পার্লোফোন রেকর্ডস লিমিটেড (এছাড়াও পার্লোফোন রেকর্ডস এবং পার্লোফোন নামে পরিচিত) জার্মান-ব্রিটিশ রেকর্ড লেবেল যা ১৮৯৬ সালে কার্ল লিন্ড্রস্টম কোম্পানি কর্তৃক পার্লোফোন নামে জার্মানিতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯৩৩ সালের ৮ আগস্ট ব্রিটেনে দ্য পার্লোফোন কোম্পানি লিমিটেড (দ্য পার্লোফোন কো. লি.) নামে লেবেলটির একটি শাখা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, যা ১৯২০-এর দশকে জ্যাজ রেকর্ড লেবেল হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছিল। ১৯২৬ সালের ৫ অক্টোবর, কলাম্বিয়া গ্রাফফোন কোম্পানি পার্লোফোনের ব্যবসা, নাম, লোগো এবং প্রকাশের গ্রন্থাগার অধিকরণ করে এবং ১৯৩৩ সালের ৩১ মার্চ ইলেকট্রিক অ্যান্ড মিউজিকাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড (ইএমআই) নামে গ্রামোফোন কোম্পানিতে একীভূত হয়। জর্জ মার্টিন ১৯৫৫ সালে পার্লোফোনে সহকারী লেবেল পরিচালক হিসেবে যোগদান করেন এবং ১৯৫৫ সালে ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। মার্টিন কৌতুক অভিনেতা পিটার সেলার্স, পিয়ানোবাদক মিসেস মিলস এবং কিশোরী আইকন অ্যাডাম ফেইথ সহ বিভিন্ন শিল্পীর রেকর্ডিং প্রযোজনা এবং প্রকাশ করেছিলেন।

পার্লোফোন রেকর্ডস
Parlophone logo.svg
স্বত্বাধিকারী কোম্পানি
প্রতিষ্ঠাকাল১৮৯৬; ১২৩ বছর আগে (1896) (পার্লোফোন পার্লোগ্রাফ কোম্পানি হিসেবে) (১৯২৬ পর্যন্ত কার্ল লিন্ডস্ট্রোম কোম্পানির অঙ্গসংস্থা)
প্রতিষ্ঠাতাকার্ল লিন্ডস্ট্রোম
পরিবেশকস্ব-বিতরণ
(যুক্তরাজ্য/ইউরোপের বেশিরভাগ অংশে)
ওয়ার্নার রেকর্ডস
(মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে)
ডব্লিউইএ ইন্টারন্যাশনাল
(ইউকে/ইউরোপ এবং ইউএস-এর বাইরে)
রাইনো এন্টারটেইনমেন্ট কোম্পানি (পুন:প্রকাশ)
ধরনবিভিন্ন
দেশযুক্তরাজ্য
প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইটparlophone.co.uk

১৯৬২ সালে, মার্টিন চুক্তিস্বাক্ষর করেছিলেন সেই সময়কার লিভারপুলের সংগ্রামী ব্যান্ড দ্য বিটল্‌সের সাথে। ১৯৬০-এর দশকে, যখন সিল্লা ব্ল্যাক, বিলি জে. ক্রামার, দ্য ফোরমোস্ট এবং দ্য হলিস প্রমুখের চুক্তিস্বাক্ষরের পরপর পার্লোফোন বিশ্বের অন্যতম লেবেল হয়ে ওঠে। বেশকয়েক বছর ধরে, পার্লোফোন তাদের সর্বাধিক বিক্রিত ইউকে একক, "শি লাভ্‌স ইউ" এবং সর্বাধিক বিক্রিত ইউকে অ্যালবাম, সার্জেন্ট পিপার্স লোনলি হার্টস ক্লাব ব্যান্ড উল্লেখ করেছে। দুটি কাজই বিটল্‌সের। ১৯৬৪ সালে লেবেলটির সাতটি একক চার্টের শীর্ষ অবস্থানে ছিল, যখন এটি ৪০ সপ্তাহের জন্য ইউকে অ্যালবাম চার্টে শীর্ষ স্থান দখল করে। ১৯৬৫ সালের ১ জুলাই গ্রামোফোন কোম্পানির সাথে একীভূত হওয়ার আগ পর্যন্ত পার্লোফোন ইএমআই-এর একটি বিভাগ হিসেবে অব্যাহত ছিল। ১৯৭৩ সালের ১ জুলাই গ্রামোফোন কোম্পানির নতুন নামকরণ করা হয় ইএমআই রেকর্ডস লিমিটেড।

২০১২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর ইউনিভার্সাল মিউজিক গ্রুপের (ইউএমজি) অধিগ্রহণের পরিকল্পনা করেছিল এই শর্তে যে এর ইএমআই রেকর্ডস গ্রুপটি সম্মিলিত গ্রুপ থেকে বিভক্ত হতে হবে। ইএমআই রেকর্ডস লিমিটেডে পার্লোফোন এবং অন্যান্য লেবেলগুলিসহ অন্তর্ভুক্ত ছিল এবং পারলোফোন লেবেল গ্রুপ (পিএলজি) নামে পরিচিত একটি একক সত্তায় অল্প সময়ের জন্য পরিচালিত হয়েছিল। শেষে ইউএমজি তাদের বিক্রি বন্ধ করে দেয়। ওয়ার্নার মিউজিক গ্রুপ (ডাব্লুএমজি) ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে পার্লোফোন এবং পিএলজি অধিগ্রহণ করে নিয়ে, ওয়ার্নার এবং আটলান্টিক রেকর্ডসের পাশাপাশি তাদের তৃতীয় ফ্ল্যাগশিপ লেবেল পার্লোফোন তৈরি করে। ২০১৩ সালের মে মাসে পিএলজিকে পার্লোফোন রেকর্ডস লিমিটেড নামকরণ করা হয়ে। পার্লোফোন ডাব্লুএমজি-র "ফ্ল্যাগশিপ" রেকর্ড লেবেলগুলির মধ্যে প্রাচীনতম।

পার্লোফোন রেকর্ড লেবেলসম্পাদনা

এখানে প্রদর্শিত লেবেলগুলিতে ১৯৭৮-এর এলপি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ৭" এককের জন্য লেবেল নকশায় অন্যান্য ইএমআই লেবেলের মতো একই স্ট্যান্ডার্ড টেম্পলেট বজায় ছিল, ডানদিকে ছিল বড় "৪৫" ইনজিনিয়া। সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, নকশার অভিন্নতা প্রকাশ ক্রমে শিথিল হচ্ছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা