তিশরিন বিশ্ববিদ্যালয়

তিশরিন বিশ্ববিদ্যালয় (আরবি: جامعة تشرين‎, অনুবাদ 'অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়'‎), সিরিয়ার লাতাকিয়াতে অবস্থিত একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। এটি সিরিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয়। ২০ মে ১৯৭১ তারিখে এটি লাতাকিয়া বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং এর পরে এটি অক্টোবর যুদ্ধের স্মরণে নামকরণ করা হয়েছিল। শুরুতে, বিশ্ববিদ্যালয়ের মাত্র ৩টি অনুষদ ছিল, আরবি সাহিত্য, বিজ্ঞান এবং কৃষি, এবং ১৯৭০ এর দশকে ৯৮৩ জন শিক্ষার্থীর তালিকাভুক্তি ছিল।[১] যাইহোক, এই সংখ্যা ৭০,০০০-এরও বেশি ছাত্র-ছাত্রীতে উন্নীত হয়েছে,[১] তিশরিন বিশ্ববিদ্যালয় সিরিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম ও এর অনুষদের সংখ্যা ৩ থেকে ২১-এ বৃদ্ধি পেয়েছে; এর উল্লেখযোগ্য কিছু অনিষদ হচ্ছে- মেডিসিন, ফার্মেসি, ডেন্টিস্ট্রি, বিজ্ঞান, নার্সিং, শিক্ষা, কৃষি, আইন, ইতিহাস, বৈদ্যুতিক, এবং কারিগরি প্রকৌশল এবং শিল্পকলা।[১]

তিশরিন বিশ্ববিদ্যালয়
جامعة تشرين
University of Tishrin.jpg
বিশ্ববিদ্যালয়ের দৃশ্য
ধরনপাবলিক
স্থাপিত১৯৭১
সভাপতিবাসাম হাসান
প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ
২০৮৫
শিক্ষার্থী৭০,০০০ এর বেশি
অবস্থান,
৩৫°৩১′১৭″ উত্তর ৩৫°৪৮′২৬″ পূর্ব / ৩৫.৫২১৫° উত্তর ৩৫.৮০৭৩° পূর্ব / 35.5215; 35.8073
শিক্ষাঙ্গনশহর
পোশাকের রঙ     সোনালী
ওয়েবসাইটতিশরিন বিশ্ববিদ্যালয়
তিশরিন বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো.png

নামসম্পাদনা

বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০ মে ১৯৭১ সালে লাতাকিয়া বিশ্ববিদ্যালয় নামে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। অক্টোবর যুদ্ধের (আরবীতে তিশরিন যুদ্ধ) স্মৃতির প্রতি সম্মান জানাতে ১৯৭৫ সালে নাম পরিবর্তন করা হয়।

কর্মীসম্পাদনা

শিক্ষায়তনিক কর্মীসম্পাদনা

বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কর্মীদের মধ্যে রয়েছে:

  • অনুষদ সদস্য: ৮৯২
  • উচ্চ শিক্ষার প্রশিক্ষক: ২৪ জন।
  • কারিগরি কর্মীদের সদস্য: ১৩৩ জন।
  • শিক্ষকতা সহকারী: ৫৯৮ জন।
  • প্রকৌশলী: ৪২০ জন।

প্রশাসনিক এবং পরীক্ষাগার কর্মীসম্পাদনা

  • পরীক্ষাগার কর্মী: ২৪০ জন।
  • প্রশাসনিক কর্মচারী: ১১১৯ জন।

অনুষদসম্পাদনা

  • কলা ও মানবিক অনুষদ: ১৯৭১ সালে খোলা হয়।
  • কৃষি অনুষদ: ১৯৭১ সালে খোলা হয়।
  • বিজ্ঞান অনুষদ: ১৯৭১ সালে খোলা হয়।
  • সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ: ১৯৭২।
  • মেডিসিন অনুষদ: ১৯৭৪ সালে খোলা।
  • মেকানিক্যাল এবং ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ: ১৯৮০ সালে খোলা।
  • ডেন্টিস্ট্রি অনুষদ: ১৯৮৩ সালে খোলা।
  • স্থাপত্য অনুষদ: ১৯৮৪।
  • অর্থনীতি অনুষদ: ১৯৮৬ সালে খোলা।
  • ফার্মেসি অনুষদ: ১৯৯০ সালে খোলা।
  • নার্সিং অনুষদ: ১৯৯৪ সালে খোলা।
  • শারীরিক শিক্ষা অনুষদ: ১৯৯৫।
  • শিক্ষা অনুষদ: ১৯৯৭ সালে খোলা।
  • তথ্যবিজ্ঞান অনুষদ: ২০০০ সালে খোলা।
  • ২০০২ সালে কারিগরি প্রকৌশল অনুষদ।
  • তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রকৌশল অনুষদ: ২০০৮ সালে খোলা।
  • আইন বিভাগ

ইন্টারমিডিয়েট ইনস্টিটিউট এবং ভোকেশনাল স্কুলসম্পাদনা

  • ইন্টারমিডিয়েট ইনস্টিটিউট অফ এগ্রিকালচার: ১৯৭৪ সালে খোলা।
  • ইন্টারমিডিয়েট ইনস্টিটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারিং: ১৯৭৯ সালে খোলা।
  • ইন্টারমিডিয়েট ইনস্টিটিউট অফ মেডিসিন: ১৯৭৯ সালে খোলা।
  • ইন্টারমিডিয়েট ইনস্টিটিউট অফ কমার্স: ১৯৮০ সালে খোলা।
  • ইন্টারমিডিয়েট ইনস্টিটিউট অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন স্কিলস: ১৯৯৫ সালে খোলা হয়েছে।
  • ইন্টারমিডিয়েট ইনস্টিটিউট অফ কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং: ১৯৯৮ সালে খোলা হয়।
  • নার্সিং স্কুল: ১৯৮০ সালে খোলা।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "لمحة عن الجامعة"tishreen.edu.sy। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

টেমপ্লেট:UNIMED