জাহিদ মালেক স্বপন

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী, বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

জাহিদ মালেক স্বপন (জন্ম: ১১ এপ্রিল ১৯৫৯) হলেন একজন বাংলাদেশি ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ ও সংসদ সদস্য, যিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। তিনি মানিকগঞ্জ-৩ থেকে তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য।[১] এবং ২০১৪ সালে গঠিত তৃতীয় হাসিনা মন্ত্রিসভার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী। ২০১৯ সালে চতুর্থ হাসিনা মন্ত্রিসভার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

জাহিদ মালেক
Zahid Maleque.jpg
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
৭ জানুয়ারি ২০১৯
প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা
পূর্বসূরীমোহাম্মদ নাসিম
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
১২ জানুয়ারি ২০১৪ – ৭ জানুয়ারি ২০১৯
প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা
জাতীয় সংসদ সদস্য
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২০০৮
পূর্বসূরীহারুন অর রশিদ খান মুন্নু
সংসদীয় এলাকামানিকগঞ্জ-৩
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1959-04-11) ১১ এপ্রিল ১৯৫৯ (বয়স ৬১)
মানিকগঞ্জ জেলা, পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ)
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
পিতামাতাআব্দুল মালেক
ফৌজিয়া মালেক

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

জাহিদ মালেক ১৯৫৯ সালের ১১ এপ্রিল মানিকগঞ্জ জেলার মানিকগঞ্জ সদর উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আব্দুল মালেক ছিলেন ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের প্রাক্তন মেয়র এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন মন্ত্রী ও তার মাতার নাম ফৌজিয়া মালেক। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি বিষয়ে এম.এ. ডিগ্রি অর্জন করেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

জাহিদ মালেক স্বপন ১৯৮৪ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ থাই এ্যালুমিনিয়াম লিঃ, সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিঃ, বিডি থাইফুড এন্ড বেভারেজ লিঃ, রাহাত রিয়েল এস্টেট এন্ড কন্সট্রাকশন লিঃ, বিডি সানলাইফ ব্রোকারেজ হাউজ লিঃ এর চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ২০০১ সালে প্রথম বারের মত মানিকগঞ্জ-৩ আসন থেকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন কিন্তু পরাজিত হন। ২০০৮ সালের সাধারণ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে পুরায় অংশগ্রহণ করেন এবং সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[২] ২০১৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।[৩] ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি থেকে জাহিদ মালেক বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান এবং ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আবারও সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন[৪] এবং ২০১৯ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ পুনরায় সরকার গঠন করলে তিনি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্ব পান।[৫]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

জাহিদ মালেকের স্ত্রীর নাম শাবানা মালেক। এই দম্পতির এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা