"স্বামী" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
 
একজন [[পুরুষ]] যদি আইনগতভাবে স্ত্রীর কাছ থেকে আলাদা হয়ে যায় বা তার [[স্ত্রী]] মারা যায় তখন সে পুরুষ কযেকটি নামে ডাকা হয়। যদি কোন স্ত্রী মারা যায় তাহলে ঐ পুরুষকে [[বিপত্নীক]] বলা হয় এবং কোন পুরষ যদি আইনসত উপায়ে স্ত্রীর সাথে [[বিবাহবিচ্ছেদ]] ঘটে তাহলে সে পুরুষকে প্রাক্তন স্বামী বলা হয়। বর্তমান সমাজে স্বামীকে পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যাক্তি হিসেবে বিবেচনা করা হয় না, বিশেষকরে যদি তার স্ত্রীর একাধিক পেশার সাথে জড়িত থাকে। এইসব ক্ষেত্রে, যদি বিবাহিত দম্পতির সন্তানাদি থাকে তাহলে স্বামীকে গৃহে অবস্থানকারী পিতা হিসেবে বিবেচনা করা কোন অস্বাভাবিক ব্যাপার না।
==উৎস ও ব্যুৎপত্তি==
 
'''স্বামী''' শব্দটি ইংরেজী শব্দ ''husband'' এর পরিভাষা। ''Husband'' শব্দটি মধ্যযুগীয় ইংরেজী শব্দ ''''huseband'''' এবং প্রাচীন ইংরেজী শব্দ '''''hūsbōnda''''' এবং প্রাচীন নরওয়েজীয় শব্দ '''''hūsbōndi''''' (hūs, "ঘর" + bōndi, বাস করা, তাই ব্যুৎপত্তিগতভাবে এর অর্থ "একজন গৃহস্বামী") থেকে এসেছে।
==তথ্যসূত্র==