নিরুপমা রাজেন্দ্র

নিরুপমা রাজেন্দ্র হলেন ভরতনাট্যম এবং কত্থক নৃত্যের একজন উল্লেখযোগ্য ভারতীয় শাস্ত্রীয় নৃত্যশিল্পী। তিনি কর্ণাটকের ব্যাঙ্গালোরে থাকেন। নিরুপমা এবং তাঁর স্বামী রাজেন্দ্র (কন্নড়: ನಿರುಪಮ ಮತ್ತು ರಾಜೇಂದ್ರ) একসঙ্গে কত্থক পরিবেশন করেন। নৃত্যকে আরও সহজলভ্য করার লক্ষ্যে তাঁরা ১৯৯৪ সালে অভিনব নৃত্য কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁরা ঐতিহ্যগত এবং সমসাময়িক নৃত্য শৈলীকে মিশ্রিত করে নতুন ধরণের নৃত্যশৈলী সৃষ্টির জন্য পরিচিত। এই নৃত্য জুটি অনেকগুলি অনেক নৃত্য প্রদর্শন করেছেন, তাঁরা নাট্য ময়ূরী ও নাট্য ময়ূরা (১৯৯৮), কর্ণাটক কলাশ্রী (২০১১) এবং নৃত্য চূড়ামণি সহ বেশ কয়েকটি পুরস্কার পেয়েছেন।

নিরুপমা রাজেন্দ্র
"বঘা নন্দীশ্বর মন্দিরে" ভরতনাট্যম নৃত্যরত নিরুপমা।
জন্ম
পেশাঅভিনব ডান্স কোম্পানির নৃত্যশিল্পী ও শৈল্পিক পরিচালক
নৃত্যভরতনাট্যম, কত্থক
ওয়েবসাইটwww.abhinavadancecompany.com

প্রাথমিক জীবন সম্পাদনা

 
রাজেন্দ্র মহা মায়া নৃত্য উৎসবে প্রদর্শন করছেন, রবীন্দ্র কলাক্ষেত্র, বেঙ্গালুরু ২০১৩ সালে

ছোটবেলা থেকেই নিরুপমার নাচের প্রতি ঝোঁক ছিল। তিনি পাঁচ বছর বয়সে ভরতনাট্যমে তাঁর আনুষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ শুরু করেন। তিনি নাচকে অভিব্যক্তির একটি প্রধান রূপ হিসাবে দেখেছিলেন এবং এই অনুভব মানুষের সাথে ভাগ করে নিয়ে আনন্দ পেতেন। গুরু মায়া রাও- এর তত্ত্বাবধানে কত্থক নৃত্যের প্রতি তাঁর অনুরাগ শুরু হয়। তিনি ছোটবেলায় কত্থক এবং ভরতনাট্যম উভয়ই শিখেছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবন সম্পাদনা

কিশোর বয়সেই রাজেন্দ্রের সঙ্গে নিরুপমার দেখা হয়েছিল, তিনি এবং রাজেন্দ্র উভয়েই তাঁদের গুরু মায়া রাও এর কাছে প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন। নিরুপমা ব্যাঙ্গালোরের মাউন্ট কারমেল কলেজের একজন প্রাক্তন ছাত্র। ২৫ বছর বয়সে, তাঁরা বিয়ে করেন এবং তরুণ নৃত্যশিল্পী হিসাবে নৃত্যজীবন শুরু করেন, তাঁরা পরিদর্শন শিল্পকলাকে নিজেদের ভবিষ্যত জীবন হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন। দম্পতি অভিজ্ঞ হওয়ার সাথে সাথে তাঁদের যাত্রাপথ ছিল পরীক্ষা, প্রশিক্ষণ এবং অনুশীলন দিয়ে সাজানো। আজ তাঁরা শিল্পী হিসাবে ব্যাপকভাবে স্বীকৃত, তাঁরা তাঁদের নৃত্য সংস্থা অভিনব-এর মাধ্যমে কত্থকে একটি নতুন এবং আধুনিক মোড় দিয়েছেন।[১] [২]

অভিনব নৃত্য সংস্থা সম্পাদনা

১৯৯৪ সালে "অভিনব" প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল একটি উদ্দেশ্য নিয়ে। সেটি ছিল ভারত এবং সারা বিশ্বের দর্শকদের কাছে ঐতিহ্যবাহী ভারতীয় নৃত্যের ধরনগুলিকে সহজলভ্য করে তোলা। নৃত্য সংস্থাটি বিভিন্ন নৃত্য পরিকল্পনা করেছে যেখানে ঈশ্বর এবং প্রকৃতি উভয়েই মূর্ত হয়েছে।

ঐতিহ্যের সাথে গভীরভাবে জড়িত, এই জুটি একটি অনন্য উপস্থাপনা শৈলী নিয়ে এসেছেন। ঐতিহ্যগত ও সমসাময়িক নৃত্যের সঙ্গে তাঁরা জ্যাজ, স্প্যানিশ, আফ্রো এবং ওয়ার্ল্ড মিউজিকের মতো সঙ্গীত ঘরানার সংমিশ্রণ করেছেন। ঐতিহ্যগত শিল্পের সাথে সমসাময়িককে একীভূত করার শৈলীটি কুমুদিনী লাখিয়া দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিল।[৩] অভিনব নৃত্য কোম্পানি শাস্ত্রীয় নৃত্যকে পুনরুজ্জীবিত করেছে, শিল্পের মৌলিকত্বের কথা মাথায় রেখে। তাঁদের মূল লক্ষ্য ছিল নতুন কৌশল এবং শৈলী অন্তর্ভুক্ত করার সময় নৃত্যের প্রকৃত নির্যাসটি ধরে রাখা।

প্রদর্শন সম্পাদনা

নিরুপমা, তাঁর কর্মজীবন জুড়ে, বিভিন্ন ইভেন্টের জন্য নৃত্যপরিকল্পনা করেছেন এবং পরিবেশন করেছেন। তাঁদের নৃত্য কোম্পানি মদনোৎসভ নামে একটি বার্ষিক উৎসবের আয়োজন করে,[৪] যেখানে জীবন এবং বসন্ত ঋতুর উদযাপন করা হয়। কিছু উল্লেখযোগ্য পরিবেশনা হল:

  • হর্ষিকা - ২০২০
  • উৎসব পর্ব -২০২০ - ৩ দিন ধরে - ১ম দিন - রামকথা বিস্ময় (রামায়ণ),[৫] ২য় দিন - আন্তঃবিভাগীয় সম্মেলন, ৩য় দিন - মদনোৎসব (বসন্ত উদযাপন)
  • কলা দ্বারকা - ২০২০ - অনলাইন নৃত্য উৎসব[৬]
  • রাসানন্দ (কৃষ্ণের প্রতি ভালবাসা)
  • কৃষ্ণা - ফায়ার টু ফ্রস্ট - ২০১৯ - দ্রৌপদীর উপর ভিত্তি করে
  • ওজাস - কৃষ্ণের সমর্পণ - ২০১০
 
২০১৩ সালে বেঙ্গালুরুর চৌদিয়া মেমোরিয়াল হলে রাজেন্দ্র ওজাস পরিবেশনা

পুরস্কার এবং স্বীকৃতি সম্পাদনা

পরিবেশন শিল্পকলার ক্ষেত্রে তাঁদের অসাধারণ অবদানের জন্য, এই জুটি বিভিন্ন পুরস্কার পেয়েছেন যেমন:

  • নিরুপমা - নাট্য ময়ূরী - (১৯৯৮)
  • রাজেন্দ্র - নাট্য ময়ূরা- (১৯৯৮)
  • পরিবেশন শিল্পকলার ক্ষেত্রে তাঁদের অসামান্য অবদানের জন্য কর্ণাটক কলাশ্রী পুরস্কার- (২০১১)
  • কৃষ্ণ গণ সভার মর্যাদাপূর্ণ নৃত্য শিরোনাম নৃত্য চুড়ামণি
  • ২০১৩ সালে, নিরুপমা-রাজেন্দ্রকে সম্মানিত করা হয়েছিল, ব্যাঙ্গালোরের রবীন্দ্র কলাক্ষেত্রে মহা মায়াতে, নৃত্যশিল্পী ইউএস কৃষ্ণা রাওকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য আয়োজিত একটি নৃত্য উৎসবে তাঁদের অবদানের জন্য।[৭]

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "What's kept dancer couple Nirupama and Rajendra together? - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-২৮ 
  2. "Taking the pandemic in their stride"Deccan Herald (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১১-০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-২৮ 
  3. Swaminathan, Chitra (২০১৬-১২-০১)। "An interesting story unfolds"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-২৮ 
  4. Govind, Ranjani (২০১৮-০৩-২১)। "Day-long dance, music and games"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-২৮ 
  5. "Dance, drama, Disney and more in Rama Katha Vismaya"Express News Service। ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০২০ 
  6. "Taking the pandemic in their stride"Deccan Herald (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১১-০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-২৮ 
  7. "Award for the dancing duo Nirupama Rajendra at Maha Maya"। www.narthaki.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৯-১৮ 

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা