"লিওনেল প্যালেরিট" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট - অনুচ্ছেদ সৃষ্টি)
 
== প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট ==
অক্সফোর্ডে ভর্তি হবার প্রথম বছরেই [[Oxford University Cricket Club|অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট দলের]] পক্ষে খেলার জন্য লিওনেল পালাইরেটকে মনোনয়ন দেয়া হয়। মে, ১৮৯০ সালে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া একাদশের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তাঁর।<ref name="fcm">{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Players/0/260/First-Class_Matches.html |title=First-Class Matches played by Lionel Palairet (267) |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> পালাইরেট খেলায় ছয় ও [[শূন্য রান]] এবং এক উইকেট দখল করেছিলেন। ঐ খেলায় অস্ট্রেলিয়া [[ইনিংস]] ব্যবধানে জয় তুলে নেয়।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3544.html |title=Oxford University v Australians: Australia in England 1890 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> পরের খেলায় পালাইরেটের উত্তরণ ঘটে। অক্সফোর্ডের সদস্যরূপে [[Gentlemen v Players|জেন্টলম্যানের]] বিপক্ষে খেলেন। প্রথম ইনিংসে [[ব্যাটিং অর্ডার|আট নম্বরে]] ব্যাটিং করে ৫৪ রান তুলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হন। এটিই তাঁর প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথম অর্ধ-শতক ছিল।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3550.html |title=Oxford University v Gentlemen of England: University Match 1890 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> ঐ গ্রীষ্মে অক্সফোর্ডের পক্ষে আর একটি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস খেলেন। এমসিসি’র বিপক্ষে ৭২ রান করেছিলেন তিনি।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3586.html |title=Marylebone Cricket Club v Oxford University: University Match 1890 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> ঐ [[মৌসুম (ক্রীড়া)|মৌসুমে]] বিশ্ববিদ্যালয় দলের পক্ষে সকল খেলায় অংশ নিয়ে ১৯.০০ গড়ে ২৮৫ রান করেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Seasons/Seasonal_Averages/ENG/1890_f_Batting_by_Average.html |title=First-class Batting and Fielding in England for 1890 (Ordered by Average) |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> ১৮৯০ সালে মন্দ আবহাওয়ার কারণে প্রত্যাশার তুলনায় [[ব্যাটিং গড়]] অত্যন্ত নিম্নগামী ছিল। পালাইরেটের গড়টি অক্সফোর্ড দলের পক্ষে চতুর্থ স্থানে অবস্থান করে। এছাড়াও, তাঁর সংগৃহীত সর্বমোট ২৮৫ রান দলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিল। ফলশ্রুতিতে, ব্লু লাভ করেন ও অক্সফোর্ডের পোশাকে ১৮৯০ সালে অনুষ্ঠিত [[The University Match (cricket)|বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলায়]] [[কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট ক্লাব|কেমব্রিজের]] মুখোমুখি হতে তাঁকে রাখা হয়। এ খেলায় তিনি কিছুটা সফলতার স্বাক্ষর রাখেন।<ref>Bolton (1962), pp. 133–135.</ref> ঐ মৌসুমে সমারসেট দল তেরোটি খেলায় অংশ নেয়। তন্মধ্যে, বারোটিতে জয় পায় ও অন্য একটি [[Result (cricket)#Tie|টাইয়ে]] পরিণত হয়। খেলাগুলোর দশটিতে পালাইরেটের অংশগ্রহণ ছিল। প্রথম খেলাটিতে [[Leicestershire County Cricket Club|লিচেস্টারশায়ারের]] বিপক্ষে মনোরম সেঞ্চুরি করেছিলেন। ফলশ্রুতিতে, সমারসেটের এ অসামান্য অর্জনের প্রেক্ষিতে দলটি ১৮৯১ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।<ref name="bailys"/>
অক্সফোর্ডে ভর্তি হবার প্রথম বছরেই বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট দলের পক্ষে খেলার জন্য লিওনেল পালাইরেটকে মনোনয়ন দেয়া হয়। মে, ১৮৯০ সালে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া একাদশের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তাঁর।
 
অক্সফোর্ডের [[ব্যাটিং (ক্রিকেট)|ব্যাটিং]] সম্পর্কে অক্সফোর্ড ক্রিকেট ঐতিহাসিক জিওফ্রে বোল্টন মন্তব্য করেন যে, ১৮৯১ সালে খেলার মান অগ্রহণযোগ্য। তখন পালাইরেট বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয় বৎসর পার করছিলেন। পালাইরেটের ব্যাটিং গড় ১৫.৭৮ যা সতীর্থদের মাঝে পঞ্চম স্থান এনে দেয়। এবারও তিনি বিশ্ববিদ্যালয় খেলায় দুই ও এগারো রান তুলে কঠিন সময় পার করেন।<ref>Bolton (1962), pp. 136–139.</ref> অক্সফোর্ডে অবস্থানকালে সচরাচর মাঝারিসারিতে ব্যাট হাতে মাঠে নামতেন লিওনেল পালাইরেট। অপ্রত্যাশিতভাবে সমারসেটের দলীয় [[অধিনায়ক (ক্রিকেট)|অধিনায়ক]] হার্বি হিউইটের সাথে ব্যাটিং উদ্বোধন করতে নামেন। এ অবস্থানে থেকে সমারসেট আশাতীত সফলতা পায়। দশ খেলায় ৩১.১১ গড়ে রান তুলেন ও কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপে শীর্ষ দশ ব্যাটসম্যানের একজন হন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Events/0/County_Championship_1891/Batting_by_Average.html |title=Batting and Fielding in County Championship 1891 (Ordered by Average) |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> ঐ বছরই প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে তিনি তাঁর প্রথম [[সেঞ্চুরি (ক্রিকেট)|সেঞ্চুরি]] হাঁকান। [[Gloucestershire County Cricket Club|গ্লুচেস্টারশায়ারের]] বিপক্ষে তিনি ১০০ রান তুলেছিলেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3743.html |title=Gloucestershire v Somerset: County Championship 1891 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref>
 
১৮৯১-৯২ মৌসুমে [[মার্টিন হক|লর্ড হকের]] নেতৃত্বাধীন দলের সদস্যরূপে উত্তর আমেরিকা গমনে সম্মতিজ্ঞাপন করেন। কিন্তু শেষ মুহুর্তে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন ও সমারসেটের দলীয় সঙ্গী [[স্যামি উডস]] তাঁর স্থলাভিষিক্ত হন।<ref>{{cite book |url=https://books.google.com/?id=4eqYvTHFYgYC&pg=PA83&dq=Palairet+golf#v=onepage&q=Palairet&f=false |title=Lord Hawke: A Cricketing Legend |last=Coldham |first=James P. |publisher=Tauris Park Paperbacks |year=2003 |location=London |page=83 |isbn=1-86064-823-1 |accessdate=14 December 2012}}</ref>
 
১৮৯২ সালে পালাইরেটকে অক্সফোর্ড দলের নেতৃত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়। [[উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক|উইজডেনের]] ভাষ্য মতে, মৌসুমটি সর্বাধিক সফলতম ছিল। পালাইরেট নিজেকে [[বোলিং (ক্রিকেট)|বোলার]] হিসেবে তুলে ধরার প্রয়াস চালান। কেবলমাত্র [[George Berkeley (cricketer)|জর্জ বার্কলি]] তাঁর তুলনায় অধিক বল করেছিলেন।<ref name="Bolton1892">Bolton (1962), pp. 140–144.</ref> সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইবার ইনিংসে পাঁচ উইকেট পেয়েছেন। তন্মধ্যে, জেন্টলম্যানের বিপক্ষে অক্সফোর্ডের প্রথম ইনিংসে প্রথমবারের মতো পাঁচ উইকেট লাভে সক্ষমতা দেখান।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3795.html |title=Oxford University v Gentlemen of England: University Match 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> এরপর ল্যাঙ্কাশায়ারের উভয় ইনিংসে চারটি করে উইকেট তুলে নেন ও খেলায় তিনি অর্ধ-শতকেরও সন্ধান পান।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3802.html |title=Oxford University v Lancashire: University Match 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> ফিরতি খেলায় ল্যাঙ্কাশায়ারের বিপক্ষে নিজস্ব ব্যক্তিগত সেরা বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান। ওল্ড ট্রাফোর্ডে ৬/৮৪ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েছিলেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3824.html |title=Lancashire v Oxford University: University Match 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> পরের খেলায় সাসেক্সের বিপক্ষে দুইটি মনোজ্ঞ ইনিংস খেলেন ও বোলিং করেন যা বোল্টনের ভাষ্য মতে খেলায় বেশ প্রভাববিস্তার করে।<ref name="Bolton1892"/> বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলায় কেমব্রিজের মুখোমুখি হন। প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে বিদায় নেন। তবে, [[Malcolm Jardine|ম্যালকম জারদিন]] ও [[Vernon Hill|ভার্নন হিলের]] সেঞ্চুরির বদৌলতে অক্সফোর্ড ৩৬৫ রান তুলে। কেমব্রিজ দল ১৬০ রানে অল-আউট হলে [[ফলো-অন|ফলো-অনের]] কবলে পড়ে। ৩৮৮ রানে গুটিয়ে গেলে অক্সফোর্ডের জয়ের লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১৮৪। [[ফিল্ডিং (ক্রিকেট)|ফিল্ডিং]] চলাকালে পালাইরেট আহত হন। ব্যাটিং উদ্বোধনের জন্য [[Frank Phillips (cricketer)|ফ্রাঙ্ক ফিলিপসকে]] তাঁর স্থলে দাঁড় করান। শুরুটা অক্সফোর্ড ভালো করতে পারেনি। ১৭/২ থাকা অবস্থায় ছিল। পালাইরেট পাঁচ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামেন। প্রায় দেড়ঘন্টা ক্রিজ আঁকড়ে থেকে ৭১ রান তুলেন ও দলের বিজয়ে অসামান্য ভূমিকা পালন করেন। ১৮৯২ সালে অক্সফোর্ডের পক্ষে ব্যাটিং গড়ে শীর্ষস্থানে আরোহণ করেন। ৩৬.৩৫ গড়ে ৫০৯ রান তুলেন ও ২২.২৮ গড়ে ২৮ উইকেট পান।<ref name="Bolton1892"/>
 
বিশ্ববিদ্যালয় খেলায় অসামান্য ভূমিকার কারণে মর্যাদাসম্পন্ন জেন্টলম্যান বনাম প্লেয়ার্সের খেলায় তাঁকে মনোনীত করা হয়। লর্ডস ও ওভালের ঐ খেলাগুলোয় তিনি জেন্টলম্যানের পক্ষাবলম্বন করেন। সমারসেটে ফিরে জুলাইয়ে শুরুতে গ্লুচেস্টারশায়ারের বিপক্ষ সেঞ্চুরি হাঁকান।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3842.html |title=Gloucestershire v Somerset: County Championship 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> আগস্টের শেষদিকে [[ইয়র্কশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব|ইয়র্কশায়ারের]] বিপক্ষে ১৩২ রান তুলেন। এ সময় হিউইটের সাথে ৩৪৬ রানে জুটি গড়েন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3881.html |title=Somerset v Yorkshire: County Championship 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> এ পর্যায়ে ১৮৬৯ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথম উইকেট জুটিতে [[ডব্লিউ. জি. গ্রেস]] ও [[ব্রান্সবি কুপার|ব্রান্সবি কুপারের]] ২৮৩ রানে জুটির সংগ্রহকে ম্লান করে দেন তাঁরা।<ref>Roebuck (1991), p. 62.</ref> যদিও তাঁদের গড়া এ রেকর্ডটি পরবর্তীতে ভেঙ্গে যায়; তবুও অদ্যাবধি সমারসেটের প্রথম উইকেট জুটিতে বহাল তবিয়তে টিকে রয়েছে। {{efn|name="asof"}}<ref>{{cite web |url=https://cricketarchive.com/Archive/Records/England/Firstclass/Somerset/Partnership_Records/Highest_Partnership_Each_Wicket_For.html |title=Highest Partnership for Each Wicket for Somerset |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> এইচ.এস. অ্যাল্থাম ও ই. ডব্লিউ. সোয়ানটনের যৌথভাবে রচিত এ হিস্ট্রি অব ক্রিকেট গ্রন্থে এ প্রসঙ্গে উল্লেখ রয়েছে যে, এক প্রান্তে বিশুদ্ধ চাকচিক্যময় ও অন্য প্রান্তে খাঁটি আক্রমণ ছিল।<ref name="altham">Altham, Swanton (1938), p. 205.</ref>
 
== পাদটীকা ==
৭২,২৫৬টি

সম্পাদনা