মাধ্যমিক উৎস

যে রচনাতে অন্য কোথাও আগে প্রকাশিত মৌলিক তথ্য নিয়ে আলোচনা করা হয়

উচ্চশিক্ষায়তনিক বা পাণ্ডিত্যপূর্ণ গবেষণার ক্ষেত্রে মাধ্যমিক উৎস বা দ্বিতীয় পর্যায়ের উৎস এমন কোনও নথি বা তথ্যের উৎসকে বোঝায়, যা অন্য কোথাও প্রকাশিত মৌলিক তথ্যের বর্ণনা প্রদান করে বা সেটি নিয়ে আলোচনা করে। প্রাথমিক উৎস হলো তথ্যের মূল উৎস, যা কোনও ঘটনা ঘটার সময়ে সৃষ্ট হয়েছিল, বা যা ঐ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কেউ বর্ণনা করলে সেটিও প্রাথমিক উৎস।[১][২] এর বিপরীতে মাধ্যমিক উৎসে প্রাথমিক উৎসের উপরে তথ্য প্রদান করা হয়। আদি তথ্যগুলিকে বাছাই করে, পরিবর্তন সাধন করে ও পুনর্বিন্যস্ত করা হতে পারে। মাধ্যমিক উৎসে মূল তথ্যের সাধারণীকরণ, বিশ্লেষণ, ব্যাখ্যা বা পর্যালোচনা করা হতে পারে।

কোনও উৎসকে প্রাথমিক নাকি মাধ্যমিক হিসেবে গণ্য করা হবে, সে ব্যাপারটি আপেক্ষিক এবং কীভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে, তার উপরে নির্ভরশীল।[৩][৪][৫][৬] প্রাথমিক ও মাধ্যমিক উৎসের বাইরে তৃতীয় পর্যায়ের উৎস থাকতে পারে, যেমন অভিধান বা বিশ্বকোষ, যেগুলিতে মাধ্যমিক উৎসের মতো বিশ্লেষণ থাকতে পারে, কিন্তু যেগুলিতে কোনও বিষয়ের উপরে বিস্তৃত ভূমিকামূলক সামগ্রিক দৃশ্য প্রদান করার চেষ্টা করা হয়।[১][৭]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Primary, secondary and tertiary sources". University Libraries, University of Maryland.
  2. "Secondary sources ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৬ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে". James Cook University.
  3. "Primary and secondary sources". Ithaca College Library.
  4. Kragh, Helge (১৯৮৯), An Introduction to the Historiography of Science, Cambridge University Press, পৃষ্ঠা 121, আইএসবিএন 0-521-38921-6, [T]he distinction is not a sharp one. Since a source is only a source in a specific historical context, the same source object can be both a primary or secondary source according to what it is used for. 
  5. Delgadillo, Roberto; Lynch, Beverly (১৯৯৯), "Future Historians: Their Quest for Information", College & Research Libraries, 60 (3): 245–259, at 253, ডিওআই:10.5860/crl.60.3.245 , [T]he same document can be a primary or a secondary source depending on the particular analysis the historian is doing ,
  6. Monagahn, E.J.; Hartman, D.K. (২০০১), "Historical research in literacy", Reading Online, 4 (11), [A] source may be primary or secondary, depending on what the researcher is looking for. 
  7. Richard Veit and Christopher Gould, Writing, Reading, and Research (8th ed. 2009) p 335