ফ্লিপকার্ট

ভারতীয় ইলেকট্রনিক কমার্স কোম্পানি

কর্নাটকের ব্যাঙ্গালোরে অবস্থিত ফ্লিপকার্ট হল এক ভারতীয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান। আগে আমাজন ডট কমে কাজ করা ভারতীয় প্রযুক্তিবিদ্যা প্রতিষ্ঠানের দুজন স্নাতক শচীন বানশাল এবং বিন্নী বানশাল ২০০৭ সালে ফ্লিপকার্ট আরম্ভ করেন। প্রথম অবস্থায় ফ্লিপকার্ট বইয়ের বিক্রীর ব্যবসা আরম্ভ করে, যদিও বর্তমান ফ্লিপকার্ট বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিকস সামগ্রীর সাথে নিত্যব্যবহার্য বিভিন্ন সামগ্রী পাওয়া যায়। ফ্লিপকার্ট থেকে বস্তু ক্রয় করবার জন্য গ্রাহক বহু বিকল্পেের মধ্য থেকে নিজের পছন্দের বিকল্প বেছে নিতে পারে, যেমন: ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড, নেট ব্যাঙ্কিং, ই-উপহার কুপন ইত্যাদি, তাছাড়া বস্তু গ্রাহক বাড়িতে পাওয়ার সময়ে নগদ টাকা দেওয়ার বিকল্প ব্যবস্থা (Cash on Delivery)ও আছে।[৩]
ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড যতেষ্ট কম ব্যবহার হওয়া ভারতে, গ্রাহক ঘরে নগদ টাকা দেওয়ার এই ব্যবস্থা ফ্লিপকার্টের সাথে এমন ই-ব্যবসাকে এক নতুন মাত্রা প্রদান করতে দেখা যায়। [৪]

ফ্লিপকার্ট
Flipkart india.png
ফ্লিপকার্টের লোগো
সাইটের প্রকার
অনলাইন দোকান
উপলব্ধইংরাজী
মালিকশচীন বানশাল এবং বিন্নী বানশাল
আয়বৃদ্ধি ৫০০ কোটি (FY 2011–12)[১]
স্লোগানদ্য অনলাইন মেগাষ্টোর
ওয়েবসাইটflipkart.com
অ্যালেক্সা অবস্থানবৃদ্ধি ৫৪১ [২]
বাণিজ্যিকহ্যা
নিবন্ধনপ্রয়োজন
চালুর তারিখ২০০৭; ১৩ বছর আগে (2007)
বর্তমান অবস্থাঅনলাইন (ঊপলব্ধ)

ইতিহাসসম্পাদনা

আই আই টি দিল্লীর দুজন প্রাক্তন ছাত্র শচীন বানশাল এবং বিন্নী বানশাল ২০০৭ সালে ফ্লিপকার্টের জন্ম দেন। নিজের এই কোম্পানীটি খোলার আগে থেকে দুজন আমাজন ডট কমের কর্মচারী ছিলেন, প্রথমে তারা ওয়ার্ড অফ মাউথ (মৌখিক প্রচার) ব্যবস্থার মাধ্যমে নিজের ব্যবসা জনপ্রিয়করণের ব্যব্স্থা গ্রহণ করেন। তার কিছু মাস পর ফ্লিপকার্ট ডট কম নিজের প্রথমটি বই John Woodর Leaving Microsoft to Change the World বিক্রী করতে সক্ষম হয়,[৫] বর্তমানে ফ্লিপকার্ট ভারতের প্রায় ৩০টা এমন ওয়েবসাইটের মধ্যে সর্ববৃহৎ বই বিক্রেতা [৫] বর্তমান ফ্লিপকার্টে প্রায় ১১ নিযুত বই উপলব্ধ, প্রথমে বই থেকে আরম্ভ হওয়া স্টোরটি ২০১০ সাল থেকে সিডি, ডিভিডি, মোবাইল ফোন, মোবাইল ফোনের বিভিন্ন সামগ্রী, কম্পিউটার ইত্যাদি নিজেদের তালিকাও অন্তর্ভূক্ত করে, ২০১১ সালে এই তালিকাও বিভিন্ন ঘরোয়া সামগ্রী যেমন রান্নাঘরের সামগ্রী, পড়ার ঘরের সামগ্রী, শরীর চর্চার সামগ্রী ইত্যাদি যোগ হয়। [৬] বর্তমান ফ্লিপকার্টের মোট কর্মচারীর সংখ্যা ৪৫০০[৭]

মূলধনসম্পাদনা

প্রথম অবস্থায় দুই বানশালের নিজেদের মূলধন দ্বারা (৪০০,০০০)আরম্ভ করা ফ্লিপকার্টে,[৫][৮] ২০০৯ সালে এসেল [৯] এবং টাইগার গ্লোবাল ইণ্ডিয়া (২০১০ সালে $১০ নিযুত এবং জুন ২০১১তে $২০ নিযুত).[১০][১১][১২] অধিক মূলধন বিনিয়োগ করে।

অধিগ্রহণসম্পাদনা

ফ্লিপকার্ট অধিগ্রহণ করা বিভিন্ন কোম্পানীর তালিকা এইধরনের,

  • ২০১০: বি রিড (WeRead ),[১৩] বি রিডের মাধ্যমে ফ্লিপকার্ট নিজের গ্রাহকদেরকে বিভিন্ন সোস্যাল নেটওয়র্কিং সাইটের সাহায্যে ফ্লিপকার্টের বিভিন্ন সামগ্রীর মানদণ্ড সম্পর্কে জ্ঞাত করে।
  • ২০১১: ডিজিটাল সামগ্রীর কোম্পানী মাইম৩৬০। [১৪]
  • ২০১১: বলিউডর বিভিন্ন খবর, আলোকচিত্র এবং ভিডিওর ওয়েবসাইট চাকপাক ডট কম (Chakpak.com) তালিকা সমূহ, ফ্লিপকার্ট মোটামুটি ৪০,০০০ ফিল্মোগ্রাফী, ১০,০০০ টি চলচ্চিত্র, এবং ৫০,০০০ টা মানদণ্ড (রেটিং)র তালিকা্সমূহের স্বত্ব লাভ করে, ফ্লিপকার্টের মতে মূল ওয়েবসাইটটির সাথে তাদের কোনো সম্পর্ক নেই, বা সেই ব্রেণ্ডের নাম তারা ব্যবহার না করে।[১৫]
  • ২০১২: লেটস্ বাই ডট কম(Letsbuy.com) ভারতের দ্বিতীয় বৃহৎ ইলেকট্রনিকস সামগ্রীর অনলাইন বিক্রেতা, প্রায় $ ২৫ নিযুত ফ্লিপকার্ট লেটস বাই ডট কম ক্রয় করে[১৬][১৭]

ব্যবসায়-লাভালাভসম্পাদনা

ফ্লিপকার্টের তথ্য অনুসারে বিগত কয়েকটি বছরে তাদের বিক্রীর পরিমাণ এইধরনের, বৃত্তীয় বর্ষ ২০০৮-০৯ ৪০ নিযুত,[১৮][১৯] বৃত্তীয় বর্ষ ২০০৯-১০ে ২০০ নিযুত[২০] এবং বৃত্তীয় বর্ষ ২০১০-১১ে ৭৫০ নিযুত ।[১] গড় হিসাবে ফ্লিপকার্টে প্রতি মিনিটে প্রায় ২০টা সামগ্রীর বিক্রী হয় [২১] এই হিসাবে ২০১৪ থেকে ফ্লিপকার্টের মোট আয়ের পরিমাণ(revenue) প্রায় ৫০০০ কোটি ($১০০ কোটি) হবে ।[২২]

কার্যালয়সমূহসম্পাদনা

কোম্পানীর মুখ্য কার্যালয় ব্যাঙ্গালোরের কোরামাংগলাতে অবস্থিত, তাছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে ফ্লিপকার্টের শাখা কার্যালয় এবং গুদামঘর আছে, মুখ্য গুদাম ঘর সমূহ নিচের শহর সমূহে অবস্থিত,

সামগ্রীসমূহসম্পাদনা

ফ্লিপকার্ট ২০১০ সালে বই বিক্রী আরম্ভ করে, ২০১০ সালে তারা তালিকাতে বিভিন্ন মিডিয়া (সংগীত, চলচ্চিত্র এবং ভিডিও গেমস) এবং মোবাইল ফোন অন্তর্ভুক্ত করে। ২০১১ সালে ক্যামেরা, কম্পিউটার, কলম এবং বিভিন্ন কার্যালয়ের সামগ্রী, কম্পিউটারের আনুষঙ্গিক সামগ্রী, গার্হস্থ্য এবং রান্নাঘরের সামগ্রী, স্বাস্থ্যরক্ষার সামগ্রী, অডিও প্লেয়ার, টেলিভিশন ফ্লিপকার্টে উপলব্ধ হয়। ২০১২ সালে এই তালিকাও সৌন্দর্য চর্চার সামগ্রী, ঘড়ি, মোনা, দিনলিপি ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত হয়।

ফ্লাইট ডিজিটাল সংগীতরর দোকানসম্পাদনা

ফেব্রুয়ারি ২০১২ ফ্লিপকার্ট ফ্লাইট ডিজিটাল সংগীতের দোকান আরম্ভ করে।[২৩] ফ্লাইট থেকে গ্রাহক যেকোনো ডিজিটাল সংগীত কেনার পর ডাউনলোড করতে পারে।[২৪]

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Rahul Jayaram। "Binny Bansal – The flip side of an e-venture"Mint (newspaper)। ১০ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মে ২০১১ 
  2. "ফ্লিপকার্ট ডট কম Site Info"। এলেক্সা ইন্টারনেট। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 
  3. http://www.flipkart.com/s/help/payments
  4. http://www.business-standard.com/india/news/cashdelivery/401747/
  5. Archana Rai (৩০ জুন ২০১০)। "Flipkart: Country's largest online bookstore"The Economic Times। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১০ 
  6. গীতিকা রস্তোগী (৪ আগস্ট ২০১০)। "Now order your next mobile on Flipkart"Livemint। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১০ 
  7. http://www.flipkart.com/about-us
  8. Chirag Chamoli। "Interview With Binny Bansal Of Flipkart.Com"iamstarting.com। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুন ২০১১ 
  9. Sinha। "Accel India Invests in Flipkart"pluggd.in। ১৯ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০১১ 
  10. "Flipkart Raises $150Mn From Accel Partners, Tiger Global"। ৩১ জানুয়ারি ২০১২। ১৩ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ মে ২০১২ 
  11. Sudipta Datta (৭ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "A Tale of Two Book Fairs"Financial Express। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১০  অজানা প্যারামিটার |coauthors= উপেক্ষা করা হয়েছে (|author= ব্যবহারের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে) (সাহায্য)
  12. "Inlogistics: India's first private train cargo operator"CNBC-TV18। ১৮ মার্চ ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১০ 
  13. "Flipkart Buys Social Book Discovery Tool WeRead"VCCircle। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুন ২০১১ 
  14. Nikhil Pahwa। "Flipkart Acquires Mime360; To Launch Digital Distribution Of Music, E-books, Games"medianama.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১১ 
  15. "Flipkart Acquires Digital Content From Bollywood News Site Chakpak"VCCircle। ২৩ নভেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১১ 
  16. "Updated: It's Official Flipkart Acquires LetsBuy.com"medianama.com। ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 
  17. "Flipkart Buys Letsbuy in Cash-Equity Deal"Business Standard। ১১ মে ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 
  18. "Cash on delivery"Business Standard। ১৯ জুলাই ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১০ 
  19. Dua, Aarti (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "A winning chapter"The Daily Telegraph। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১০ 
  20. "Bibliofile:A Garage Takes Off"Outlook। ২২ মার্চ ২০১০। ৩০ অক্টোবর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ আগস্ট ২০১০ 
  21. Nikhil Menon (৯ সেপ্টেম্বর ২০১১)। "e-Commerce: Can the dotcom majors cope with their rising expectations?"The Economic Times। India। 
  22. Tyagi, Akshay। "How Flipkart Helped India Realise Its E-Commerce Dream!"। The TechIRIS। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১২ 
  23. Lal, Abhinav (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১২)। "Flipkart to launch 'Flyte Digital Store' in March"Digit। India: 9.9 Media। সংগ্রহের তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 
  24. Vikas। "Flipkart launches new music download store."। ৫ মে ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৮