জুলি ডো

একজন রূপান্তরকামী মহিলার ডাক নাম

জুলি ডো হলেন একজন রূপান্তরকামী মহিলার ডাক নাম, বিশ্বাস করা হয় যে তাকে ১৯৮৮ সালে ফ্লোরিডার ক্লারমন্টে হত্যা করা হয়েছিল। ভুক্তভুগীর পরিচয়, বা তার মৃত্যুর সাথে জড়িতদের পরিচয়ও পাওয়া সম্ভব হয়নি। ২০১৫ সালে ডিএনএ পরীক্ষার আগ পর্যন্ত ভুক্তভুগী একজন সিজেন্ডার মহিলা বলে বিশ্বাস করা হত।[১]

জুলি ডো

আবিষ্কারসম্পাদনা

২২ বছর থেকে ৩৫ বছর বয়সী ভুক্তভোগীর মমিযুক্ত দেহাবশেষ ১৯৮৮ সালের ২৫শে সেপ্টেম্বর ফ্লোরিডার ক্লারমন্ট, লেক কাউন্টির "গ্রিন সোয়াম্প" এলাকার একটি রাস্তার পাশে ছিল। কাঠের সন্ধানকারী একজন ব্যক্তি প্রাথমিক ভাবে আবিষ্কার করেছিলেন। মৃতদেহটি একটি গোপন এলাকায় টেনে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, কাউন্টি রোড ৪৭৪ এর রাস্তা লেক ও পোলক কাউন্টির সীমানা থেকে খুব দূরে নয়।[২]

তিনি একটি নীল-সবুজ ট্যাঙ্ক টপ এবং একটি অ্যাসিড-ধোয়া ডেনিম স্কার্ট পরতেন। তিনি যে প্যান্টিহোজ বা পায়ের পাতার মোজা পরতেন তা আংশিকভাবে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল, যা দেখায় যে যৌন নিপীড়ন ঘটে থাকতে পারে।[৩] ঘটনাস্থলে কোন জুতা, গয়না বা অন্যান্য ব্যক্তিগত জিনিস পাওয়া যায়নি, যার মধ্যে সনাক্তকরণের ধরনও রয়েছে।[৪] তার মৃতদেহ রাখার স্থানের আশেপাশে সন্দেহজনক পরিস্থিতির কারণে তদন্তকারীদের হত্যার সন্দেহ হয়।[২]

দেহের অবস্থার উপর ভিত্তি করে অনুমান করা হয়েছিল যে খুঁজে পাওয়ার প্রায় দুই সপ্তাহ থেকে আট মাস আগে তিনি মারা গেছেন।[৫][৬] দেহাবশেষ শনাক্ত করা যায় এমন অবস্থায় ছিল না।[৭]

পরীক্ষাসম্পাদনা

দেহাবশেষ খুঁজে পাওয়ার পর সকালে ফ্লোরিডার গেইনসভিলের সিএ পাউন্ড হিউম্যান আইডেন্টিফিকেশন ল্যাবরেটরিতে উইলিয়াম আর ম্যাপলস কর্তৃক দেহাবশেষের ময়নাতদন্ত করা হয়।[৭] মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট ছিল না।

ভুক্তভুগীর চুল লম্বা বলে বর্ণনা করা হয়েছিল এবং তাতে স্ট্রবেরি-স্বর্ণকেশী রঙ করা হয়েছিল। তার দীর্ঘ, ম্যানিকিউর করা নখ ছিল, যা কৃত্রিমও হতে পারে।[৫] তার পায়ের আঙ্গুল, তার একটি গালের হাড়, একটি পাঁজর ও সম্ভবত তার নাকের উপরের হাড় ভাঙ্গা চিহ্নিত করা হয়েছে।[৮] তার উচ্চতা ৫'৯" এবং ৫'১১" এর মধ্যে, ওজন ১৫০ পাউন্ডে থেকে ১৮০ পাউন্ডের মধ্যে ছিল।[৫] তিনি কসমেটিক সার্জারিও করেছিলেন। তিনি ২৫০সিসি সিলিকন স্তন ইমপ্লান্ট করিয়ে ছিলেন, যা ভুক্তভুগীর শরীরের সমানুপাতিক হবে।[৭] প্রক্রিয়াটি জর্জিয়ার আটলান্টা; ফ্লোরিডার মিয়ামি; লুইজিয়ানার নিউ অরলিন্স; নিউ ইয়র্ক সিটি বা ক্যালিফোর্নিয়ায় সম্পাদিত হতে পারে।[১] এটা বিশ্বাস করা হয় যে লিঙ্গ পুনঃনির্ধারণের অস্ত্রোপচার ১৯৮৪ সালের কাছাকাছি ঘটেছিল, এই সত্যের উপর ভিত্তি করে যে ইমপ্লান্টগুলি ১৯৮৩ সালের দিকে বন্ধ করা হয়েছিল। [৭] স্পষ্টতই তার একটি রাইনোপ্লাস্টি ছিল, যা তার নাকের আঘাতের সাথে সম্পর্কিত হতে পারে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল যে তিনি হরমোনের পরিবর্তনের জন্য দায়ী শ্রোণীচক্রের উপর ভিত্তি করে অন্তত একবার প্রসব করেছেন।[৭][৯]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. ""Julie Doe" - Transgender woman likely murdered in 1988, believed to be cisgender for 27 years"Daily Kos। নভেম্বর ১৯, ২০১৫। সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ 
  2. "Body Found in Woods Still Unidentified"Orlando Sentinel। ২৬ সেপ্টেম্বর ১৯৮৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০২০ 
  3. "2752UMFL"www.doenetwork.orgThe Doe Network। মে ১, ২০১৬। জুলাই ১২, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ 
  4. Ray, Karla (১৭ জুলাই ২০১৮)। "9 Investigates: New technology could bring closure to cold cases"WFTV। ২৮ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০২০ 
  5. "Do you know this woman? Police release sketch of transgender victim in cold case - Watermark Online"Watermark Online। নভেম্বর ৩০, ২০১৫। সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ 
  6. "Unidentified Person Case"www.namus.gov (ইংরেজি ভাষায়)। National Missing and Unidentified Persons System। অক্টোবর ১৪, ২০০৯। জুন ৯, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ 
  7. Redgrave, Lee and Anthony (২৮ ডিসেম্বর ২০১৮)। "The Incredible Postmortem Journey of "Transgender Julie Doe""। Trans Doe Task Force। ১৮ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০২০ 
  8. Hyman, Jayme (নভেম্বর ২১, ২০১৫)। "New Sketch of "Julie Doe", Transgender Woman Still Unidentified After 27 Years"Daily Kos। সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ 
  9. Zhang, Sarah (২৩ ডিসেম্বর ২০১৯)। "Sleuths Are Haunted by the Cold Case of Julie Doe"The Atlantic। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০