ত্রেভি ফোয়ারা

রোমে ঝর্ণা, ইতালি

ত্রেভি ফোয়ারা (ইতালীয় ভাষা: Fontana di Trevi, ইংরেজি ভাষায়: Trevi Fountain) ইতালির রাজধানী রোমে অবস্থিত একটি ফোয়ারা। এটি রোম শহরের বৃহত্তম বারোক (আনুমানিক ১৬০০ সালের দিকে যে শৈল্পিক রেনেসাঁ শুরু হয়েছিল) ফোয়ারা এবং পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর ফোয়ারাগুলোর একটি হিসেবে খ্যাত। স্থানীয় লোককাহিনী অনুযায়ী কথিত আছে যে কেউ এই ফোয়ারায় পয়সা ফেললে সে আবার কোন না কোনদিন রোমে ফিরে আসবে। ত্রেভি শব্দটি এসেছে ইতালীয় শব্দ "ত্রে" এবং "ভিয়া"-র সংক্ষিপ্ত রূপ হিসেবে যার অর্থ "তিন রাস্তা"।[১]

Panorama of Trevi fountain 2015.jpg
ত্রেভি ফোয়ারা

ইতিহাসসম্পাদনা

প্রাচীন রোমের একটি কৃত্রিম জলপ্রণালীর শেষ প্রান্তটি সাধারণের সামনে দর্শনীয়ভাবে তুলে ধরার জন্য সে প্রান্তে প্রথমে ত্রেভি ফোয়ারা তৈরি করা হয়েছিল। সেই প্রাচীন রোমান জলপ্রণালীর নাম ছিল ভির্গো, যার অর্থ কুমারী। ১৯ খ্রিস্টপূর্বাব্দের দিকে রোমান সম্রাট আউগুস্তুসের প্রিয় এক জেনারেলের কন্যার স্বামী মার্কুস ভিপসানিয়ুস আগ্রিপ্পা জলপ্রণালীটি তৈরি করেছিলেন যার দৈর্ঘ্য ছিল ২১ কিলোমিটার যার ১৯ কিলোমিটারই ছিল মাটির নিচে। পানথেওনের নিকটে আগ্রিপ্পার হাতেই নির্মিত তাপীয় স্নানঘরে পানি সরবরাহের জন্যই তিনি প্রণালীটি বানিয়েছিলেন। ত্রেভি নির্মাণের আগেই অবশ্য প্রণালীটির শেষ প্রান্তে একটি ফোয়ারা ছিল। সেক্সতুস ইউলিয়ুস ফ্রন্তিনুসের বই De aquaductibus Romae commentarius অনুসারে জলপ্রণালীর নাম রাখা হয়েছিল একজন কুমারী নারীর নামে, রোমান সৈন্যরা তৃষ্ণার্ত ও দুর্বল অবস্থায় যার দেখা পেয়েছিল। কুমারী মেয়েটি তাদেরকে কাছের একটি পানির উৎসে পথ দেখিয়ে নিয়ে গিয়েছিল। উৎসটি ছিল তিবুর্তিনা ও কোল্লাতিনা রাস্তা দুটির মধ্যবর্তী স্থানে। দুটো রাস্তাই রোমে এসে শেষ হয়। এই উৎসটি এখনও ধারাজলের পানি সরবরাহ করে।

৪র্থ শতাব্দীতে রোম শহরে ১৩৫২টি ফোয়ারা ছিল। ৫৩৭ সালে অস্ট্রোগথ রাজা ভিতিগিসের আক্রমণে ভির্গো জলনালীর কিছুটা ক্ষতি হয়। বর্বর বাহিনীর আত্রমণে এক সময় নালীটি পরিত্যক্ত হয়ে যায় এবং মধ্যযুগের আগে এর আর কোন সংস্কার করা হয়নি। ইউরোপীয় রেনেসাঁর প্রথম দিকেই পোপরা সবগুলো জলনালীর শেষ প্রান্ত পুনরায় সংস্কার করে প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেন।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. TREVIFOUNTAIN.NET ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৯ মার্চ ২০১২ তারিখে - রোমের ত্রেভি ফোয়ারা বিষয়ক দাপ্তরিক ওয়েবসাইট
  2. "History, TREVIFOUNTAIN.NET ত্রেভি ফোয়ারার সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত"। ২ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১২