দাদাসাহেব ফালকে

ধুন্ডীরাজ গোবিন্দ ফালকে (মারাঠি: धुंडीराज गोविंद फाळके), যিনি দাদাসাহেব ফালকে (মারাঠি: दादासाहेब फाळके; এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ) নামে অধিক পরিচিত, (৩০শে এপ্রিল, ১৮৭০ - ১৬ই ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৪) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্রে পরিচালক ও প্রযোজক ছিলেন। তাকে ভারতীয় চলচ্চিত্রের জনক হিসেবে গণ্য করা হয়।[১][২][৩] তিনি ১৯১৩ সালে রাজা হরিশচন্দ্র চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেন যা ছিল ভারতের প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য নির্বাক চলচ্চিত্র। এরপর তিনি প্রায় চব্বিশ বছর ধরে ৯৫টি পূর্ণদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র ও ২৬টি স্বল্পদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন।

দাদাসাহেব ফালকে
Phalke.jpg
জন্ম
ধুন্ডীরাজ গোবিন্দ ফালকে

৩০ এপ্রিল, ১৮৭০
মৃত্যু১৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৪৪(1944-02-16) (বয়স ৭৩)
মাতৃশিক্ষায়তনস্যার জে. জে. স্কুল অব আর্ট
পেশাচলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক
কর্মজীবন১৯১৩-১৯৩৭

প্রথম জীবনসম্পাদনা

ধুন্ডীরাজ গোবিন্দ ফালকে ১৮৭০ খ্রিষ্টাব্দের ৩০শে এপ্রিল ব্রিটিশ ভারতের বম্বে প্রেসিডেন্সির অন্তর্গত ত্র্যম্বকেশ্বর নামক স্থানে একটি মারাঠি শিক্ষিত ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।[৪]

নির্বাচিত চলচ্চিত্রসমূহসম্পাদনা

  • রাজা হরিশচন্দ্র (১৯১৩)
  • মোহিণী ভস্মাসুর (১৯১৩)
  • সত্যবান সাবিত্রী (১৯১৪)
  • লঙ্কা দহন (১৯১৭)
  • শ্রী কৃষ্ণ জন্ম (১৯১৮)
  • কালীয় মর্দন (১৯১৯)
  • সেতু বন্ধন (১৯২৩)
  • গঙ্গাবতরণ (১৯৩৭)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Dadasaheb Phalke, the father of Indian cinema – Bāpū Vāṭave, National Book Trust – Google Books। Books.google.co.in। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১২ 
  2. Sachin Sharma, TNN 28 June 2012, 03.36AM IST (২৮ জুন ২০১২)। "Godhra forgets its days spent with Dadasaheb Phalke – Times of India"। Articles.timesofindia.indiatimes.com। ১ নভেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১২ 
  3. Vilanilam, J. V. (২০০৫)। Mass Communication in India: A Sociological Perspective। New Delhi: Sage Publications। পৃষ্ঠা 128। আইএসবিএন 81-7829-515-6 
  4. "The Sunday Tribune – Spectrum – Article"। Tribuneindia.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা