প্রধান মেনু খুলুন

দারিদ্র্যসীমা একটি কোনও ব্যক্তির আয়ের একটি সীমারেখা যা ঐ ব্যক্তির জীবনযাপনের জন্য ন্যূনতম প্রয়োজনীয় মৌলিক দ্রব্যসমূহের মূল্যের সমষ্টি। বিভিন্ন দেশের দারিদ্র্যসীমা ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। আন্তর্জাতিক দারিদ্র্যসীমা আদিতে দৈনিক ১ মার্কিন ডলার ধার্য করা হয়েছিল। যাদের দৈনিক আয় ১ ডলারের নিচে তাদেরকে চরম দারিদ্র্যে অবস্থানকারী ব্যক্তি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

দারিদ্র্যসীমা দিয়ে কোনও দেশের জনগণের জীবনযাপন কতটুকু ভালো তা নির্ধারণ করা সম্ভব নয়। কেননা সীমাটি এতই নিচে অবস্থিত যে সীমার চেয়ে বেশি আয় করলেও জীবনযাত্রার মানের তেমন কোনও উন্নতি ঘটে না। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পয়োনিষ্কাশন, পানি সরবরাহ ও বিদ্যুতের মত ব্যাপারগুলি দারিদ্র্যসীমাতে গণনা করা হয় না বলে এই সূচকটি দিয়ে জনগণের জীবনযাত্রার মান পুরোপুরি বোঝা সম্ভব নয়।

বিশ্বব্যাংক নিয়মিতভাবে আন্তর্জাতিক দারিদ্র্য সীমারেখা নির্ধারণ করে থাকে। এজন্য তারা সারা বিশ্বের সমস্ত দেশের মৌলিক খাদ্য, বস্ত্র ও বাসস্থানের খরচ হিসাব করে। ২০১৫ সালে বিশ্বব্যাংক নির্ধারিত দারিদ্র্য সীমাটি হল দৈনিক ১.৯০ মার্কিন ডলার। বিশ্বব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী ২০১৫ সালে সারা বিশ্বে প্রায় ৭০ কোটি লোক চরম দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করছে। [১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. International Poverty Line, ইনভেস্টোপিডিয়া