জলতাপীয় রন্ধ্র

কোনও গ্রহের পৃষ্ঠতলের চিড় বা ফাটল যেখান থেকে ভূ-তাপীয়ভাবে উত্তপ্ত জল নির্গত হয়

পৃথিবীপৃষ্ঠের ফাটল বা রন্ধ্র দিয়ে যখন ভূতাপের ফলে উত্তপ্ত পানি নির্গত হয়, তখন সেই রন্ধ্র, ফাটল বা চিড়কে জলতাপীয় রন্ধ্র বলে। গভীর সমুদ্রে যখন লবণাক্ত পানি আগ্নেয় ম্যাগমার সাথে মিশ্রিত হয় তখনই জলের তাপমাত্রা ৩৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত পৌঁছে। এই রন্ধ্র অন্য গ্রহেও পাওয়া যায়। তবে পৃথিবীতে সাধারণত সক্রিয় আগ্নেয়গিরির আশেপাশে, হটস্পটে, যেখানে মহাদেশীয় পাতগুলির মধ্যে সংঘর্ষ হয়, বা একে অন্যের উপর দিয়ে চলে যায়, সেসমস্ত জায়গায় পাওয়া যায়। ১৯৭৭ সালে প্রথম গ্যালাপোগাস দ্বীপের আশেপাশে আবিষ্কৃত হয় সমুদ্রের জলতাপীয় রন্ধ্র।[১]

জলতাপীয় রন্ধ্রসমূহের ভৌগোলিক বণ্টন
কালো ধোঁয়াবিশিষ্ট জলতাপীয় রন্ধ্র; এগুলি প্রথম ১৯৭৯ সালে পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরে ২১ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশে আবিষ্কৃত হয়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Paine, M. (১৫ মে ২০০১)। "Mars Explorers to Benefit from Australian Research"Space.com