"জ্যোতিষ্ক" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বানান ও শৈলী সংশোধন
(Shahadat.natore6400-এর সম্পাদিত সংস্করণ হতে NahidSultanBot-এর সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণে ফ...)
(বানান ও শৈলী সংশোধন)
[[মহাশূন্য|মহাশূন্যে]] অবস্থিত বস্তুসমূহকেই '''জ্যোতিষ্ক''' বলা হয়ে থাকে। আধুনিক বিজ্ঞান ([[জ্যোতির্বিজ্ঞান]]) এই বস্তুসমূহের বৈশিষ্ট্য ও অস্তিত্ব সম্বন্ধে বিস্তর তথ্য সংগ্রহ করতে সমর্থ হয়েছে। এই বস্তুগুলোর আবিষ্কার প্রতিনিয়তই চলছে এবং ভবিষ্যতেও চলবে। এমনকি অনেক বস্তু রয়েছে যাদের আদৌ কোন অস্তিত্ব নেই বলে পরবর্তীতে প্রমাণিত হয়েছে। ্ই প্রক্রিয়া ভবিষ্যতেও চলতে থাকবে। আর এভাবেই মানুষ তার সমগ্র মহাবিশ্বকে তারতাঁর বিচরণস্থল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সমর্থ হবে।
 
== জ্যোতিষ্কসমূহের আবিষ্কার ==
 
== দ্ব্যর্থতা নিরসন ==
জ্যোতিষ্কসমূহের ইংরেজি নাম হল: '''Heavenly bodies''' বা ''astronomical bodies'' বা স্বর্গীয় বস্তু। এই নামটির সাথে মাঝে মাঝেই ''জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক বস্তু'' (astronomical object) বা ''খ-বস্তু'' (celestial object) নামটিকে গুলিয়ে ফেলা হয়। নাম দুটি এক নয়। জ্যোতিষ্ক হল পৃথিবী থেকে পর্যবেক্ষণ করা হয় এমন সকল বস্তু। পৃথিবী ছাড়া অন্য সব বস্তুই এর অন্তর্ভুক্ত হবে। কিন্তু পৃথিবী এর অন্তর্ভুক্ত নয়। কিন্তু জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক বস্তুর মধ্যে পৃথিবীসহ সব জ্যোতিষ্কই পড়ে। তাহলে বলা যায়, ''সব জ্যোতিষ্কই জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক বস্তু, কিন্তু সব জ্যোতির্বৈজ্ঞনিকজ্যোতির্বৈজ্ঞানিক বস্তুই জ্যোতিষ্ক নয়''। আসলে প্রাচীনকালের মানুষরা আকাশকেই স্বর্গ মনে করতো, বিধায়তাই আকাশে দৃশ্যমান সব বস্তুকে স্বর্গীয় বস্তু বলতো। এর মধ্যে পৃথিবী পড়েনা, কিন্তু সব জ্যোতিষ্ক পড়ে।
 
== আরও দেখুন ==
৪,২১৪টি

সম্পাদনা