প্রমথেশ চন্দ্র বরুয়া: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
সম্পাদনা সারাংশ নেই
সম্পাদনা সারাংশ নেই
প্রমথেশ বরুয়ার জন্ম অসমের গোয়ালপারা জেলার গৌরীপুরে হয়েছিল। পিতার নাম প্রভাত চন্দ্র বরুয়া ও মাতার নাম সরোজবালা বরুয়া।<ref>http://web.archive.org/web/20080502101907/http://www.bfjaawards.com/archives/articles/198801.htm</ref> তিনি ছেলেবেলায় গৌরীপুরে ইউনাইটেড ক্লাব নামক একটি সাংস্কৃতিক সংঘের স্থাপনা করে নাটক করিতেন। প্রমথেশ বরুয়া গৌরীপুর বিদ্যালয়ে শিক্ষা সম্পূর্ন করার পর কলকাতার হেয়ার বিদ্যালয়ে নামভর্তী করেছিলন। ১৯২১ সনে তিনি কলকাতার বিরেন্দ্রনাথ মিত্রের কন্যা মাধুরীলতাকে বিবাহ করেছিলেন। ১৯২৮ প্রমথেশ বরুয়া কলকাতার প্রেসিডেন্সী কলেজ থেকে পদার্থ বিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেছিলেন। তিনি ইউরোপ ভ্রমন করার সময় চলচিত্র জগতের প্রতি আগ্রহ জন্মেছিল। ১৯২৬ সনে মাতৃবিয়োগের পর তিনি অসমে ফিরে আসেন ও পিতার সহিত জমিদারী কার্যে মনোনিবেশ করেন। কিছুদিন পর তিনি কলকতার জন্য রওনা হন ও ঘড়ের সদস্যের আপত্তি থাকা সত্বেও তিনি চলচিত্র জগতে জড়িত হন। তিনি অমলা বালা বরুয়া ও যমুনা বরুয়াকে বিবাহ করেছিলেন। প্রথমেশ বরুয়া মোট ৬টি সন্তানের পিতৃ ছিলেন।
==চলচিত্র জগতে অবদান==
প্রমথেশ চন্দ্র বরুয়া কলকাতার ধীরেন নাথ গাঙ্গুলির দা ব্রিটিশ ডমিনিয়ান ফিল্ম লিমিটেডে ধন নিবেশ করেছিলেন ও তিনি এই প্রতিষ্ঠানে অভিনয় করেছিলেন।তিনি দ্বিতীয়বার ইউরোপ ভ্রমনের জন্য গিয়েছিলেন ও লন্ডন থেকে চলচিত্র নির্মানের জন্য প্রশিক্ষন নিয়েছিলেন ও পেরিসে লাইট বয় হিসেবে কাজ করে চলচিত্র নির্মানের কার্য আয়ত্ত করেছিলেন। পেরিস থেকে চলচিত্র নির্মানের সামগ্রী ক্রয় করে তিনি ভারতে বরুয়া পিক্চার্স নামক ষ্টুডিও স্থাপন করেছিলেন। ১৯৩১ সনে এই ষ্টুডিওর প্রথম চলচিত্র অপরাধী মুক্তি পেয়েছিল। কালিপ্রসাদ ঘোষ পরিচালিত ভাগ্যলক্ষী চলচিত্রে তিনি খলনায়করের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। থীরেন নাথ গাঙ্গুলি, প্রমথেশ বরুয়া ও দেবকী বসু একত্রিত হয়ে নিউ থিয়েটার নামক চলচিত্র প্রয়োজনা প্রতিষ্ঠানে যোগদান করেছিলেন। এই থিয়েটারের অন্তঃভুক্ত থাকার সময় তিনি দেবদাস চলচিত্র নির্মান করেছিলেন। [[শরৎ চন্দ্রশরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়]] রচিত উপন্যাসে আধারিত এই চলচিত্র প্রথমে বাংলা ভাষায় নির্মান করা হয়েছিল ও ১৯৬৩ সনে তিনি হিন্দী ভাষায় দেবদাস চলচিত্র নির্মান করেছিলেন। তিনি হিন্দী চলচিত্র মন্জিল, মুক্তি, অধিকার ও রজত জয়ন্তীতে পরিচলনা করেছিলেন।
==মৃত্যু==
অত্যধিক সুরাপানের ফলে প্রথমেশ বরুয়ার স্বাস্থ ধীরে ধীরে নষ্ট হতে থাকে ফলে ১৯৫১ সনের ৩১ নভেম্বর তারিখে প্রমথেশ বরুয়ার মৃত্যু হয়। কলকাতার কেওরালতা সমাধিক্ষেত্রে প্রথমেশ বরুয়ার অন্তিম কার্য সমাপ্ত করা হয়।