প্রধান মেনু খুলুন

প্রলেতারিয় বিপ্লব ও দলদ্রোহী কাউৎস্কি

প্রলেতারীয় বিপ্লব ও দলদ্রোহী কাউৎস্কি (রুশ: ПРОЛЕТАРСКАЯ РЕВОЛЮЦИЯ И РЕНЕГАТ КАУТСКИЙ) হচ্ছে ১৯১৮ সালের অক্টোবরে ভ্লাদিমির লেনিন লিখিত বই যেখানে তিনি সুবিধাবাদের উপর প্রচণ্ড আঘাত হানেন। বুর্জোয়া গণতন্ত্রকে ‘বিশুদ্ধ ও শ্রেণিবহির্ভূত’ বলে দেখাবার যে চেষ্টা কার্ল কাউৎস্কি করেছিলেন, এ পুস্তকে লেনিন তার অযৌক্তিকতা খুলে দেখান।[১]

প্রলেতারীয় বিপ্লব ও দলদ্রোহী কাউৎস্কি
লেখকভ্লাদিমির লেনিন
মূল শিরোনামПРОЛЕТАРСКАЯ РЕВОЛЮЦИЯ И РЕНЕГАТ КАУТСКИЙ
দেশসোভিয়েত রাশিয়া
ভাষারুশ
প্রকাশনার তারিখ
১৯১৮

স্মৃতিকথায় ভ. দ. বঞ্চ-ব্রুয়েভিচ লিখেছেন যে ভ্লাদিমির ইলিচ ক্ষেপে উঠেছিলেন বইটি লেখার জন্য, “প্রায় আক্ষরিক অর্থেই রেগে আগুন হয়েছিলেন তিনি, গভীর রাত পর্যন্ত এই আশ্চর্য শক্তিশালী রচনাটি লিখে গেছেন”। ১৯১৮ সালে কার্ল কাউৎস্কি প্রকাশ করেন প্রলেতারীয় একনায়কত্ব। এই পুস্তিকায় তিনি সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব এবং প্রলেতারীয় একনায়কত্বের মার্কসবাদী মতবাদকে বিকৃত করেন, সোভিয়েত রাজের নিন্দা রটান এবং সর্বোপায়ে বলশেভিক পার্টির ক্রিয়াকলাপে কালিমা লেপন করতে চান। শ্রমিক শ্রেণির স্বার্থের প্রতি কাউৎস্কির বিশ্বাসঘাতকতার মুখোশ খুলে লেনিন তাঁর এই সমালোচনা করেন যে মার্কসবাদের প্রধান কথাটা — প্রলেতারীয় একনায়কত্বই তিনি মানছেন না।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. অবিচকিন, গ. দ.; অস্ত্রউখভা, ক. আ.; পানক্রাতভা, ম. ইয়ে.; স্মিনর্ভা, আ. প. (১৯৭১)। ভ্লাদিমির ইলিচ লেনিন সংক্ষিপ্ত জীবনী (১ সংস্করণ)। মস্কো: প্রগতি প্রকাশন। পৃষ্ঠা ২০৬-২০৭। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা