"অনু হাসান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

অনুরাধার বাবার নাম ছিলো চন্দ্রহাসন, এই চন্দ্রহাসনের ভাই [[কমল হাসন]] তামিল চলচ্চিত্র শিল্পের খ্যাতিমা অভিনেতা হিসেবে পরিচিতি পেয়ে গিয়েছিলেন। অনু তার বিদ্যালয়ের শিক্ষা সেন্ট জোসেফ এ্যাংলো ইন্ডিয়ান গার্লস হাইয়ার সেকেন্ডারি স্কুল থেকে শুরু করেছিলেন, এরপর তিনি আরএসকে হাইয়ার সেকেন্ডারি স্কুল এবং রাজস্থানের পিলানির বিরলা ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি এন্ড সাইন্স থেকে পদার্থবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী নেন।<ref name="sandpaper.bitsaa.org"/><ref name="hindu.com"/>
==কর্মজীবন==
২০০০ সালে অনুরাধা টেলিভিশনে তার কর্মজীবন শুরু করেছিলেন<ref name="goergo.in"/>, ঔপন্যাসিক [[চিত্রা বন্দ্যোপাধ্যায় দিবাকরূণী]]র 'সিস্টার অব মাই হার্ট' উপন্যাস অবলম্বনে অনুরাধা 'আনবুল্লা স্নেগিদিয়ে' নাটকে অভিনয় করেছিলেন।<ref name="sandpaper.bitsaa.org"/> টেলিভিশন ধারাবাহিকটি দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছিলো এবং এরপরে অনু আরো অনেক টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয়ের প্রস্তাব পান যেমনঃ 'আভান আভাল আভারগাল', 'আম্মাভুক্কু রেন্ডুলা রাগু' এবং 'বিবাহিতা', শেষোক্ত নাটকটি ছিলো মালয়ালাম ভাষার, অনু মালয়ালাম ভাষা না জানেলও তার সংলাপ তিনি নিজেই মুখস্ত বলেছিলেন এই নাটকে, এরপর অনু [[স্টার বিজয়]]ের 'কফি উইথ অনু' নামের একটি আলেখ্যানুষ্ঠানে উপস্থাপক হিসেবে কাজ পান, এটি ছিলো [[করণ জোহর]]ের 'কফি উইথ করণ'এর অনুকরণ। 'কফি উইথ অনু' ছিলো অনেক জনপ্রিয় একটি অনুষ্ঠান এবং অনু পরে [[চেন্নাই]]তে একটি রেস্তোরাঁ খুলেছিলেন।<ref name="hindu.com"/>
 
২০১৪ সালে অনু 'আস্ক হাউ ইন্ডিয়া' নামের একটি সামাজিক আন্দোলনে যোগ দেন এবং নিজে অনেক তথ্য চিত্র বানিয়েছিলেন সামাজিক বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে, যদিও অনুষ্ঠানটি ছিলো তামিলনাড়ু প্রদেশের।<ref>[http://timesofindia.indiatimes.com/city/bangalore/A-Tell-Me-How-for-Indian-citizens/articleshow/33303187.cms Video Series for Ask How India]</ref>
৮০টি

সম্পাদনা