"আহমাদ ইবনে মোহাম্মাদ ইবন কাসির আল-ফারগানি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
| name = আল-ফারগানি
| birth_date = নবম শতাব্দি
| era = [[ ইসলামের স্বর্ণযুগ ]]
| region = [[বাগদাদ]]
| main_interests = [[জ্যোতির্বিজ্ঞান]]
 
 
আবু আল আব্বাস আহমাদ ইবনে মোহাম্মাদ ইবন কাসির আল-ফারগানি , ফারঘানি (৮০০/৮০৫-৮৭০) যিনি পশ্চিমা বিশ্বে [[আলফ্রাগানুস]] নামে পরিচিত।তিনি ছিলেন একজন [[আরব|]] <ref>''Science'', '''The Cambridge History of Islam''', Vol. 2, ed. </ref>]][[#cite_note-1|<span class="mw-reflink-text"><nowiki>[1]</nowiki></span>]] অথবা [[পারস্য]]র<ref>Sir Patrick Moore, ''The Data Book of Astronomy'',CRC Press,2000,BG 48ref Henry Corbin, ''The Voyage and the Messenger: Iran and Philosophy'', North Atlantic Books, 1998, pg 44</ref><ref>''Texts, Documents and Artefacts: Islamic Studies in Honour of D.S. Richards''. </ref> একজন [[সুন্নি]] মুসলিম জ্যোতির্বিদ।নবম শতাব্দীতে তিনি ছিলেন বিশ্বের খ্যাতনামা একজন জ্যোতির্বিজ্ঞানী।চাঁদের আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ [[আলফ্রাগানুস]] এর নামকরণ তার নামেই করা হয়েছে।
 
== জীবন ==
== কর্ম ==
তার লিখিত 'কিতাব ফি জাওয়ামি' 'ইলম আল নুজুম' এ (নক্ষত্র বিজ্ঞানের সারসংক্ষেপ) সৌরপ্রণালীর অন্তর্গত গ্রহগুলোর গতিবিধি,নীহারিকাপুঞ্জ সম্বন্ধে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়।<ref>{{বই উদ্ধৃতি|last=Dallal|first=Ahmad|title=Islam, Science, and the Challenge of History|year=2010|publisher=[[Yale University Press]]|isbn=9780300159110|page=32}}</ref> ১২ শতকে এই বইটি ল্যাটিন ভাষায় অনুবাদ করা হয় এবং ইউরোপে এটি প্রচুর জনপ্রিয়তা লাভ করে।
 
[[Category:Articles containing Arabic-language text|Category:Articles containing Arabic-language text]] | image =Alfraganus crater 4084 h3.jpg|240px
 
| caption = চাঁদের আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ [[আলফ্রাগানুস]] যেটি আল-ফারগানির নামে নামকরণ করা হয়
 
== References ==
৫৬টি

সম্পাদনা