নিরাপত্তা বন্ধনী

মোটরযানে ব্যবহৃত নিরাপত্তামূলক সরঞ্জাম যাতে সংঘর্ষের সময় বা হঠাৎ থেমে যাবার সময় আরোহীর দেহে আঘাত না লাগে

নিরাপত্তা বন্ধনী (ইংরেজি: Seat belt বা Safety belt) মোটরচালিত যানবাহনে আরোহীদের নিরাপত্তার জন্য ব্যবহৃত একটি সরঞ্জাম। নিরাপত্তা বন্ধনী গাড়ির সাথে অন্য কোনও কিছুর সংঘর্ষের সময় কিংবা গাড়ি হঠাৎ থেমে গেলে বা উলটে গেলে আরোহীর শরীর সামনে বা অন্য কোনও দিকে ছিটকে গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হবার সম্ভাবনা অনেকাংশে হ্রাস করে। নিরাপত্তা বন্ধনীর সুবাদে আরোহী মৃত্যু বা গুরুতর জখমের হাত থেকে রক্ষা পান। নিরাপত্তা বন্ধনীর কারণে গাড়ির বহিঃস্থ সংঘর্ষের ফলশ্রুতিতে গাড়ির অভ্যন্তরে গৌণ অভিঘাতের (Secondary impact) সম্ভাবনা কমে যায়। এছাড়াও এটি গাড়ি-আরোহীর দেহকে সঠিক অবস্থানে ধরে রাখে, যাতে গাড়ির ভেতরে আঘাতরোধী বাতাসথলির (Airbag) সর্বোচ্চ কর্মক্ষমতা নিশ্চিত হয়।

একজন নারী মোটরগাড়িতে বসে তিন-বিন্দুর (ইংরেজি Y-আকৃতির) নিরাপত্তা বন্ধনী পরিধান করছেন।

গাড়ি রাস্তায় চলার সময় গাড়ির চালক ও আরোহী উভয়েই গাড়ির সমান দ্রুতিতে ভ্রমণ করে। যদি গাড়ির চালক হঠাৎ গাড়ি থামিয়ে দেয়, বা গাড়িটি কোনও কিছুর সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়, তাহলে গাড়িটির গতিবেগ দ্রুত হ্রাস পায়, কিন্তু আরোহী ও চালকের দেহ দুর্ঘটনা-পূর্ববর্তী বেগেই সামনে যেতে চায়। নিরাপত্তা বন্ধনী চালক ও আরোহীর দেহে বিপরীতমুখী বল প্রয়োগ করে, ফলে তারা গাড়ি থেকে ছিটকে বাইরে বেরিয়ে যেতে পারে না, কিংবা গাড়ির অভ্যন্তরভাগের সাথে লেগে আঘাতপ্রাপ্ত হয় না। নিরাপত্তা বন্ধনীকে মৌলিক লাগাম ব্যবস্থাগুলির (Primary Restraint Systems) একটি হিসেবে গণ্য করা হয়, কেননা এটি গাড়ির আরোহীর নিরাপত্তায় অপরিহার্য ভূমিকা পালন করে।