বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)-এর যুব অঙ্গসংগঠন।[১] জিয়াউর রহমান বিএনপি প্রতিষ্ঠার সাথে সাথে ১৯৭৮ সালের ২৭ অক্টোবর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল নামে বিএনপির যুব সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠাকালীন আহ্ববায়ক আবুল কাশেম যিনি পরবর্তীতে সভাপতি এবং সাইফুর রহমান প্রথম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল
সভাপতিসাইফুল ইসলাম নিরব
মহাসচিবসুলতান সালাহউদ্দিন টুকু
প্রতিষ্ঠা১৯৭৮
সদর দপ্তরপল্টন, ঢাকা
ভাবাদর্শজাতীয়তাবাদ, অগ্রগতিশীল
মাতৃ সংগঠনবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল

প্রতিষ্ঠার পর ১৯৮৭ সালের ২৩ মার্চ দ্বিতীয়, ১৯৯৩ সালের ৮ অক্টোবর তৃতীয়, ২০০২ সালে চতুর্থ, ২০১০ সালের ১ মার্চ পঞ্চম এবং ২০১৭ সালের ৩ জানুয়ারি সংগঠনটির সর্বশেষ ষষ্ঠ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।[২] বর্তমানে সাইফুল আলম নীরব সভাপতি ও সুলতান সালাউদ্দিন টুকু সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।[৩] যুবদলের প্রধান কার্যালয় নতুন পল্টন, ঢাকায় অবস্থিত।

নেতৃত্বসম্পাদনা

১৯৭৮ সালে আবুল কাশেমকে আহ্বায়ক করে যুবদলের কমিটি গঠন করা হয়। এর পর আবুল কাশেমকে সভাপতি ও সাইফুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি গঠন করা হয়। ১৯৮৭ সালের ২৩ মার্চ যুব্দলের কাউন্সিলে সভাপতি নির্বাচিত হন মির্জা আব্বাস ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। ১৯৯৩ সালের ৮ অক্টোবর কাউন্সিলে তারা আবারো নির্বাচিত হন। ২০০২ সালে যুবদলের কাউন্সিলে বরকতউল্লাহ বুলু সভাপতি ও মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০১০ সালের ১ মার্চ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ও সাইফুল আলম নীরব যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হন। ২০১৭ সালের ৩ জানুয়ারি সাইফুল আলম নীরবকে সভাপতি ও সুলতান সালাউদ্দিন টুকুকে সাধারণ সম্পাদক হন।[২]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-০১ 
  2. "প্রতিষ্ঠার পর থেকে যুবদলের নেতৃত্বে ছিলেন যারা"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  3. "চুপসে গেছে যুবদল, অস্বস্তি"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০