"নূর মোহাম্মদ নিজামপুরী" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: দৃশ্যমান সম্পাদনা মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
ট্যাগ: পুনর্বহালকৃত দৃশ্যমান সম্পাদনা মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
নিজামপুরী ছিলেন এই জিহাদের অন্যতম সিপাহশালার। তিনি জুমার খুতবায় ভারতীয় মুসলিমদের ইংরেজ বিরোধী জিহাদে উদুদ্ধ করেন। [[বালাকোট যুদ্ধ|বালাকোট যুদ্ধে]] তিনি স্বশরীরে অংশগ্রহণ করেন। বালাকোটের ঘটনার পর তিনি কিছুকাল আত্মগোপনে চলে যান। এরপর থেকে তিনি '''‘গাজীয়ে বালাকোট’''' হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। নিজামপুরীর জীবনের শেষসময় গুলো কাটে উত্তর চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার নিজামপুর পরাগনার ১০ নং মিঠানালা ইউনিয়নের মলিহাইশ গ্রামে। এই অঞ্চলের দিকে নিছবত করেই নূর মুহাম্মদকে '''নিজামপুরী''' বলা হয়।
 
== ইন্তেকাল ==
== মৃত্যু ==
 
১৮৫৮ সালের ১ নভেম্বর তিনি মৃত্যুবরণ করেন। ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্রাং রোডের সুফিয়া রোডে থেকে তিন মাইল পশ্চিমে মিঠানালা ইউনিয়নের মলিহাইশ গ্রামে তার মাজার অবস্থিত।
 
তার নামেই প্রতিষ্ঠিত হয় উত্তর চট্টগ্রামের দ্বীনি বিদ্যাপীঠ [[সুফিয়া নূরিয়া ফাজিল মাদ্রাসা]]। মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা করেন আব্দুলফুরফুরা গণি।শরীফের বিশিষ্ট খলীফা মুফতীয়ে আযম শাহ্ সুফী আল্লামা আবদুল গনী (রহ:)।
 
== মূল্যায়ন ==
৩৭টি

সম্পাদনা