পশ্চিমবঙ্গ সিভিল সার্ভিস

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পরিষেবা

পশ্চিমবঙ্গ সিভিল সার্ভিস যা প্রকৃতপক্ষে ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিল সার্ভিস (এক্সিকিউটিভ), যা WBCS (এক্সে) নামে পরিচিত, এটি ভারতীয় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গের বেসামরিক প্রশাসন ব্যবস্থা। ডব্লিউবিসিএস (এক্স) এবং অন্যান্য সমস্থানীয় পদের জন্য পশ্চিমবঙ্গের পাবলিক সার্ভিস কমিশন প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় প্রতিবছর তিনটি পর্যায়ে আয়োজন করে। এই পর্যায়গুলি প্রাথমিক, প্রধান এবং সাক্ষাৎকার। পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর এবং মেধার উপর ভিত্তিতে করে যেমন নিয়োগে বিভিন্ন গ্রুপ আছে। এই গ্রুপগুলি হল গ্রুপ এ, গ্রুপ বি (শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ সার্ভিসের জন্য), গ্রুপ সি এবং গ্রুপ ডি। ডব্লিউবিসিএস (এক্স) কর্মকর্তারা গ্রুপ এ -এর অন্তর্গত। সাধারণভাবে, ডব্লিউবিপিএসসি- এর রেকর্ড অনুযায়ী উচ্চতর স্কোরের প্রার্থীরা তাদের প্রথম পছন্দ হিসাবে ডব্লিবিসিটিএস, ডব্লিডবিপিএস এবং ডব্লিউবিসিএস (Exe) এর জন্য বেছে নেয়। ১৯৮৮ সাল থেকে শীর্ষস্থানীয় পরীক্ষাত্রীরা তাদের প্রথম পছন্দ হিসাবে পশ্চিমবঙ্গ বাণিজ্যিক কর পরিষেবা বেছে নিয়েছে। কর্মকর্তারা সিভিল সার্ভিস অফিসারদের ক্যাডারের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত।

ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিল সার্ভিস
পশ্চিমবঙ্গ জনপালন সেবা
পরিষেবার সংক্ষিপ্ত বিবরণ
প্রতিষ্ঠা১৯৫০; ৭৪ বছর আগে (1950)[১]
রাষ্ট্রভারত
স্টাফ কলেজ
  • প্রশাসনিক প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান, সল্টলেক, সেক্টর-৩, কলকাতা (কার্যনির্বাহী)
  • স্বামী বিবেকানন্দ রাজ্য পুলিশ একাডেমি, ব্যারাকপুর (পুলিশ)
ক্যাডার নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষস্বরাষ্ট্র ও পার্বত্য বিষয়ক দপ্তর
মদায়িত্বশীল মন্ত্রীমমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীস্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
আইনগত ব্যক্তিত্বসরকারি; জনপালন সেবা
কর্তব্যনীতি প্রণয়ন
নীতি বাস্তবায়ন
জন প্রশাসন
আমলাতান্ত্রিক ব্যবস্থাপনা
সাচিবিক সহায়তা
ক্যাডার শক্তি১৬৪৬ জন সদস্য (গ্রুপ-এ) (২০১৯)[২]
৪৫৪ জন সদস্য (গ্রুপ-বি)[৩]
Selectionপশ্চিমবঙ্গ পাবলিক সার্ভিস কমিশন (ডব্লিউবিপিএসসি)
সফলতার মাত্রা০.৫%
সিভিল সার্ভিসের প্রধান
প্রধান সচিবশ্রী এইচ. কে. দ্বিবেদী, আইএএস[৪]

ক্রিয়াকলাপ

সম্পাদনা

ডব্লুবিসিএস (এক্স) অফিসারগণ সাধারণত ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট বা ডেপুটি কালেক্টর পদে নিয়োগ লাভ করেন এবং প্রশাসনিক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের তত্ত্বাবধানে দুই বছরের বাধ্যতামূলক প্রশাসনিক প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হওয়ার পর ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট এবং ডেপুটি কালেক্টর এবং ব্লক ডেভেলপমেন্ট (বিডিও) কর্মকর্তা নিসাবে নিয়গো করা হয়। তারা কার্যনির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের আদেশও পাস করে এবং ফৌজদারী কার্যবিধির কোডের কিছু অংশ নির্ণয় করে। ক্যাডারের কর্মকর্তারা রাজ্যের বিভিন্ন বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ে প্রধান প্রশাসনিক কার্য সম্পাদন করেন। ডব্লুবিসিএস (Exe) অফিসারগুলি অর্জন করতে পারে বিভাগীয় সচিবের উচ্চতর পদ। পশ্চিমবঙ্গের জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের তিনটি পদ এই কর্মকর্তাদের জন্য সংরক্ষিত। অল ইন্ডিয়া সার্ভিসেস (আইএএস) অফিসার হওয়ার জন্য ডব্লিউবিসিএস (এক্স) অফিসারগণও তাদের কর্মজীবনের পরবর্তী পর্যায়ে মনোনীত হতে পারেন।

পরীক্ষার বিবরণ

সম্পাদনা

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মচারী নিয়োগের পরীক্ষায় হল ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিল সার্ভিস ( এক্সিকিউটিভ ) । পরীক্ষাটি চারটি গ্রুপের (A,B,C,D ) অফিসার নিয়োগের জন্য হ​য় , গ্রুপ-বি কেবল মাত্র পুলিশ বিভাগের জন্য ।পরীক্ষাটি নেয় ওয়েস্ট বেঙ্গল পাবলিক সার্ভিস কমিসন ।

ফর্ম ফিলাপের সম​য় পরীক্ষার্থিদের কাছে দুটি অপসন থাকে যে ,চারটি গ্রুপের জন্য পরীক্ষা দিতে চাও ,না, কেবল মাত্র সি, ডি গ্রুপের জন্য পরীক্ষা দিতে চাও ?

চারটি গ্রুপের জন্য কেউ যদি পরীক্ষা দিতে চায় তাহলে তাকে মেনে অতিরিক্ত একটি অপসনাল বিষ​য়ে পরীক্ষা দিতে হ​য় যার দুটি পেপার থাকে ২০০+২০০ মোট ৪০০ নম্বরের । ৩+৩ মোট ৬ ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষা ।

ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিল সার্ভিস পরীক্ষাটি নেওয়া হ​য় তিনটি ধাপে ,প্রিলিমিনারি , মেন এবং ইন্টারভিউ ।

পরীক্ষাটি দেবার জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা যেকোন বিষয়ে স্নাতক হলেই হবে ।( অনার্স অথবা পাস কোর্সে )। ব​য়স হতে হবে ২১ -৩৬ (গ্রুপ বি- এর ক্ষেত্রে ন্যূনতম ব​য়স ২০ ,D গ্রুপের জন্য সর্বোচ্চ ব​য়স ৩৯ )।

প্রিলিমিনারি পরীক্ষা

সম্পাদনা

প্রিলিমিনারি পরীক্ষাটি সাধারণত জানুয়ারী বা ফেবরুয়ারী মাসে হ​য় ( আনুমানিক )। ফর্ম বেরোয় নভেম্বর মাস নাগাদ( আনুমানিক ) । পরীক্ষাটি একটি পেপারের উপর হ​য় সেটি জেনারেল স্টাডিস । ২০০ নম্বরের পরীক্ষা সম​য় আড়াই ঘণ্টা । নেগেটিভ মার্কিং থাকে ১/৩।

জেনারেল স্টাডিস পেপারটি ৮টি বিষ​য়ের উপর এম.সি.কিউ (MCQ) পরীক্ষা হ​য় ,প্রতিটি বিষ​য়ের উপর এক নম্বর করে ২৫ টি প্রশ্ন থাকে । মোট ৮ গুণ ২৫ = ২০০ নম্বরের ২০০টি প্রশ্ন। (এখানে মোটামুটি ১২০ র কাছাকাছি তুলতে পারলেই মেন পরীক্ষা বসার অনুমতি মেলে ।)

জেনারেল স্টাডিসের এই ৮টি বিষ​য় হল-

১। ইংরেজি রচনা

২। সাধারন বিজ্ঞান

3। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গুরুত্বের বর্তমান ঘটনা

৪। ভারত ইতিহাস

৫। পশ্চিমবঙ্গের বিশেষ রেফারেন্স দিয়ে ভারতের ভূগোল

৬। ভারতীয় শাসন ও অর্থনীতি

৭। ভারতীয় জাতীয় আন্দোলন

৮। সাধারণ মানসিক ক্ষমতা

পশ্চিমবঙ্গ পাবলিক সার্ভিস কমিশন WBCS 2022-এর প্রিলি পরীক্ষার ফলাফল করেছে। WBCS প্রিলিমিনারি পরীক্ষা গোটা রাজ্যে কলকাতা এবং পশ্চিমবঙ্গের অন্যান্য পরীক্ষা কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়।

প্রকাশিত হল রাজ্য পাবলিক সার্ভিস কমিশনের ডব্লুবিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা, ২০২২ ফলাফল। পিএসসির ওয়েবসাইটে ফলাফল আপলােড করে দেওয়া হয়েছে।

মােট ৫৪৯৬ জন সফল প্রার্থীর নাম প্রকাশিত হয়েছে। জাতিগত শ্রেণী অনুযায়ী কাট অফ মার্ক্স ওয়েবসাইটে দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

অসংরক্ষিত এবং ওবিসি শ্রেণীর কাট অফ মার্ক্স এসেছে ১৩০.৩৯, এসসি শ্রেণীর এসেছে ১২৪.৪৪, এসটি প্রাথীদের ১০৪.৩৭।[১]

মেন পরীক্ষা

সম্পাদনা

মেন পরীক্ষা হ​য়ে থাকে জুলাই – আগস্ট মাসে ( আনুমানিক )।

অপসনাল + কম্পালসারি দুটি প্রধান ভাগ থাকে । যারা চারটি গ্রুপের জন্য পরীক্ষা দেবে তাদের অপসনাল আর কম্পালসারি দুটো বিভাগেই পরীক্ষা দিতে হবে । আর যারা কেবলমাত্র সি ও ডি গ্রুপের জন্য পরীক্ষা দেবে তাদের কেবলমাত্র কম্পালসারি পরীক্ষা দিলেই চলবে ।

কম্পালসারি বিভাগটি ৬ টি পেপারের ওপর হ​য় ।

বিষয়গুলি হল,

১.বাংলা /নেপালি/ হিন্দি /সাঁওতালি /উর্দু /নেপালি ) : চিঠি লিখন/ প্রতিবেদন লিখন , প্রেসি , গ্রামার , বঙ্গানুবাদ( যারা বাংলা নেবে )

২. ইংরেজি : লেটার রাইটিং / রিপোর্ট রাইটিং , প্রেসি , গ্রামার , ট্রান্সলেসন ।

(১ এবং ২ বিষ​য় দুটি লিখিত হ​য় । বাকি চারটি বিষয় এম.সি.কিউ ( MCQ) টাইপের । নেগেটিভ মার্কিং থাকে ১/৩ । সবগুলি পেপার হ​য় ২০০ নম্বর করে । )

বাকি চারটি পেপার হল (৩,৪,৫ ও ৬),

৩. জেনারেল স্টাডিস 1: Indian history with special emphasis on National Movement. Geography of India With Special Reference to West Bengal.

৪.জেনারেল স্টাডিস 2: Science and Scientific & Technological advancement, Environment, General Knowledge and Current Affairs.

৫. The Constitution of India and Indian Economy including role and functions of Reserve Bank of India.

৬. Arithmetic and Test of Reasoning.

বেতন ও ভাতা

সম্পাদনা

অন্যান্য সরকারি কর্মীদের ন্যায় সিভিল সার্ভিস অফিসারদের বেতন ও ভাতা বিভিন্ন ভাগে বিভক্ত। এদের বেতন কাঠামো দুটি ভাগে রয়েছে : পে ব্যান্ড ও গ্রেড পে। এর পরিমান বিভিন্ন পদ ও বিভাগে বিভিন্ন রকম হতে পারে।

সাম্প্রতিক উদাহরণে , একজন এক্সেকিউটিভ সিভিল সার্ভিস অফিসার এর মাসিক পে ব্যান্ড ৯,০০০ রুপি হতে ৪০,৫০০ রুপি ও গ্রেড পে ৫,৪০০ রুপি। সেক্ষেত্রে কর্মজীবনের প্রারম্ভে তার বেতন ও ভাতা নিম্নরূপ :

ক্যাটাগরী সূত্র পরিমান
বেসিক পে পে ব্যান্ড + গ্রেড পে ১৪,৪০০/-
মহার্ঘ ভাতা বেসিক পে এর ১১০%* ১৫,৮৪০/-
ঘর ভাড়া ভাতা বেসিক পে এর ২০% ২,৮৮০/-
বিবিধ ভাতা বেসিক পে এর ৪০% ৫,৭৬০/-
সর্বমোট - ৩৮,৮৮০/-
  • কেন্দ্রীয় সরকারে মহার্ঘ ভাতা বেসিক পে এর ১২৫%

প্রভিডেন্ড ফান্ড ও অন্যান্য ক্ষেত্রে ১৫% কেটে নেয়া হয়।

ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী(যদি কার্যকর হয় ) বেতন ও ভাতা নিম্নরূপ :

ক্যাটাগরী সূত্র পরিমান
বেসিক পে পে ব্যান্ড + গ্রেড পে ১৪,৪০০/-
মহার্ঘ ভাতা বেসিক পে এর ১২৫% ১৮,০০০/-
মূল বেতন (বেসিক+মহার্ঘ) পে এর ১৪.২২% ৩৭,০০০/-
ঘর ভাড়া ভাতা মূল বেতনের এর ১২% ৪,৪৪০/-
বিবিধ ভাতা বেসিক পে এর ৪০% ৭,২০০/-
সর্বমোট - ৪৮,৬৪০/-

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. About PSC, West Bengal wbpsc.gov.in
  2. "WBCS officers list as on 01-09-2019" (পিডিএফ), Government of West Bengal 
  3. "WBPS officers list 2018" (পিডিএফ), WBP, ২৬ আগস্ট ২০১৮ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা, সংগ্রহের তারিখ ৯ মার্চ ২০২২ 
  4. "H K Dwivedi is new chief secretary of Bengal"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মে ২০২১ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা

টেমপ্লেট:বেসামরিক চাকরি