চিরায়ত পদার্থবিদ্যার মতে বস্তুর সাপেক্ষে পর্যবেক্ষকের বেগ যাই হোক না কেন সকল পর্যবেক্ষকের নিকট বস্তুর দৈর্ঘ্য সমান বা অভিন্ন থাকে। কিন্তু আপেক্ষিকতা তত্ত্ব অনুসারে গতির সাথে বস্তুর দৈর্ঘ্যর পরিবর্তন ঘটে।

চাকাগুলি যা আলোর গতি ৯/১০ এ ভ্রমণ করে। চাকার শীর্ষের গতি ০.৯৯৪ সি এবং নীচের গতি সর্বদা শূন্য থাকে। এ কারণেই চাকার শীর্ষটি নীচের সাথে তুলনামূলকভাবে সংকুচিত হয়।

কোনো বস্তুকে যদি আলোর বেগে নিক্ষেপ/ভ্রমণ করানো হয় তাহলে বস্তুটির দৈর্ঘ্য হ্রাস পায়। এর রাশিমালা,

যেখানে,

L= বস্তুটির গতিশীল দৈর্ঘ্য।

= বস্তুটির নিশ্চল দৈর্ঘ্য।

v= বস্তুর বেগ।

c= আলোর বেগ (3x10^8 m/s)

সংজ্ঞা

সম্পাদনা

কোন পর্যবেক্ষকের সাপেক্ষে গতিশীল বস্তুর দৈর্ঘ্য ঐ পর্যবেক্ষকের সাপেক্ষে নিশ্চল অবস্থায় ঐ একই বস্তুর দৈর্ঘ্যের চেয়ে ছোট হয়, এই প্রভাবকে দৈর্ঘ্য সংকোচন বলা হয়।[১]

ব্যাখ্যা

সম্পাদনা

যদি পর্যবেক্ষকের সাপেক্ষে গতিশীল কোনো বস্তুর দৈর্ঘ্য হয় L এবং যদি ঐ পর্যবেক্ষকের সাপেক্ষে নিশ্চল অবস্থায় একই বস্তুর দৈর্ঘ্য হয়  ,তাহলে L সব সময়   এর চেয়ে ছোট হবে। [২]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. Dalarsson, Mirjana; Dalarsson, Nils (২০১৫)। Tensors, Relativity, and Cosmology (2nd সংস্করণ)। Academic Press। পৃষ্ঠা 106–108। আইএসবিএন 978-0-12-803401-9  Extract of page 106
  2. উচ্চ মাধ্যমিক পদার্থবিজ্ঞান,শাহাজাহান তপন। ১৫তম অধ্যায়। পৃষ্ঠা ৫৫২।