বুজাখার যুদ্ধ ৬৩২ সালের সেপ্টেম্বরে খালিদ বিন ওয়ালিদতুলায়হার মধ্যে সংঘটিত হয়।

বুজাখার যুদ্ধ
মূল যুদ্ধ: রিদ্দার যুদ্ধ
খালিদ বিন ওয়ালিদের অভিযান
তারিখসেপ্টেম্বর ৬৩২
অবস্থান
বুজাখা, সৌদি আরবের হাইল থেকে ২৫ মাইল দক্ষিণ পশ্চিমে
ফলাফল রাশিদুন খিলাফতের বিজয়
যুধ্যমান পক্ষ
রাশিদুন খিলাফত ইসলাম ত্যাগ করা বিদ্রোহী গোত্র
সেনাধিপতি ও নেতৃত্ব প্রদানকারী
খালিদ বিন ওয়ালিদ
আদি ইবনে হাতিম
তুলায়হা
হিবাল
উয়াইনা
শক্তি
৬,০০০ ১৫,০০০
হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতি
স্বল্প ব্যাপক

শক্তিমত্তাসম্পাদনা

এই যুদ্ধে খালিদের অধীনে ৬,০০০ সৈনিক ছিল। অন্যদিকে তুলায়হার অধীনে ছিল ১৫,০০০ সৈনিক।

লড়াইসম্পাদনা

যুদ্ধের শুরুতে খালিদ তুলায়হাকে দ্বন্দ্বযুদ্ধের আহ্বান জানান। সংক্ষিপ্ত লড়াইয়ের পর তুলায়হা নিজ সেনাদের দিকে আশ্রয়ের জন্য পালিয়ে যায়। এই যুদ্ধে ব্যক্তিগত দক্ষতার মাধ্যমে বিজয় অর্জিত হয়েছিল। মুসলিমরা এতে বিজয়ী হয়।

পরবর্তী অবস্থাসম্পাদনা

এখান থেকে খালিদ তার পরবর্তী লক্ষ্যবস্তু সালমার দিকে অগ্রসর হন এবং জাফারের যুদ্ধে অংশ নেন। তুলায়হা পরে খলিফা আবু বকরের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করলে তিনি তাকে ক্ষমা করেন। তবে তাকে বা তার গোত্রের লোকেদেরকে যুদ্ধে অংশ নেয়া থেকে বিরত রাখা হয়। পরে খলিফা উমর ইবনুল খাত্তাবের সময় তাদের যুদ্ধে অংশ নেয়ার অনুমতি দেয়া হয়। পারস্য অভিযানে তুলায়হা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে বিশেষত কাদিসিয়ার যুদ্ধে। পরে নাহাওয়ান্দের যুদ্ধে তুলায়হার মৃত্যু হয়।

অনলাইন সূত্রসম্পাদনা

A.I. Akram, The Sword of Allah: Khalid bin al-Waleed, His Life and Campaigns Lahore, 1969

তথ্যসূত্রসম্পাদনা