দর্শনা বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্ত অঞ্চলে অবস্থিত একটি গুরুত্বপূর্ণ শহর। শহরটি খুলনা বিভাগের অন্তর্গত চুয়াডাঙ্গা জেলায় অবস্থিত। সীমান্তবর্তী রেল স্টেশন দর্শনা রেলওয়ে স্টেশন এখানে অবস্থান করায় এটি আরও গুরুত্বপূর্ণ।[১]

ভৌগলিক অবস্থানসম্পাদনা

বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গা জেলার অন্তর্গত সীমান্ত শহর দর্শনা।

আয়তন ও জনসংখ্যাসম্পাদনা

আয়তন ১২.৫০ বর্গ কিলোমিটার। বর্তমান প্রায় ১২ হাজার মানুষের বসবাস এই নগরীতে।

ইতিহাস ও ঐতিহ্যসম্পাদনা

ইতিহাসের পাতা থেকে পাওয়া যায় দর্শনা নামকরণটি ১৮০০ সালের কিছু আগে থেকেই প্রচলিত। ১৭৮৭ সালের ২১ মে মার্চ নদীয়া জেলা গঠিত হয়, তখনও এই স্থানটির নাম দর্শনা ছিল। রেনল্ড গেজেট থেকেও জানা যায় ১৮০০ সালের গোড়ার দিকেও এই অঞ্চলের নাম ছিল দর্শনা। কিভাবে এই স্থানের নাম দর্শনা হলো তা নিয়ে ঐতিহাসিকগণের মধ্য দ্বিধাবিভক্তি থাকলেও সর্বজনীন যে কারণটি পাওয়া যায় তা হচ্ছে “দর্শন” শব্দ থেকে দর্শনা শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে। মূলত: এই স্হানটি-তে ট্রানজিট পয়েন্ট, ইক্ষু চাষের উপযুক্ত ভুমি, রেলপথের উপযোগী সূচনা কেন্দ্র, নদী মাতৃক পরিবেশ প্রভূত কিছুর দর্শন মিলেছিল। তাই দর্শনা নাকরণের পেছনে উল্লেখিত কারণটি-ই সর্বাধিক সমাদৃত।

১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধসম্পাদনা

দর্শনা হানাদার মুক্ত হয় ৪ঠা ডিসেম্বর। মুক্তিযুদ্ধের সময় এই এলাকা ছিল ভারতের সাথে নিরাপদে আসা যাওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি অঞ্চল। মুক্তিযুদ্ধের সময় টেলিফোন বা টেলিগ্রাফে দর্শনার কোর্ড (ছদ্ম নাম) ছিল DINGA। ভারত থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে হানাদার বাহিনীর সাথে সরাসরি যুদ্ধে দর্শনার অনেকেই শহীদ হয়েছেন। শহীদ স্মরণে এখানে রয়েছে শহীদ মিনার ও সরকারি কলেজ প্রাঙ্গনে শহীদের তালিকা।

দর্শনীয় স্থানসম্পাদনা

কেরু এন্ড কোং এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম চিনিকল যা ব্রিটিশ আমলে দর্শনায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এটি এই অঞ্চলের একটি উৎকৃষ্ট পিকনিক স্পট, যেখানে একটি দ্বিতল ভবন বিশিষ্ট মনোরম গেস্ট হাউজ রয়েছে।

যোগাযোগব্যবস্থাসম্পাদনা

দর্শনা রেলওয়ে স্টেশন

দর্শনায় আন্তর্জাতিক মানের কম্পিউটারাইজড সুবিধাসহ ১ কিলোমিটারের ব্যবধানে ২টি রেলওয়ে স্টেশন অবস্থিত। দর্শনা রেলওয়ে স্টেশন দিয়ে মৈত্রী ট্রেন সরাসরি ভারতে যাতায়াত করছে।[২]

শুল্ক স্টেশন

দর্শনায় রয়েছে পূর্ণাঙ্গ কাষ্টমস অফিস ও শুল্কগুদামসহ শুল্ক স্টেশন যেখান থেকে সরকার বিপুল অঙ্কের রাজস্ব পাচ্ছে। দর্শনা সীমান্তের জিরো পয়েন্টের কাছেই রয়েছে কাস্টমস চেকপোষ্টের স্থায়ী অবকাঠামো।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

দর্শনায় রয়েছে শতবর্ষ পুরাতন স্কুল। এছাড়া কলেজ-মাদ্রাসাসহ বেশ কিছু বিখ্যাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলঃ

  • দর্শনা সরকারী কলেজ
  • মেমনগর বিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়
  • কেরু উচ্চ বিদ্যালয়
  • দর্শনা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়
  • দক্ষিণ চাঁদপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়
  • আল-হেরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়
  • দর্শনা ডি এস সিনিয়র মাদ্রাসা
  • পূর্ব রামনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়
  • অঙ্কুর আদর্শ বিদ্যালয়

তথ্যসূত্রসম্পাদনা