গ্ত্সাং-পা-র্গ্যা-রাস-য়ে-শেস-র্দো-র্জে: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
সম্পাদনা সারাংশ নেই
==শিক্ষা==
 
গ্যুং-দ্রুং-দ্পালের বয়স যখন বারো বছর, তখন তাঁর জৈষ্ঠ্য ভ্রাতা স্কাল-লদান ({{bo|w=skal ldan}}) তাঁকে গ্ত্সাং-রোং ({{bo|w=gtsang rong}}) নামক স্থানে র্তা-থাং-পা ({{bo|w=rta thang pa}}) নামক শিক্ষকের কাছে নিয়ে গেলে, সেখানে তিনি তিন বছর শিক্ষালাভ করেন। পনেরো বছর বয়স হলে তিনি ম্খার-লুং-পা ({{bo|w=mkhar lung pa}}) নামক বৌদ্ধ শিক্ষকের নিকট আট বছর ধরে অভিধর্ম ও [[অতিযোগ]] তত্ত্ব সম্বন্ধে শিক্ষালাভ করেন। এরপর তিনি [[তিব্বতী বৌদ্ধধর্ম|তিব্বতী বৌদ্ধধর্মের]] অন্যতম প্রধান ধর্মসম্প্রদায় [[ব্কা'-ব্র্গ্যুদ]] ধর্মসম্প্রদায়ের [['ব্রুগ-পা-ব্কা'-ব্র্গ্যুদ]] ধর্মীয় গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা [[গ্লিং-রাস-পা-পাদ-মা-র্দো-র্জে]]র নিকট শিক্ষালাভ করেন। ১১৯৩ খ্রিষ্টাব্দে [[ঝাং-গ্যু-ব্রাগ-পা-ব্র্ত্সোন-'গ্রুস-গ্রাগ্স-পা]]র নির্দেশে তিনি বৌদ্ধ ভিক্ষুতে পরিণত হন।<ref name=Martin/>
 
==গ্তের-মা উদ্ধার==
 
[[গ্লিং-রাস-পা-পাদ-মা-র্দো-র্জে]]র নির্দেশে তিনি ম্খার নদী উপত্যকায় যেতে নির্দেশ দিলে গ্ত্সাং-পা-র্গ্যা-রাস-য়ে-র্দো-র্জে সেখানে ভারতীয় পন্ডিত তিপু পার রচিত রো-স্ন্যোম-স্কোর-দ্রুগ ({{bo|w=ro snyom skor drug}}) নামক একটি গ্রন্থকে উদ্ধার করেন। এই গ্রন্থ তিপু পার শিষ্য [[রাস-ছুং-র্দো-র্জে-গ্রাগ্স-পা]] ম্খার নদী উপত্যকায় লুকিয়ে রাখেন বলে প্রবাদ প্রচলিত ছিল।<ref name=Martin/>
 
==পরবর্তী জীবন==
১১৯০ এর দশকে তিনি স্ক্যিদ নদীর তীরে ক্লোং-র্দোল বৌদ্ধবিহার স্থাপন করেন। ১২০৫ খ্রিষ্টাব্দে তিনি 'ব্রুগ বৌদ্ধবিহার স্থাপন করেন। এই বৌদ্ধবিহার থেকেই [['ব্রুগ-পা-ব্কা'-ব্র্গ্যুদ]] ধর্মীয় গোষ্ঠীর নামকরণ হয়।
 
১১৯০ এর দশকে তিনি স্ক্যিদ নদীর তীরে ক্লোং-র্দোল বৌদ্ধবিহার স্থাপন করেন। ১২০৫ খ্রিষ্টাব্দে তিনি 'ব্রুগ বৌদ্ধবিহার স্থাপন করেন। এই বৌদ্ধবিহার থেকেই [['ব্রুগ-পা-ব্কা'-ব্র্গ্যুদ]] ধর্মীয় গোষ্ঠীর নামকরণ হয়।<ref name=Martin/>
 
==তথ্যসূত্র==