প্রধান মেনু খুলুন

মাইকেল জেরাল্ড টাইসন (জন্ম: ৩০ জুন, ১৯৬৬) একজন পেশাদার বক্সিং খেলোয়ার। ব্যক্তিজীবনে তিনি বহু বিতর্ক-বিবাদে জড়িয়েছেন। বর্তমানে তিনি অবসর নিয়েছেন। তার শিশু ডাইনামাঈ[৪] আয়রন মাইক[২] জাতীয় ডাক নাম আছে।

মাইক টাইসন
পরিসংখ্যান
নামমাইকেল জেরার্ড টাইসন
ডাকনামআয়রন মাইক[১]
দ্য বেডেস্ট ম্যান অন দি প্ল্যানেট[২]
কিড ডায়নামাইট
বিবেচনা/গণ্যহেবিওয়েট
উচ্চতা৫ ফুট ১১.৫ ইঞ্চি (১.৮২ মিটার)[৩]
জাতীয়তাআমেরিকান
জন্ম (1966-06-30) জুন ৩০, ১৯৬৬ (বয়স ৫৩)
ব্রুকলিন, নিউ ইয়র্ক
অবস্থানঅর্থডক্স
বক্সিং রেকর্ড
মোট লড়াই৫৮
জয়ী৫০
নকআউট দ্বারা জয়ী৪৪
পরাজিত হয়েছ্নে
ড্র করেছেন
খেলা হয়নি

জীবনীসম্পাদনা

মাইক টাইসন ১৯৬৬ সালের ৩০শে জুন জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি ব্রুকলিনে জন্মান।৬ই মার্চ ১৯৮৫তে টাইসনের অভিষেক হয়। ১৯৯২ সালে ধর্ষণ কেলেঙ্কারিতে কারাদন্ডে দণ্ডিত হন।[৫] এরপর তিনি ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হন।

"আমি তখন সাত বছরের বালক৷ ব্রূকলিনের রাস্তা থেকে আমাকে তুলে নিয়ে গিয়ে এক অপরিচিত বৃদ্ধ যৌন নির্যাতন করেছিল৷" বক্তা বিখ্যাত হেভিওয়েট বক্সার মাইক টাইসন! শুক্রবার সিরিয়াস এক্সএম রেডিওয়ে একটি সাক্ষাত্কারে ছেলেবেলার কিছু দুঃস্বপ্ণের মুহূর্তের কথা অকপটভাবে বললেন মার্কিন কিংবদন্তি বক্সার৷ জানিয়েছেন, "ওই বৃদ্ধকে আর কখনও দেখিনি৷ সেই ঘটনার পরে দৌড়ে পালিয়ে এসেছিলাম৷ ঘটনাটি আমাকে কুড়েকুড়ে খাচ্ছিল৷ লজ্জা পাইনি তবু বাড়ির কাউকে বলতে পারিনি এ কথা৷" ৪৮ বছরের টাইসনের এই বিস্ফোরক মন্তব্যের পর কিছুক্ষণ স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলেন সঞ্চালক ওপি এবং জিম নরটন৷ এই ঘটনার পর কী তার জীবনে আমূল কোনও পরিবর্তন হয়েছিল? টাইসনের জবাব, "কিছুটা প্রভাব পড়েছিল৷ তবে জীবন পরিবর্তন হয়ে গিয়েছিল এমন বলা ঠিক হবে না৷" বক্সিং রিং দাপিয়ে বেড়ানোর আগে ছোটবেলা যে মোটেই সুখকর ছিল না সে কথাও সাক্ষাত্কারে জানিয়েছেন টাইসন, "আমার বাবা কে জানি না৷ জন্ম শংসাপত্রে বাবার নামের জায়গায় লেখা রয়েছে পারসেল টাইসন৷ তাঁকে কোনওদিন দেখিনি৷ পরে মা লোরা মে জানিয়েছিলেন বাবার নাম জিমি কার্লি ক্রিকপ্যাট্রিক৷ তাঁকে আমাদের বাড়িতে খুব কম দেখেছি৷" সাত বছর বয়সে যৌন নিগ্রহের শিকার হওয়ার পর জীবনে পরপর কয়েকটা ঘটনা এক ধাক্কায় তাকে বিপথগামী করেছিল৷ তখনই মা কাজ হারায়৷ দারিদ্রের কারণে অপরাধ জগতে ভিড়তে দেরি হয়নি টাইসনের৷ জানলা দিয়ে হাত গলিয়ে লোকের বাড়ি থেকে চুরি করতেন৷ পুলিশের কাছে ধরা পড়ে মার খান৷ মা জানতে পেরে আরও মেরেছিলেন৷ কিংবদন্তি বক্সার মহম্মদ আলির জীবনীমূলক ছবি ‘দ্য গ্রেটেস্ট' দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন টাইসন৷ সিনেমার শেষে সেদিন মঞ্চে হাজির হয়েছিলেন স্বয়ং মহম্মদ আলি৷ তাঁকে দেখেই ছোট্ট টাইসন ঠিক করে ফেলেছিলেন মহম্মদ আলির মতো হতে হবে৷ "আসলে আমি কিন্ত্ত বক্সার হতে চাইনি৷ ‘গ্রেট' হতে চেয়েছিলাম৷" স্বীকারোক্তি টাইসনের৷ আটের দশক থেকে হেভিওয়েট বক্সিংয়ে বহুবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন টাইসন৷ ১৯৯২ সালে এক কিশোরী ‘বিউটি কুইন'কে ধর্ষণের অভিযোগে তিন বছর জেলেও কাটিয়েছিলেন৷

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; espn1 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. "Mike Tyson Goes Bollywood" - CBC News, 13 April 2007
  3. (2002), Lewis-Tyson: Tale of the tape ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ মে ২০০৯ তারিখে, BBC Sport, Retrieved on 2007-11-01.
  4. Berger, Phil (অক্টোবর ১৯, ১৯৮৯)। "A Body for Better Men to Beat On - New York Times"। The New York Times। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১০-০৬ 
  5. Muscatine, Alison., Tyson Found Guilty of Rape, Two Other Charges, The Washington Post via MIT-The Tech, 1992-02-11, Retrieved on 2007-03-11.