বৈষ্ণব স্টাডিজ জার্নাল

শিক্ষাগত পত্রিকা

বৈষ্ণব স্টাডিজ জার্নাল একটি একাডেমিক জার্নাল যা ১৯৯২ সালে স্টিভেন জে. রোজেন (সত্যরাজ দাস) দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ।[১][২] এটি বিষ্ণু -সম্পর্কিত ঐতিহ্যের সাথে যুক্ত পাণ্ডিত্যপূর্ণ গবেষণার জন্য নিবেদিত । ২০০২ সালে, জার্নালটি ক্রিস্টোফার নিউপোর্ট ইউনিভার্সিটি এবং এ. দীপক পাবলিশিং এর সাথে সংযুক্ত হয়।[৩][৪][৫]

বৈষ্ণব স্টাডিজ জার্নাল  
সংক্ষিপ্ত শিরোনাম (আইএসও ৪)
জে. বৈষ্ণব স্টাড.
পাঠ্য বিষয়হিন্দু স্টাডিজ
ভাষাবাংলা
সম্পাদকস্টিভেন জে. রোজেন (এডিটর-ইন-চিফ)

সিনিয়র সম্পাদক

গ্রাহাম এম শোইগ (গ্র্যাজুয়েট থিওলজিক্যাল ইউনিয়ন);
ক্রিস্টোফার নিউপোর্ট ইউনিভার্সিটি);
কৃষ্ণা অভিষেক ঘোষ (দ্য ইনস্টিটিউট ফর বৈষ্ণব স্টাডিজ)
প্রকাশনা বিবরণ
প্রকাশনার ইতিহাস
১৯৯২-বর্তমান
পুনরাবৃত্তিদ্বিবার্ষিক
সূচীকরণ
আইএসএসএন১০৬২-১২৩৭
এলসিসিএন94659005
ওসিএলসি নং25528895
সংযোগ

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Seminary, The Institute for Vaishnava Studies &। "JOURNAL"The Institute for Vaishnava Studies & Seminary (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৫-২৩ 
  2. "Journal of Vaishnava Studies"ivsjournal.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৫-২৩ 
  3. Sydnor, Jon (২০১৩-১১-১৯)। "Book Review: Journal of Vaishnava Studies 20.2 (Spring 2012)"Journal of Hindu-Christian Studies26 (1)। আইএসএসএন 2164-6279ডিওআই:10.7825/2164-6279.1557  
  4. Francis X. Clooney (৪ জুলাই ২০১৭)। The Future of Hindu–Christian Studies: A Theological Inquiry। Taylor & Francis। পৃষ্ঠা 95। আইএসবিএন 978-1-315-52524-2 
  5. Edwin Bryant; Maria Ekstrand (২৩ জুন ২০০৪)। The Hare Krishna Movement: The Postcharismatic Fate of a Religious TransplantColumbia University Press। পৃষ্ঠা 431। আইএসবিএন 978-0-231-50843-8 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

ক্রিস্টোফার নিউপোর্ট ইউনিভার্সিটি