"সিলামবারাসান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

Baitul Hoque (আলাপ)-এর সম্পাদিত 4641947 নম্বর সংশোধনটি বাতিল করা হয়েছে
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল অ্যাপ সম্পাদনা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ সম্পাদনা পুনর্বহালকৃত
(Baitul Hoque (আলাপ)-এর সম্পাদিত 4641947 নম্বর সংশোধনটি বাতিল করা হয়েছে)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা পূর্বাবস্থায় ফেরত উচ্চতর মোবাইল সম্পাদনা
'''সিলামবারাসান দেসিংগু রাজেন্দ্র''' ({{lang-ta|சிலம்பரசன் ராஜேந்தர}}) হচ্ছেন ভারতের তামিল চলচ্চিত্র জগতের একজন অভিনেতা। ১৯৮৪ সালে তিনি শিশুশিল্পী হিসেবে ''উরাভাই কার্তা কিলি''তে অভিনয় করেছিলেন সর্বপ্রথম তখন তার বয়স ছিলো মাত্র এক বছর, নবজাতক চরিত্রে তাকে নেওয়া হয়েছিলো চলচ্চিত্রটিতে। তার বাবা ছিলেন ঐ চলচ্চিত্রটির পরিচালক এবং তার নাম ছিলো টি রাজেন্দ্র যিনি প্রথমে তামিল চলচ্চিত্রে ছোটোখাটো চরিত্রে অভিনয় করলেও পরে পরিচালক বনে যান।<ref name="theindiaglitz1">{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.indiaglitz.com/channels/tamil/article/63629.html |শিরোনাম=Happy Birthday STR |প্রকাশক=indiaglitz |তারিখ=3 February 2011 |সংগ্রহের-তারিখ=20 December 2011}}</ref> সিলামবারাসান বিভিন্ন তামিল চলচ্চিত্র কৈশোর বয়সে পা দেবার আগ পর্যন্ত ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত অভিনয় করতে থাকেন এবং ২০০০-এর দশকের শুরুর দিকে তিনি [[তৃষা (অভিনেত্রী)|তৃষা]] এবং [[জ্যোতিকা]]র সঙ্গে তামিল চলচ্চিত্র যথাক্রমে ''[[আলাই]]'' এবং ''[[মানমাদান]]'' চলচ্চিত্রে অভিনয় করে ছোটোখাটো পরিচিতি পান দর্শক মহলে যদিও প্রাপ্তবয়স্ক হিসেবে তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ছিলো ''[[কাদাল আড়িবাতিল্লাই]]'' (২০০২), চলচ্চিত্রটিতে তার নায়িকা ছিলেন [[চার্মি কৌর]]। উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত পড়ুয়া সিলামবারাসান জীবনে কখনো বিয়ে করবেননা বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কারণ তিনি প্রেম করার চেষ্টা করে বারংবার ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়েছিলেন যেটা ছিলো যার জীবনের একটি কালো অধ্যায়।<ref name="intoday">{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://indiatoday.intoday.in/story/silambarasan-plays-five-separate-roles-in-tamil-mythological-film/1/323644.html |শিরোনাম=Silambarasan plays five separate roles in Tamil mythological film : EYECATCHERS&nbsp;|কর্ম=India Today |সংগ্রহের-তারিখ=20 July 2014}}</ref>
 
২০১০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত [[গৌতম মেনন]] পরিচালিত চলচ্চিত্র ''[[ভিন্নাইতান্ডি ভারুভায়া]]''তে তিনি পুনরায় তার অতীত জীবনের সহকর্মী [[তৃষা (অভিনেত্রী)|তৃষা]]র সঙ্গে অভিনয় করেন, কাহিনী ছিলো [[একতরফা প্রেম]]ের তবে [[এ আর রহমান]]ের সঙ্গীত পরিচালনা চলচ্চিত্রটিকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছিলো, আর [[গৌতম মেনন]]ের পরিচালনা দর্শকদের অনেক ভালো লেগেছিলো এবং চলচ্চিত্রটি ছিলো তুমুল জনপ্রিয় এবং ব্যবসাসফল।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.behindwoods.com/tamil-movie-reviews/reviews-2/vinnaithaandi-varuvaayaa-silambarasan-trisha.html |শিরোনাম=VINNAITHAANDI VARUVAAYAA MOVIE REVIEW |সংগ্রহের-তারিখ=22 December 2011}}</ref> ষাট এবং সত্তরের দশকের তামিল চলচ্চিত্র পরিচালক [[কৈলাস বলচন্দ]] এই চলচ্চিত্রটিতে সিলামবারাসানের অভিনয়ের প্রশংসা করে বলেছিলেন যে, তার অভিনীত অন্যান্য চলচ্চিত্রগুলোর তুলনায় এটি ভালো হয়েছে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.sify.com/movies/kb-s-open-letter-to-gautham-menon-news-tamil-kkfqOCegchi.html |শিরোনাম=KB's open letter to Gautham Menon! |তারিখ=3 March 2010 |সংগ্রহের-তারিখ=22 December 2011}}</ref> সাম্প্রতিক সময়ে সিলামবারাসান অভিনয়ের চাইতে চলচ্চিত্র প্রযোজনা, পরিচালনা এবং সঙ্গীত পরিচালনায় মনোযোগ দিয়েছেন এবং অভিনয় থেকে অবসর নিয়েছেন বলা যায়।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি |শিরোনাম=Simbu turns music director for Santhanam's Sakka Podu Podu Raja |ইউআরএল=https://indianexpress.com/article/entertainment/tamil/simbu-turns-music-director-for-santhanam-sakka-podu-podu-raja-4433616/ |ওয়েবসাইট=The Indian Express |সংগ্রহের-তারিখ=24 November 2018 |তারিখ=18 December 2016}}</ref> 🇳🇪
 
==তথ্যসূত্র==
{{ সূত্র তালিকা }}