ডোডোনা এজেওন

কীটপতঙ্গের প্রজাতি

ডোডোনা এজেওন বা অরেঞ্জ পাঞ্চ (বৈজ্ঞানিক নাম: Dodona egeon) ডোডোনা গোত্রভুক্ত প্রজাপতি যা জন ওয়েস্টউড ১৮৫১ সালে প্রথম চিহ্নিত করেন। এটি ভারতের হিমালয় অঞ্চলে সচারচর পরিদৃষ্ট হয়। বাদামী বা হলুদ এমনকী কখনও খয়েরি রঙের পাখার এই প্রজাপতি ক্রমবিলীয়মান। তাই ভারতের বন্য সুরক্ষা আইন ১৯৭২’র আওতায় এই পতঙ্গের সুরক্ষা নিশ্চিত করা হয়েছে। রিওডিনিডি পরিবারভুক্ত এ প্রজাপতির বৈজ্ঞানিক নাম ডোডোনা ইজিয়নস্‌ [১][২]

ডোডোনা এজেওন
অরেঞ্জ পাঞ্চ
Close wing position of Dodona egeon Westwood, 1851 – Orange Punch.jpg
ডানা বন্ধ অবস্থায়
Open wing position of Dodona egeon Westwood, 1851 – Orange Punch.jpg
ডানা খোলা অবস্থায়
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: প্রাণী
পর্ব: অষ্টপদী
শ্রেণী: পতঙ্গ
বর্গ: Lepidoptera
পরিবার: Riodinidae
গণ: ডোডোনা
প্রজাতি: D. egeon
দ্বিপদী নাম
Dodona egeon
(Westwood, 1851)

আকারসম্পাদনা

ডোডোনা এজেওনের প্রসারিত অবস্থায় ডানার আকার ৪৪-৫০ মিলিমিটার দৈর্ঘ্যের হয়।

উপপ্রজাতিসম্পাদনা

ভারতে প্রাপ্ত লেসার পাঞ্চ এর উপপ্রজাতি হল-[৩]

  • Dodona egeon egeon Westwood, 1851 – Himalayan Orange Punch

বর্ণনাসম্পাদনা

পুরুষসম্পাদনা

ডানার উপরিতলসম্পাদনা

সামনের ডানার উপরিতলের ডিসকাল,টার্মিনাল অংশ এবং সেলের বর্হিমধ্যভাগ কালো এবং বেসাল অঞ্চল ও সেলের অর্ন্তমধ্যভাগ ঘন কমলা-হলুদ এবং লালের মিশ্রন। সাবকোস্টাল শিরা থেকে ১নং শিরা পর্যন্ত বিস্তৃত একটি ছোট, চওড়া, তীর্যক হলুদ রঙ্গা সাব-বেসাল বন্ধনী বিদ্যমান। ১,২,৪ ও ৫ নং ইন্টারস্পেস এ ডিসকাল অংশে হলুদ সামান্য বড় কয়েকটি সারিবন্ধ ছোপ চোখে পড়ে যাদের মধ্যে উপরে দুটি ও মধ্যের দুটি ছোপ শিরাগুলির দ্বারা বিভাগিত এবং আলাদা। এদের নিম্নবর্তী ছোপ দুটি ১ক নং ইন্টারস্পেসে একটি লম্বাটে লালচে হলুদ ছোপ দ্বারা সাব-বেসাল বন্ধনীটির সাথে বক্রভাবে যুক্ত হয়েছে। পোস্টডিসকাল অংশে একসারি হলুদ অর্ধচন্দ্রাকৃতি অথবা ক্ষীনচন্দ্রাকৃতি ছোপ বিদ্যমান, যার শীর্ষদেশে ২ ও ৩ নং ইন্টারস্পেসে একটি প্রায় গোলাকৃতি হলুদ ছোপ অবস্থিত। পোশটডিসকাল অংশের উপরিদিকে বক্রাকারে অবস্থিত ৩টি সাদাটে ক্ষুদ্রতর ছোপ দেখা যায় ৪,৫ ও ৬ নং ইন্টারস্পেসে। যেগুলি সাবটার্মিনাল হলুদ ছোপগুলির সাথে যুক্ত হয়েছে। সাবটার্মিনাল ছোপগুলি টর্নাস এর দিকে নেমে গিয়েও ডরসাম এর দিকে বেঁকে গিয়ে শেষ হয়েছে। অ্যাপেক্স (শীর্ষপ্রান্ত)এ দুটি ক্ষুদ্র প্রি-এপিকাল বিন্দু উপস্থিত।

নিচের ডানার রঙ চাপা কমলা হলুদ। ডরসাল প্রান্তরেখা চওড়া ভাবে বাদামী রঙ্গে ছাওয়া। ডানার মধ্যবর্তী অংশে সাব-কোস্টাল অংশ থেকে টর্নাসের দিকে নেমে যাওয়া একটি কালচে বাদামী সোজা বন্ধনী চোখে পড়ে। ডিসকাল অংশে উপরের দিকে সাব কোস্টাল অংশ থেকে উতপন্ন অপর একটি ক্ষুদ্রতর, চওড়া বন্ধনী রয়েছে যা কালচে বাদামী বর্ণের। একটি পোস্ট ডিসকাল, একটি সাবটার্মিনাল এবং একটি টার্মিনাল বন্ধনী দেখা যায় যার রঙ কালচে বাদামী। উক্ত তিনটি বন্ধনী অ্যাপেক্স (শীর্ষপ্রান্ত)এ গিয়ে একত্রিভূত হয়েছে। টর্নাল লতি এবং সরু লেজ কালো।

ডানার নিম্নতলসম্পাদনা

ডানার নিম্নতল বাদামী (চেস্টনাট) এবং লালের সংমিশ্রন এবং দাগ-ছোপ বন্ধনী এবং ডোরাগুলি কম –বেশি রূপালী বর্ণের। সামনের ডানায় কোস্টাল প্রান্তরেখার বেস এ একটি ছোট ডোরা বর্তমান। একটি বেসাল, একটি ডিসকাল এবং একটি বেসাল ও ডিসকাল অংশের মধ্যবর্তী বন্ধনী বিদ্যমান যার প্রতিটি তীর্যক এবং চওড়া। পোস্টডিসকাল অংশে একসারি অনিয়মিত, তীর্যক ছোপ এবং খুব সরু ও সুক্ষ্ম এবং ছোট সাবটার্মিনাল রেখার একটি তীর্যক সারি দেখা যায়। ডিসকাল বন্ধনী এবং পোস্টডিসকাল ছোপ এর সারির মধ্যবর্তী অংশে দুটি রূপালী সাবকোস্টাল ছোপ এবং ৩ নং ইন্টারস্পেসে একটি অনুরূপ তীর্যক ছোপ অবস্থিত। অন্যান্য দাগ-ছোপগুলির অগ্রভাগ রূপালী এবং পশ্চাতভাগে কমলা হলুদ বর্ণের।

পিছনের ডানার বেস এ একটি ছোট তেরচা রূপালী ডোরা অথবা দাগ লক্ষ্য করা যায়। ১ নং শিরা বরাবর একটি সংকীর্ণ রূপালী ডোরা ছোখে পড়ে যেটি টর্নাস অবধি বিস্তৃত নয়। ডরসাল প্রান্তরেখা বরাবর একটি রূপালী দাগ অথবা ডোরা উপর দিকে উঠে গেছে যেটি কোস্টা থেকে নেমে আসা তীর্যক ডিসকাল বন্ধনীর সাথে যুক্ত হয়েছে। ডিসকাল বন্ধনী ও ডানার বেস এর মধ্যাঞ্চলে একটি তীর্যক, অধিকতর চওড়া এবং সোজা বন্ধনী পরিলক্ষিত হয়। পোস্টডিসকাল অংশের উপরিভাগে একটি অতি চওড়া, লম্বাটে এবং ত্রিকোনাকৃতি রূপালী পটি দেখা যায়, যাকে অনুসরন করে একসারি তীর্যক সরু কালো দাগ অবস্থিত যেটি ডানার শীর্যভাগে চৌকোনা একটি রূপালী ছোপ এ বসানো দুটি কালো ছোপে গিয়ে শেষ হয়েছে। টর্নাস লতি (লোব) এবং সরু লেজ ঘন কালো এবং এদের ভিতর দিকের প্রান্তরেখা সাদা রেখা দিয়ে ঘেরা। টর্নাস লতির শীর্ষস্থানে একটি ধূসর অথবা ছাই বর্ণের পটি বিদ্যমান।

শুংগ, মাথা, থোরাক্স এবং উদরের উপরিতল কালচে বাদামী এবং নিম্নতলে পাল্পি, থরাক্স এবং উদরদেশ ধূসর সাদা।

স্ত্রীসম্পাদনা

স্ত্রী নমুনায় ডানার উপরিতল হালকা বাদামী এবং কালো তবে পুরুষ নমুনা অপেক্ষা অধিক ফ্যাকাশে। ডানার উপরিতলের দাগ, ছোপ ও বন্ধনীগুলি পুরুষের অনুরূপ;তবে খুব বেশি বৃহত ও অপেক্ষাকৃত বিবর্ন অথবা ফ্যাকাশে ধরনের। বিশেষতঃ সামনের ডানার উপরিপৃষ্ঠে পোস্টডিসকাল অংশের উপরিদিকের ছোপগুলি বৃহত্ত্র এবং অধিক বিবর্ন। ডানার নিম্নতল পুরুষেরই অনুরূপ। মূল রঙ অপেক্ষাকৃত ফ্যাকাশে এবং রূপালী দাগ ছোপগুলি অধিকতর প্রসস্ত অথবা চওড়া।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. [১]
  2. "Butterflies of India"। ১৯ জুলাই ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৮ 
  3. "Dodona egeon Westwood, 1851 – Orange Punch"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৭