বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস

বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস ১৫ মার্চকে উপজীব্য করে বৈশ্বিকভাবে উদযাপিত দিবস। বিশিষ্ট পরিবেশবাদী ও ভোক্তাদের অধিকার বিষয়ে আন্দোলনে সোচ্চার কর্মী মালয়েশিয়ার আনোয়ার ফজল কর্তৃক এ দিবস পালনের রূপকার হিসেবে পরিচিতি হয়েছেন। ১৫ মার্চ, ১৯৮৩ তারিখে তিনি ভোক্তা সংগঠনগুলোর মাধ্যমে ভোক্তাদের মৌলিক অধিকার সম্বন্ধে সচেতনতার উদ্দেশ্য বৈশ্বিকভাবে উদযাপনের আহ্বান জানান।[১]

ইতিহাসসম্পাদনা

১৫ মার্চ, ১৯৬২ সালে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জন এফ. কেনেডি কংগ্রেসে ভোক্তাদের স্বার্থ রক্ষার বিষয়ে বক্তৃতা দেন।[২] নিরাপত্তার অধিকার, তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার, পছন্দের অধিকার এবং অভিযোগ প্রদানের অধিকার - ভোক্তাদের এ চারটি মৌলিক অধিকার সম্পর্কে তিনি আলোকপাত করেন যা পরবর্তীতে ভোক্তা অধিকার আইন নামে পরিচিতি পায়।

১৯৮৫ সালে জাতিসংঘের মাধ্যমে জাতিসংঘ ভোক্তা অধিকার রক্ষার নীতিমালায় কেনেডি বর্ণিত চারটি মৌলিক অধিকারকে আরো বিস্তৃত করে অতিরিক্ত আরো আটটি মৌলিক অধিকার সংযুক্ত করা হয়। এরপর থেকেই কনজুমার্স ইন্টারন্যাশনাল এ সকল অধিকারকে সনদে অন্তর্ভুক্ত করে।[৩] কেনেডি'র ভাষণের দিনকে স্মরণীয় করে রাখতে ১৫ মার্চকে বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস হিসেবে বৈশ্বিকভাবে উদযাপন করে আসছে।[৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Brobeck, Stephen (১৯৯৭)। Encyclopedia of the consumer movement। Santa Barbara, Calif. [u.a.]: ABC-Clio। পৃষ্ঠা 176। আইএসবিএন 0874369878 
  2. Kennedy, John F. (মার্চ ১৫, ১৯৬২)। "John F. Kennedy: Special Message to the Congress on Protecting the Consumer Interest."presidency.ucsb.edu। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০১৩ 
  3. http://www.consumersinternational.org/who-we-are/consumer-rights
  4. Guest, Jim (১৫ মার্চ ২০১২)। "Jim Guest: Fighting for Consumer Rights, Fifty Years After Kennedy's Call"huffingtonpost.com। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০১৩ 

আরও দেখুনসম্পাদনা