পর্তুগালের ভূগোল

মাদেইরা ও আজোরেস দ্বীপপুঞ্জকে গণনায় ধরে পর্তুগালের মোট আয়তন ৯২,৩৫৫ বর্গকিলোমিটার। পর্তুগালের মূল ভূখণ্ড আইবেরীয় উপদ্বীপের পশ্চিমের এক-ষষ্ঠাংশ এলাকা জুড়ে অবস্থিত। পর্তুগালের পশ্চিমে দৈর্ঘ্য বরাবর আটলান্টিক মহাসাগর, পূর্বে স্পেনীয় সীমান্ত। প্রায় গোটা স্পেন জুড়ে মেসেতা সেন্ত্রাল নামের যে মালভূমি অবস্থিত, তারই পশ্চিম ঢাল পর্তুগালের পূর্বাঞ্চল গঠন করেছে। পর্তুগালের উত্তরভাগ রুক্ষ ও পাহাড়ি। উত্তরে মেসেতা সেন্ত্রালের প্রান্ত থেকে অনেকগুলি পর্বত গোটা উত্তরাঞ্চল জুড়ে প্রসারিত। এগুলি ১২০০ মিটারের ও বেশি উচ্চতাবিশিষ্ট হতে পারে। পশ্চিমে ও দক্ষিণে পাহাড়গুলি ধীরে ধীরে নিচে নেমে একটি বড় উপকূলীয় সমভূমিতে পরিণত হয়েছে। এই সমভূমিটিতে ব্যাপক কৃষিকাজ সম্পন্ন হয় এবং এখানে নগরায়নের হার ক্রমে বৃদ্ধি পাচ্ছে। পর্তুগালের দুই বৃহত্তম শহর লিসবন ও পোর্তু এখানেই অবস্থিত।

পর্তুগালের উপগ্রহ চিত্র

পর্তুগালের মধ্যভাগে উপকূল থেকে ভেতরে সুউচ্চ পর্বতশ্রেণী রয়েছে। এখানে পর্তুগালের সর্বোচ্চ পর্বত মালহাঁউ দি এস্ত্রেলা (Malhão de Estrela) অবস্থিত; এর উচ্চতা ১,৯৯১ মিটার। মধ্য পর্তুগালের পর্বতগুলি দক্ষিণ-পশ্চিমে নেমে গিয়ে সিন্ত্রা শহরের কাছে পাহাড়ের সাথে মিলে গেছে। তেজু নদীর দক্ষিণে মূলত ঢেউখেলানো সমভূমি যা আলেঁতেজু অঞ্চল নামে পরিচিত। পর্তুগালের একেবারে দক্ষিণে অঞ্চলটির নাম আলগার্ভি; এটি আলেঁতেজুর সমভূমিগুলি থেকে সের্‌রা দি মোঁচিকি পর্বতশ্রেণী দ্বারা বিচ্ছিন্ন।

তেজু, দৌরু, মিনিউ পর্তুগালের তিনটি প্রধান নদী।