাপত্তার চাহিদা - এই দুটি স্তরের পর ক্রমান্বয়ে সক্রিয় হয় সামাজি চাহিদা, মর্যাদার চাহিদা এবং আত্মোচরিতার্থতার চাহিদা। মাসলোর মতে নিম্নতর চাহিদা পূরণ না হলে উচ্চতর চাহিদা সক্রিয় হয় না। আবার একটি চাহিদা সর্বাংশে মিটে গেলে তা আর প্রেষণা সৃষ্টি করতে পারে না। মাসলোর তত্ত্বটি তাৎপর্যময় কিন্তু গবেষণা দিয়ে এটিকে প্রতিপন্ন করা কঠিন। তবে মাসলো যা উল্লেখ করেন নি তা হলো এই যে কর্মের ধরন এবং প্রতিষ্ঠানের কর্ম পরিবেশ শ্রমিক-কর্মচারীর প্রেষণা ব্যাপকভাবে প্রভাবান্বিত করে থাকে। এই বিষয়টি হার্জবার্গ তাঁর তত্ত্বে উপস্থাপন করেছেন।

[২]প্রশিক্ষণ ও উন্নয়নসম্পাদনা

প্রশিক্ষণ হচ্ছে মানব সম্পদ উন্নয়নের সর্বাধিক জনপ্রিয় ও কার্যকর হাতিয়ার । প্রাতিষ্ঠানিক কাজে মানবীয় সম্পদকে সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে চাইলে তাদের দক্ষতা ও উপযুক্ততা থাকলেই চলবে না বরং কীভাবে তারা সেই দক্ষতা ও উপযুক্ততাকে প্রতিষ্ঠানের কাজে লাগাতে পারে সেদিকেও নজর দিতে হবে । মানব সম্পদ নির্বাচন ও নিয়ােগের ক্ষেত্রে ব্যবস্থাপনাকে অনেক কিছুর সাথে আপােশ করতে হয় । এক্ষেত্রে একমাত্র প্রশিক্ষণই নির্বাচন ও নিয়ােগকালীন সীমাবদ্ধতাকে দূরীভূত করে উপযুক্ত মানব সম্পদ গঠন বা উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে । এ ছাড়া যত দ্রুত প্রযুক্তির পরিবর্তন ঘটছে পুরনাে কর্মীদের পুনঃপ্রশিক্ষণের প্রয়ােজন ততই বৃদ্ধি পাচ্ছে । তাই নতুন পুরনাে সকল কর্মীর ক্ষেত্রেই প্রশিক্ষণ সমানভাবে প্রযােজ্য ।

মানব সম্পদ সংগ্রহ

সংগঠন কাঠামাে অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানের সৃষ্টপদে কর্মীর চাহিদা পূরণ করার লক্ষ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীদের আকৃষ্ট করার প্রক্রিয়াকে মানব সম্পদ সংগ্রহ বলে । প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন কারণে পদ শূন্য ও সৃষ্টি হয় । এসব শূন্যপদে উপযুক্ত ও দক্ষ মানব সম্পদ নিয়ােগের জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন করতে অনুপ্রাণিত করার পদ্ধতিকে মানব সম্পদ সংগ্রহ বলে । উপরােক্ত আলােচনার প্রেক্ষিতে বলা যায় যে , প্রতিষ্ঠানের সৃষ্ট বা শূন্যপদে প্রয়ােজনীয় সংখ্যক যােগ্য ও দক্ষপ্রার্থী খুঁজে বের করে তাদেরকে উক্ত পদে চাকরি লাভে আকৃষ্ট ও অনুপ্রাণিত করার প্রক্রিয়াকে মানব সম্পদ সংগ্রহ বলে ।[৩]

মজুরি ও পারিতোষিকসম্পাদনা

কর্মকাণ্ড মূল্যায়নসম্পাদনা

কৌশলগত মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনাসম্পাদনা

কৌশলগত মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বা স্ট্র্যাটিজিক হিউম্যান রিসৌর্স ম্যানেজমেন্ট (Strategic Human Resource Management - SHRM) একটি নবতর ধারণা যার লক্ষ্য প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়-কৌশল অনুযায়ী মানব সম্পদ আহরণ, উন্নয়ন এবং ব্যবস্থাপনা। কৌশলগত মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে তাত্ত্বিকদের অবস্থান এখনো সুপরিষ্কার নয়। কৌশলগত মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা দাবী করে যে ব্যবসায় কৌশল এবং মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা পারস্পরিকভাবে যুক্ত।

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Human Resource Management by Robert L. Mathis & John L. Jackson, ISBN 10:0-538-45315-8
  2. উন্নয়ন, প্রশিক্ষণ (১ জুলাই ২০১৯)। প্রশিক্ষণও উন্নয়ন। ৩৮ বাংলাবাজার (২য় তলা), ঢাকা - ১১০০: হক পাবলিকেশনস্ - এর পক্ষে জাহানারা হক। পৃষ্ঠা ৪৫–৬১। 
  3. নির্বাচন, মানব সম্পদসংগ্রহ (১ জুলাই ২০১৯)। মানব সম্পদ সংগ্রহ ও নির্বাচন। ৩৮ বাংলাবাজার ( ২ তলা) , ঢাকা: হক পাবলিকেশন। পৃষ্ঠা ৩৪। আইএসবিএন - |আইএসবিএন= এর মান পরীক্ষা করুন: length (সাহায্য)