ট্যাবি

কীটপতঙ্গের প্রজাতি

ট্যাবি (বৈজ্ঞানিক নাম: Pseudergolis wedah (Kollar)) এক প্রজাতির মাঝারী আকারের কালচে হলুদ-কমলা রঙের প্রজাপতি। এরা নিমফ্যালিডি পরিবারের সদস্য।

ট্যাবি
Tabby
Partically close wing position of Pseudergolis wedah Kollar, 1844 – Tabby WLB DSC 4377.jpg
ডানা বন্ধ অবস্থায়
Open wing position of Pseudergolis wedah Kollar, 1844 – Tabby.jpg
ডানা খোলা অবস্থায়
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Arthropoda
শ্রেণী: Insecta
বর্গ: Lepidoptera
পরিবার: Nymphalidae
গণ: Pseudergolis
প্রজাতি: P. wedah
দ্বিপদী নাম
Pseudergolis wedah
(Kollar, 1848)

উপপ্রজাতিসম্পাদনা

ভারতে প্রাপ্ত ট্যাবির উপপ্রজাতিসমূহ হল-[১]

  • Pseudergolis wedah wedah Kollar, 1844 – Himalayan Tabby

আকারসম্পাদনা

ট্যাবির প্রসারিত অবস্থায় ডানার আকার ৫৫-৬৫মিলিমিটার দৈর্ঘ্যের হয়।[২][৩]

বিস্তারসম্পাদনা

ভারতএর (হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাঞ্চল) সিকিম থেকে আরুণাচল প্রদেশ, উত্তর-পূর্ব ভারত, নেপাল, ভুটান, বাংলাদেশ এবং মায়ানমার এ দেখা যায়। এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ৪০০ থেকে ২০০০ ফুট উচ্চতা অবধি এদের দর্শন মেলে।

বর্ণনাসম্পাদনা

পুরুষ এবং স্ত্রী ট্যাবি, উভয় নমুনাই অনুরূপ।

ডানার উপরিপৃষ্ঠএর রঙ সোনালী বাদামী। উভয় ডানারই সেলের মধ্যে আড়াআড়ি ভাবে চারটে করে কালো আঁকাবাকা তেরচা ভাবে অবস্থিত লম্বা দাগ বিদ্যমান। উভয় ডানার সেল এর অব্যবহিত পরেই ডিসকোসেলুলার অংশে একটি করে আঁকাবাকা কালো সুস্পষ্ট রেখা কোস্টার সামান্য নীচ থেকে শুরু হয়ে ডরসাম এর খানিক উপর পর্যন্ত উলম্বভাবে বিস্তৃত। উভয় ডানাতেই পোস্টডিসকাল অংশে অনুরূপ আরো একটি কালো আঁকাবাকা রেখা বিদ্যমান যা কোস্টার নীচ থেকে উতপন্ন হয়ে টর্নাস এর উপর পর্যন্ত বিস্তৃত। সাবটার্মিনাল কালো সরু আঁকাবাকা রেখাটি শীর্যভাগ এর কাছে কোস্টাল প্রান্তরেখা থেকে শুরু হয়ে টর্নাস পর্যন্ত বিস্তার লাভ করেছে। উভয় ডানাতেই পোস্টডিসকাল এবং সাব-টার্মিনাল রেখা দুটির মাঝে প্রতিটি ইন্টারস্পেসে একটি করে কালো ছোট ছোপ অথবা বিন্দু বর্তমান এবং একটি ধারাবাহিক ছোপ এর সারি গঠন করেছে।

ডানার নিম্নপৃষ্ঠের রঙ হালকা চকোলেট বাদামী এবং বেগুনি চক্‌চক্‌ এ আভা যুক্ত। সামনের ডানার শীর্যভাগ চৌকো আকৃতির।

আচরণসম্পাদনা

এদের সাধারনত ছোট ঝর্ণার ধারে পাওয়া যায়। ঝর্ণার ধারে পাথরের উপর ডানা মেলে অথবা মাটির কাছাকাছি নিচু পাতার উপর বসে এরা বিশ্রাম করে। [৩] পার্বত্য অঞ্চলে নদী ও ঝর্নার আশেপাশে এদের উড়তে দেখা যায়। এছাড়া মাংশাষী পশু এবং পাখির বিষ্ঠার উপর ভিজে ছোপ এর উপরও এদের বসতে দেখা যায়।

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

ডিমসম্পাদনা

স্ত্রী ট্যাবি পাতার নিচের পিঠে একটি করে ডিম পাড়ে।[৪]

শূককীটসম্পাদনা

ট্যাবির শুককীট সবুজ বর্নের হয় এবং এদের মাথাই কাঁটাযুক্ত শিং দেখা যায়।[৪]

আহার্য উদ্ভিদসম্পাদনা

এই শূককীট Pipturus argenteus,Debregeasia edulis,Debregeasia bicolor [৪] গাছের কচি পাতার রসালো অংশ আহার করে।[৫]

মূককীটসম্পাদনা

চিত্রশালাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Pseudergolis wedah Kollar, 1844 – Tabby"। সংগ্রহের তারিখ ২২ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. Singh, V.; Banyal, H.S. (২০১৪)। "Preliminary ecological studies on the Lepidoptera from Khajjiar lake catchment, Himachal Pradesh, India" (PDF)5 (1)। Biodiversity Journal: 61–68। 
  3. Wynter-Blyth, M.A. (১৯৫৭)। Butterflies of the Indian region (First Edition সংস্করণ)। Bombay: The Bombay Natural History Society। পৃষ্ঠা ২০০। 
  4. Nakanishi, A.; Saigusa, T.। "Immature stages of Pseudregolis wedah (Kollar, 1844) (Lepidoptera, Nymphalidae)" (PDF)। Nature and Human Activities। পৃষ্ঠা 91-102। সংগ্রহের তারিখ ২৩ অক্টোবর ২০১৬ 
  5. Pseudergolis C. & R. Felder, [1867]. [১]

বহিঃসংযোগসম্পাদনা