বাটানগর উড়ালপুল

বাটানগর উড়ালপুল হল কলকাতার দক্ষিণ শহরতলি এলাকার একটি উড়ালপুল। দুই লেনের উড়ালপুলের মোট দৈর্ঘ্য ৭.৫ কিলোমিটার ও চওড়া ১৫ ফুট। উড়ালপুলটি জিনঞ্জিরা বাজারের সঙ্গে বাটানগরকে যুক্ত করে।

বাটানগর উড়ালপুল
বাটানগর উড়ালপুল পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
বাটানগর উড়ালপুল
স্থানাঙ্ক২২°১৭′ উত্তর ৮৮°০৭′ পূর্ব / ২২.২৯° উত্তর ৮৮.১১° পূর্ব / 22.29; 88.11
বহন করেযাত্রিবাহী যানবাহন
স্থান
অফিসিয়াল নামসম্প্রীতি উড়ালপুল[১]
অন্য নামজিনঞ্জিরা বাজার-বাটানগর উড়ালপুল
বৈশিষ্ট্য
উপাদানইস্পাত, কংক্রিট
মোট দৈর্ঘ্য৭.৫ কিলোমিটার
ইতিহাস
চালু১১ জানুয়ারি ২০১৮[২]
পরিসংখ্যান
টোলহ্যাঁ

ইতিহাসসম্পাদনা

মূল কলকাতার সঙ্গে বাটানগর ও বজবজকে যুক্তকারী বজবজ ট্রাঙ্ক রোড প্রয়োজনের তুলনায় সংকীর্ণ ফলে এই সড়কটিতে সব সময় যানজট লেগে থাকত। এই সমস্যা সমাধানের জন্য বাটানগর উড়ালপুল নির্মাণের কথা ভাবা হয়। বাটানগর উড়ালপুল নির্মাণের কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ২০১৪ সালে।[৩] এর পর এই উড়ালপুল নির্মাণের ততপরতা শুরু হয়। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ২০১১ সালে আরবান রিনিউয়াল মিশনে এই উড়ালপুল তৈরির অনুমোদন দেয় কেন্দ্র এবং ২০১৫-য় নির্মাণের কাজ শুরু হয়। উড়ালপুলটি নির্মাণের দরপত্র গ্রহণ করার পরে, এল অ্যান্ড টি কোম্পানি উড়ালপুলটির নির্মাণের কাজে নিযুক্ত হয়। এর নির্মাণ খরচ ধরা হয় ২৫৫ কোটি টাকা। যার মধ্য ৮৬.৮ কোটি টাকা দেবে কেন্দ্র সরকার ও বাকি টাকা দেবে নির্মাণ সংস্থা। অক্টোবর ২০১৮ সালে উড়ালপুলের নির্মাণ কাজ শেষ হহয়। তবে উড়ালপুলের নির্মাণে মোট খরচ হয় ৩৩০ কোটি টাকা। উড়ালপুল নির্মাণের সঙ্গে সঙ্গে উড়ালপুলের নিচের বজবজ ট্রাঙ্ক রোড চওড়া করা হবে ও এর সৌন্দর্যয়ায়ন করা হবে।

১১ জানুয়ারী ২০১৯ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উড়ালপুলের উদ্বোধন করেন।

গুরুত্বসম্পাদনা

মহেশতলা, বাটানগর, বজবজ, পূজালি প্রভৃতি এলাকার মানুষের কাছে এই উড়ালপুলের গুরুত্ব অপরিসীম। এর নির্মাণ শেষ হলে এই এলাকার ১৫ লক্ষ মানুষ সহজে কলকাতা যাতায়াত করতে পারবে ও যাতায়াতের সময় কমবে। এলাকার যানজট কমবে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "কালীপুজোয় চালু হবে মহেশতলার উড়ালপুল"। eisamay.indiatimes.com। ১৩ অক্টোবর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. "আজ উদ্বোধন সম্প্রীতি সেতুর, বজবজ-মহেশতলার দিন বদলাবে নয়া উড়ালপুল"। eisamay.indiatimes.com। ১১ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১১ জানুয়ারি ২০১৯ 
  3. "Decks cleared for Batanagar flyover"Times of India। ১৭ জানুয়ারি ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জুলাই ২০১৬