প্রধান মেনু খুলুন

মধুশ্রী

ভারতীয় গায়িকা

মধুশ্রী (জন্ম নাম সুজাতা ভট্টাচার্য) একজন ভারতীয় গায়িকা, যিনি হিন্দি, তামিল, তেলেগু ইত্যাদি চলচ্চিত্র প্লেব্যাক গায়িকা হিসাবে গান গেয়ে থাকেন। মধুশ্রীর কন্ঠ প্রায়ই এ. আর. রহমানের কম্পোজিশনকৃত গানে শোনা যায়, তিনি একটি সংগীত পরিবার থেকে উঠে এসেছেন এবং ক্লাসিক্যাল ও ওয়েস্টার্ন ধারার সংগীতে তালিম নিয়েছেন। তার বাবার ইচ্ছে ছিল যে তিনি একজন ক্লাসিক্যাল সংগীতের শিল্পী হবেন। মধুশ্রী রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন এবং সেখান থেকে তার স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। কিন্তু, তিনি সবসময়ই ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন একজন প্লে ব্যাক সিঙ্গার হিসাবে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার।

মধুশ্রী
Madhushree singer.jpg
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম নামসুজাতা ভট্টাচার্য
আরো যে নামে
পরিচিত
মধুশ্রী
জন্ম (1969-11-02) ২ নভেম্বর ১৯৬৯ (বয়স ৪৯) [১]
কলকাতা, ভারত
পেশা(সমূহ)প্লেব্যাক গায়িকা, গায়িকা
বাদ্যযন্ত্রসমূহকন্ঠশিল্পী
কার্যকাল২০০১–বর্তমান
ওয়েবসাইটmadhushree.com

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

মধুশ্রী ভারতের কলকাতার একটি বাঙ্গালী পরিবারে ১৯৬৯ সালের ২রা নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তার পারিবারিক নাম ছিল সুজাতা ভট্টাচার্য। তার বাবা অমরেন্দ্রনাথ এবং মা প্রভাতী ভট্টাচার্য, যারা ছিলেন তার প্রথম শিক্ষক।[২] তিনি সংগীতাচার্য আমিয়া রঞ্জন বন্দোপাধ্যায়ের নিকট হতে ক্লাসিকাল সংগীতের তালিম গ্রহণ করেন। আমিয়া রঞ্জন বন্দোপাধ্যায় বিষ্ণুপুর ঘরানার[৩][৪] একজন প্রখ্যাত সঙ্গীতঙ্গ ছিলেন। এছাড়া তিনি Thumri|ঠুমরি এবং Khayal|খেয়ালেও অত্যন্ত পারদর্শী ছিলেন।[২] পরবর্তীতে মধুশ্রী Indian Council for Cultural Relations|ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন এ যোগ দেন এবং সেখান হতে তাকে সুরিনাম এ ক্লাসিক্যাল সঙ্গীতের উপর শিক্ষা প্রদানের জন্য নিযুক্ত করা হয়।[২]

কর্মজীবনসম্পাদনা

জাভেদ আক্তারের সুপারিশক্রমে, মধুশ্রী রাজেশ রোশান এর মোকশা ছবির গানে প্রথম প্লে ব্যাক করেন। এর পরবর্তীতে তিনি যুবা, কাল হো নাহো, হাম হে ইসপাল ইহা, কুচ না কাহো, তু বিন বাতা য়ে, ইন লামহো কে দামান মে ইত্যাদি ছবিতে প্লেব্যাক শিল্পী হিসাবে কাজ করেন।

তিনি এ আর রহমান এর তেহজিব এ তিনটি গান করেছেন। তার সেরা গান এর ব্যাপারে সঙ্গীত বোদ্ধাদের মধ্যে মতভেদ রয়েছে। কিন্তু, যে গানটির জন্য তিনি সর্বাধিক পরিচিত, তা হচ্ছে যুবা (২০০৪) ছবিতে গাওয়া একটি গান “কাভি নিম নিম”। যোধা আকবর ছবিতে তিনি এ আর রহমানের সঙ্গীত পরিচালনায় গেয়েছেন “ইন লামহো কে দামান মে” গানটি। মধুশ্রী সবসময়ের ছবির ভার্সাটাইল প্লে ব্যাক সিঙ্গার হিসাবে ২০তম লায়নস গোল্ড অ্যাওয়ার্ড জেতেন। অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি মুম্বাই এর ভাইদাস হল এ অনুষ্ঠিত হয়।

২০০০ সালে মধুশ্রী অভিজিৎ ভট্টাচার্যের সংগীত পরিচালনায় বাংলা ছবি হারজিৎ এর দুটি গানে প্লে ব্যাক করেন। গানগুলির মধ্য একটি হচ্ছে শিল্পী অভিজিৎ এর সঙ্গে “ব্যথার ঝড়ে প্রাণের প্রদীপ” এবং অপরটি তার একক কন্ঠে “তোমাকে সাজানো যাবে না”।

অ্যালবামসম্পাদনা

  • প্রথম অ্যালবামটি হল লাগি লাগান

এটি রিলিজ হয় ০৮-০৮-০৮ তারিখে। রিলিজ হয়েছে: রয়ান্ত মিউজিক এন্ড বিগ মিউজিক এর মাধ্যমে। মিউজিক: রবি বাদল

  1. পিয়া লাগি লাগানিয়া
  2. লাগি লাগি
  3. মানাত নাহি
  4. আয়ে না বালাম
  5. যাব সে শ্যাম সিধারে
  6. বাবুল মোরা
  7. পিয়া লাগি লাগানিয়া (ভিডিও এডিট)
  8. লাগি লাগি (হাউস রিমিক্স)
  9. বারসান লাগি

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. "Singer Interview: Madhushree"। Calcutta, India: www.telegraphindia.com। ২৮ জানুয়ারি ২০০৫। 
  3. Banerjee, Meena (৩০ সেপ্টেম্বর ২০০৫)। "Melodic maturity"। Calcutta, India: www.telegraphindia.com। 
  4. "My Guru"। www.santanubandyopadhyay.com। ২৬ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ অক্টোবর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা