দ্য বুক অব স্নবস

দ্য বুক অব স্নবস হল উইলিয়াম ম্যাকপিস থ্যাকারির ব্যঙ্গধর্মী রচনার সংকলন। এটি ১৮৪৮ সালে গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়। এর পূর্বে এটি ১৮৪৬ সালের ২৮শে ফেব্রুয়ারি থেকে ১৮৪৭ সালের ২৭শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৫৩ সপ্তাহ পাঞ্চ পত্রিকায় "দ্য স্নবস অব ইংল্যান্ড, বাই ওয়ান অব দেমসেলভস" নামে প্রকাশিত হয়। বইটি ব্যাপক জনপ্রিয় হয় এবং থ্যাকারিকে বিপুল জনপ্রিয়তা পাইয়ে দেয়। গ্রন্থাকারে সংকলনের পূর্বে বইটি "নিগূঢ়ভবে পরিমার্জন" করা হয় এবং সাম্প্রতিক রাজনৈতিক বিষয়সমূহ তথা ১৭-২৩ নং ভুক্তিগুলি বাদ দেওয়া হয়।[১]

দ্য বুক অব স্নবস
Book of Snobs-Première de couverture.jpg
প্রথম সংস্করণের প্রথম পাতা
লেখকউইলিয়াম ম্যাকপিস থ্যাকারি
মূল শিরোনামThe Book of Snobs
অঙ্কনশিল্পীউইলিয়াম ম্যাকপিস থ্যাকারি
দেশযুক্তরাজ্য
ভাষাইংরেজি
ধরনব্যঙ্গ রচনা
প্রকাশকপাঞ্চ
প্রকাশনার তারিখ
১৮৪৮
মিডিয়া ধরনমুদ্রিত
আইএসবিএন0-8095-9672-5

"স্নব" শব্দের উৎপত্তিসম্পাদনা

স্নবারি অভিধানে ফিলিপ জুলিয়ান লিখেন ""স্নব" শব্দটি শুরু হয় শিষ দিয়ে এবং শেষ হয় সাবানের ফেনার মত, কিন্তু এর অর্থ দাঁড়ায় ঘৃণা ও লঘুচিত্ততা। থ্যাকারি এই বিষয়টি বুঝেছিলেন, কিন্তু তিনি এতে নৈতিক গূঢ়ার্থ যোগ করেন।[২]

থ্যাকারির অবদানসম্পাদনা

থ্যাকারি প্রথম এই শব্দটিকে ব্যবহার করেন, "আমরা এটাকে সংজ্ঞায়িত করতে পারি না। এটা কি তা আমরা বলতে পারি না। কিন্তু আমরা জানি এটা কি। এমন ছোট একটা শব্দ, যার শুরুটা শিষের শব্দের মত, কিন্তু মনে হয় এটি এর স্বাদ ত্যাগ করেছে।"[৩] ১৮৫৯ সালে ডেভিড ম্যাসন লিখেন, "জনাব থ্যাকারির জন্য, কোন সন্দেহ নেই যে স্নবারি খারাপ বিষয়, কিন্তু এটা জানা খুবই কষ্টসাধ্য ছিল যে এটা আসলে কি।"[৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. রে, গর্ডন এন. (জুন ১৯৫৫)। "Thackeray's 'Book of Snobs'" (PDF)নাইন্টিন্থ-সেঞ্চুরি ফিকশন১০ (১): ২২–৩৩। জেস্টোর 3044371ডিওআই:10.2307/3044371। সংগ্রহের তারিখ ১০ এপ্রিল ২০২০ 
  2. জুলিয়ান (২০০৬), পৃষ্ঠা ১।
  3. জ্যান (১৯৯০), পৃষ্ঠা ৫-৬।
  4. ম্যাসন (১৮৫৯), পৃষ্ঠা ২৫১।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা