এয়াজেন জ্যানসন: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
সম্পাদনা সারাংশ নেই
সম্পাদনা সারাংশ নেই
যৌবনে পেরসেউসের কাছে শিক্ষাগ্রহণের সময় তিনি পোর্ট্রেট আঁকা ও স্টিল লাইফ আঁকা শেখেন। কিন্তু পরে দেখেন যে, তাঁর শহরের ছবি আঁকতেই তাঁর বেশি ভাল লাগছে।
 
তিনি সারাজীবন দক্ষিণ স্টকহোমের একটি বাড়িতে তাঁর মা ও ভাইয়ের সঙ্গে বাস করেন। তাঁর বাড়ি থেকে রিডারজারডেন, গামলা স্টান ও মধ্য স্টকহোমের পুরোটাই দেখা যেত। এখানেই তিনি ১৮৯০-এর দশক থেকে ১৯০৪ সালের আগে আঁকা তাঁর স্টকহোমের নৈশ দৃশ্যগুলি আঁকেন। এই ছবিতে নীল রঙের ব্যবহার চোখে পড়ার মতো। শেষের দিকে তাঁর ছবিগুলি সরল ও বিমূর্ত হয়ে উঠেছিল।
 
১৯০৪ সালের পর, যখন তিনি স্টকহোমের ছবি এঁকে যথেষ্ট সাফল্য অর্জন করেছেন, তখন এক বন্ধুর কাছে স্বীকারোক্তি বলেন যে, তিনি যেন ফুরিয়ে যাচ্ছেন। তিনি আর আগের ধারায় ছবি আঁকতে চাইছিলেন না। তিনি প্রদর্শনীতে অংশ নেওয়া বন্ধ করে দিয়ে ফিগার ড্রয়িং-এ মনোনিবেশ করলেন। ছেলেবেলা থেকে ভোগা অসুখের মোকাবিলা করার জন্য তিনি সাঁতার ও শীতস্নানে পারঙ্গম করে তুলেছিলেন নিজেকে। মাঝে মাঝেই চলে যেতেন নৌবাহিনীর স্নানাগারে। সেখানেই তিনি চিত্রাঙ্কনের এক নতুন বিষয়ের সন্ধান পান। তিনি সূর্যস্নানরত একদল নাবিকের ছবি আঁকেন। আর আঁকেন নগ্ন যুবকদের ভারোত্তোলন ও অন্যান্য ব্যায়ামের ছবি। শিল্প ঐতিহাসিক ও সমালোচকেরা তাঁর ছবির হোমোইরোটিক মনোভাবের দিকটি দীর্ঘদিন এড়িয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু পরবর্তীকালের গবেষনা থেকে জানা যায় যে, জ্যানসন সম্ভবত সমকামী ছিলেন এবং তাঁর ছবির কোনো এক মডেলের সঙ্গে তাঁর প্রণয় সম্পর্ক বর্তমান ছিল। তাঁর ভাই অ্যাড্রিয়ান জ্যানসন নিজেও একজন সমকামী ছিলেন। তিনি এয়াজেনের মৃত্যুর পরও অনেক বছর বেঁচেছিলেন। অ্যাড্রিয়ান তাঁর দাদাকে কেচ্ছার হাত থেকে রক্ষা করতে এয়াজেনের যাবতীয় চিঠিপত্র ও অন্যান্য অনেক কাগজপত্র পুড়িয়ে ফেলেন। উল্লেখ্য, ১৯৪৪ সাল পর্যন্ত সুইডেনে সমকামিতা নিষিদ্ধ ছিল।
 
[[da:Eugène Jansson]]
৩০৯টি

সম্পাদনা