মঞ্জুলা পদ্মনাভন

মঞ্জুলা পদ্মনাভন (জন্ম: ২৩শে জুন ১৯৫৩) হলেন একজন নাট্যকার, সাংবাদিক, কমিক স্ট্রিপ শিল্পী এবং শিশু সাহিত্যিক। অনেকগুলি নাটকের মধ্যে তাঁর দুটি নাটক ছিল লাইটস আউট (১৯৮৩) এবং হারভেস্ট (১৯৯৭)। ২০০১ সালে পরিচালক গোবিন্দ নীহালানি তাঁর হার্ভেস্ট নাটকটিকে দেহম নামে একটি চলচ্চিত্রে রূপায়িত করেছিলেন। ২০১৭ সালে গোবিন্দ নীহালানি লাইটস আউট নাটকটিকে নিয়ে, তি আনি ইতার নাম দিয়ে একটি মারাঠি চলচ্চিত্রে রূপান্তরিত করেছিলেন। [২] তাঁর কমিক স্ট্রিপগুলি সাপ্তাহিকভাবে মুম্বইয়ের সানডে অবজার্ভার পত্রিকায় (১৯৮২-৮৬) এবং দৈনিক ভাবে দিল্লির পাইওনিয়ারে (১৯৯১-৯৭) প্রকাশিত হত। তাঁর বইগুলির মধ্যে আছে হট ডেথ, কোল্ড স্যুপ, ফর গেটিং দেয়ার, দিস ইস সুকি! এবং ক্লেপটোম্যানিয়া। তাঁর হারভেস্ট (১৯৯৭) নাটকটি, ১৯৯৭ সালে থিয়েটারের জন্য ওনাসিস পুরস্কার জিতেছিল। মঞ্জুলা শিশুদের জন্য তাঁর নিজস্ব উপন্যাস, মাউস অ্যাটাক এবং মাউস ইনভেডার সহ চব্বিশটি বইতে ছবি এঁকেছেন।[৩]

মঞ্জুলা পদ্মনাভন
জন্ম (1953-06-23) ২৩ জুন ১৯৫৩ (বয়স ৬৭) [১]
দিল্লি, ভারত
জাতীয়তাভারতীয়
পেশানাট্যকার, সাংবাদিক, কমিক স্ট্রিপ শিল্পী এবং শিশু সাহিত্যিক

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

মঞ্জুলা ১৯৫৩ সালের ২৩শে জুন দিল্লিতে এক সরকারি কূটনীতিবিদ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি কৈশোর বয়সে আবাসিক বিদ্যালয়ে থেকে পড়াশুনো করেছেন। কলেজ জীবনের পরে, তাঁর নিজের পথ তৈরির দৃঢ় সংকল্প তাঁকে প্রকাশনা এবং গণমাধ্যম সম্পর্কিত ক্ষেত্রগুলির দিকে নিয়ে গিয়েছিল।

পেশা এবং কাজসম্পাদনা

তিনি তাঁর নাটক হার্ভেস্ট এর জন্য গ্রীক ওনাসিস পুরস্কার পেয়েছিলেন। এই নাটকটি অবলম্বন করে পরিচালক গোবিন্দ নীহালানি একটি চলচ্চিত্র দেহম তৈরি করেছিলেন। চলচ্চিত্রটি পুরস্কার পেয়েছিল। তাঁর লাইটস আউট নাটক অবলম্বনে গোবিন্দ নীহালানি ২০১৭ সালে তি আনি ইতার নাম দিয়ে একটি মারাঠি চলচ্চিত্র তৈরি করেছিলেন।

তাঁর হিডেন ফায়ারস হল ধারাবাহিক নাটকের সিরিজ। তার অন্যান্য রচনাগুলির মধ্যে আছে দ্য আর্টিস্ট'স মডেল (১৯৯৫) এবং সেক্সটেট (১৯৯৬)।[৪]

তিনি ক্লেপটোম্যানিয়া নামে একটি ছোটগল্পের সংকলনও লিখেছেন। ২০০৮ সালে প্রকাশিত তাঁর বই হল এস্কেপ [৪] সংবাদপত্রের কলাম লেখার পাশাপাশি তিনি কমিক স্ট্রিপ তৈরি করেছিলেন। তিনি 'সুকি' নামে একটি ভারতীয় কমিক চরিত্র তৈরি করেছিলেন, যা সানডে অবজার্ভার পত্রিকায় কমিক স্ট্রিপ হিসাবে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হত।[৫] ১৯৯৭ সালের আগে (যে বছর তাঁর হার্ভেস্ট নাটকটি মঞ্চস্থ হয়েছিল) তিনি ব্যঙ্গচিত্র অংকনকারী শিল্পী হিসাবে বেশি পরিচিত ছিলেন, এবং তাঁর দৈনিক কার্টুন স্ট্রিপ প্রকাশিত হত দ্য পাইওনিয়ার পত্রিকায়। তাঁর ডাবল টক বইটি বম্বে স্ট্রিপ কমিকের একটি সংগ্রহ।[৬]

লেখক এবং চিত্রক হিসাবেসম্পাদনা

  • ২০১৩ থ্রী ভার্জিনস এ্যান্ড আদার স্টোরিজ, নতুন দিল্লি, ভারত: যুব্বান বুকস।
  • ২০১৫ আইল্যান্ড অব লস্ট গার্লস, হ্যাচেট।
  • ২০১১ আই অ্যাম ডিফারেন্ট! ক্যান ইউ ফাইন্ড মি? ওয়াটারটাউন, মাস: চার্লসব্রিজ প্রকাশনী।
  • ২০০৮ এস্কেপ, হ্যাচেট।
  • ২০০৫ আনপ্রিনসেস! নতুন দিল্লি: পাফিন বুকস।
  • ১৯৮৬ এ ভিজিট টু দ্য সিটি মার্কেট, নতুন দিল্লি: ন্যাশনাল বুক ট্রাস্ট
  • ২০০৩ মাউস অ্যাটাক

চিত্রক হিসাবেসম্পাদনা

  • বেগ, তারা আলী, এবং মঞ্জুলা পদ্মনাভন। ১৯৭৯। ইন্দ্রানী অ্যান্ড দ্য এনচান্টেড জাঙ্গল নতুন দিল্লি: থমসন প্রেস (ভারত) লিমিটেড
  • মৈথিলি জগন্নাথন ও মঞ্জুলা পদ্মনাভন। ১৯৮৪। ড্রুপি ড্রাগন । নতুন দিল্লি: থমসন প্রেস।

হাস্যকর রেখাচিত্রমালা (কমিক স্ট্রিপ)সম্পাদনা

  • ২০০৫ ডাবল টক. নতুন দিল্লি: পেঙ্গুইন বুকস।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Manjula Padmanabhan"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২০ 
  2. "Manjula Padmanabhan"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২০ 
  3. "Manjula Padmanabhan"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২০ 
  4. Matthan, Ayesha (২০০৯-০১-০৩)। "Is it the great escape?"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৮-১৪ 
  5. Moddie, Mandira (২০০৫-০৮-২৮)। "Antics of Suki"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৮-১৪ 
  6. "Manjula Padmanabhan"। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২০