ব্রিটনি স্পিয়ার্স

মার্কিন সঙ্গীত শিল্পী এবং অভিনেত্রী

ব্রিটনি জিন স্পিয়ার্স (ইংরেজি: Britney Jean Spears, জন্ম: ২ ডিসেম্বর, ১৯৮১) একজন মার্কিন সঙ্গীত শিল্পী এবং অভিনেত্রী। মিসিসিপির ম্যাককম্বে জন্ম নেওয়া ও লুইজিয়ানার কেন্টউডে বেড়ে ওঠা এই ব্রিটনি প্রথমে মঞ্চ ও টেলিভিশনে অভিনয় করতেন। পরে ১৯৯৭ সালে তিনি জিভে রেকর্ডসের সাথে গান গাওয়ার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। তার প্রথম দুটি অ্যালবাম ...বেবি ওয়ান মোর টাইম (১৯৯৯) ও ওপ্‌স!... আই ডিড ইট অ্যাগেইন (২০০০) আন্তর্জাতিকভাবে সমাদৃত হয় এবং একজন টিনেজ একক গায়কের সবচেয়ে বেশি বিক্রিত অ্যালবামের রেকর্ড করে।[১]

ব্রিটনি স্পিয়ার্স
Britney Spears 2013 (Straighten Crop).jpg
স্পিয়ার্স ২০১৩ সালে একটি কনসার্টে
জন্ম
ব্রিটনি জিন স্পিয়ার্স

(1981-12-02) ডিসেম্বর ২, ১৯৮১ (বয়স ৩৮)
ম্যাককোম্ব, মিসিসিপি, যুক্তরাষ্ট্র
পেশা
  • গায়িকা
  • নৃত্যশিল্পী
  • অভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯৯২–বর্তমান
প্রতিনিধিল্যারি রুডলফ
আদি নিবাসকেনউড, লুইজিয়ানা, যুক্তরাষ্ট্র
দাম্পত্য সঙ্গীজেসন অ্যালেন আলেকজান্ডার (বি. ২০০৪; annulled ২০০৪)
কেভিন ফেডারলিন (বি. ২০০৪; বিচ্ছেদ. ২০০৭)
সন্তান
পিতা-মাতালিন স্পিয়ার্স
জেমস স্পিয়ার্স
আত্মীয়
সঙ্গীত কর্মজীবন
ধরন
বাদ্যযন্ত্রসমূহ
লেবেল
সহযোগী শিল্পী
ওয়েবসাইটwww.britneyspears.com
www.britney.com

তাকে পপ আইকন হিসেব অভিহিত করা হয় এবং ১৯৯০ এর দশকের শেষের দিকে টিন পপ গানকে পুনরুজ্জীবিত করতে ভূমিকা রাখেন। তিনি সর্বকালের সবচেয়ে বিক্রিত টিনেজ গায়িকা[২] এবং "প্রিন্সেস অফ পপ" খেতাব লাভ করেন।[৩] তার কাজের জন্য তিনি বহু পুরস্কার লাভ করেছেন, এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল একটি গ্র্যামি পুরস্কার, আজীবন সম্মাননাসহ ছয়টি এমটিভি ভিডিও মিউজিক পুরস্কার, বিলবোর্ড মিলেনিয়াম পুরস্কারসহ দশটি বিলবোর্ড সঙ্গীত পুরস্কার এবং হলিউড ওয়াক অফ ফেম তারকা।

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

ব্রিটনি ১৯৮১ সালের ২ ডিসেম্বর মিসিসিপির ম্যাককম্বে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি লিন স্পিয়ার্স ও জেমস পার্নেল স্পিয়ার্সের দ্বিতীয় সন্তান। তার মাতামহী লিলিয়ান পর্টেল ইংরেজ ছিলেন এবং তার একজন প্র-প্র-মাতামহ মাল্টিজ ছিলেন।[৪] তার ভাই ব্রায়ন জেমস এবং বোন জেমি লিন। তিন বছর বয়স থেকে তিনি তার নিজ শহর লুইজিয়ানার কেন্টউডে নাচ শিখেন এবং বার্ষিক আবৃতিতে একক শিল্পী হিসেবে কাজ করার সুযোগ লাভ করেন। শৈশবে তিনি জিমন্যাস্টিক ও গানের পাঠ গ্রহণ করেন এবং অনেক রাজ্য প্রতিযোগিতা ও শিশুতোষ মেধা অনুষ্ঠানে বিজয়ী হন।[৫] স্পিয়ার্স প্রথম মঞ্চে গান করেন পাঁচ বছর বয়সে। তার কিন্ডারগার্টেনের সমাপ্তি অনুষ্ঠানে তিনি "হোয়াট চাইল্ড ইজ দিস?" গানটি পরিবেশন করেন।[৬]

অ্যালবামসম্পাদনা

  • ...বেবি ওয়ান মোর টাইম (১৯৯৯)
  • ওপ্‌স!... আই ডিড ইট অ্যাগেইন (২০০০)
  • ব্রিটনি (২০০১)
  • ইন দ্য জোন (২০০৩)
  • ব্ল্যাকআউট (২০০৭)
  • সার্কাস (২০০৮)
  • ফেমি ফ্যাটাল (২০১১)
  • ব্রিটনি জিন (২০১৩)
  • গ্লোরি (২০১৬)

মিউজিক ভিডিওসম্পাদনা

  • লংশট (২০০১)
  • ক্রসরোডস (২০০২)
  • অস্টিন পাওয়ার্স ইন গোল্ডমেম্বারস (২০০২)
  • পলি শোর ইজ ডেড (২০০৩)
  • ফারেনহাইট ৯/১১ (২০০৪)

ট্যুরসম্পাদনা

  • ...বেবি ওয়ান মোর টাইম ট্যুর (১৯৯৯-২০০০)
  • ক্রেজি টু থাউজেন্ড ট্যুর (২০০০)
  • ওপ্‌স!... আই ডিড ইট অ্যাগেইন ট্যুর (২০০০-০১)
  • ড্রিম উইদিন অ্যা ড্রিম ট্যুর (২০০১-০২)
  • দ্য অনিক্স হোটেল ট্যুর (২০০৪)
  • দ্য এম+এম্‌স ট্যুর (২০০৭)
  • দ্য সার্কাস স্টারিং ব্রিটনি স্পিয়ার্স (২০০৯)
  • ফেমি ফ্যাটাল ট্যুর (২০১১)
  • ব্রিটনি: লাইভ ইন কনসার্ট (২০১৭)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Folkard, Claire (2003). Guinness World Records 2003. Bantam Books. p. 288. আইএসবিএন ৯৭৮-০-৫৫৩-৫৮৬৩৬-৭
  2. Ruggieri, Melissa (December 19, 2000). "Music Notes". Richmond Times-Dispatch: pp. D.13।
  3. Susan Hopkins (2002), Girl Heroes: The New Force In Popular Culture, University of Michigan Press, p. 60।
  4. Spears, Lynne (September 16, 2008). "Chapter 2: Kentwood – From Malta to Louisiana". Through the Storm: A Real Story of Fame and Family in a Tabloid World (1st ed.). Nashville, Tennessee: Thomas Nelson, Inc. p. 4. আইএসবিএন ৯৭৮১৪১৮৫৬৭৩৫৪
  5. Reporter, Staff (জুলাই ৩১, ২০০৮)। "Britney Spears' Biography"। Fox News Channel 
  6. Daly, Steven (এপ্রিল ১৫, ১৯৯৯)। "Cover Story: Britney Spears: Britney Spears"। Rolling Stone. ISSN 0035-791X 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

টেমপ্লেট:ব্রিটনি স্পিয়ার্স