বাংলাদেশের সামরিক শাসনের গণভোট, ১৯৮৫

বাংলাদেশের সামরিক শাসনের গণভোট ১৯৮৫, হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের সামরিক শাসনকে বৈধতা দেওয়ার জন্য ২১শে মার্চ ১৯৮৫ সালে অনুষ্ঠিত হয়। যিনি ১৯৮২ সালে নির্বাচিত সরকারের অধীনে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব পালন কালে রাষ্ট্রক্ষমতা গ্রহণ করেন এবং প্রধান সামরিক প্রশাসক হিসেবে দেশ শাসন করেন। গণভোটে ভোটারদের কাছে জিজ্ঞেস করা হয়, আপনি কি রাষ্ট্রপতি এরশাদের গৃহীত নীতি সমর্থন করেন এবং আপনি কি চান, জাতীয় নির্বাচনের মাধ্যমে একটি নির্বাচিত সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের পূর্ব পর্যন্ত তিনি তার প্রশাসন পরিচালনা করবেন?

ফলাফল ছিল ৯৪.৫% হ্যাঁ এবং মোট ৭২.২% ভোট সংগৃহীত হয়েছিল।[১] বিরোধীরা গণভোটের দিন সাধারণ ধর্মঘটের আয়োজন করেন এবং ফলাফল পূর্ব নির্বারিত বলে ঘোষণা করেন।

ফলাফলসম্পাদনা

পছন্দ ভোট %
হ্যাঁ ৩২,৬৬১,২৩৩ ৯৪.৫
বিরুদ্ধে ১,৯১১,২৮১ ৫.৫
অবৈধ/খালি ভোট -
মোট ৩৪,৫৭২,৫১৪ ১০০
নিবন্ধিত ভোটার/সংগৃহীত ৪৭,৯১০,৯৬৪ ৭২.২
উৎস: Nohlen et al.

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Nohlen, D, Grotz, F & Hartmann, C (2001) Elections in Asia: A data handbook, Volume I, p534 ISBN 019924958